নবাবগঞ্জে কলেজ পড়ুয়া ২ ভাইয়ের ‘ফ্রি সবজির দোকান’!
jugantor
নবাবগঞ্জে কলেজ পড়ুয়া ২ ভাইয়ের ‘ফ্রি সবজির দোকান’!

  বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি  

১১ এপ্রিল ২০২০, ১২:১০:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

নবাবগঞ্জে কলেজ পড়ুয়া ২ ভাইয়ের ‘ফ্রি সবজির দোকান’!

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস আতঙ্কে বিশ্ব। একই আতঙ্ক বাংলাদেশেও। এতে সবাই নিজ নিজ গৃহে অবস্থান করছেন। আর এ অবস্থায় সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষরা পড়েছেন বিপাকে। ঘর থেকে বের হতে না পেরে খাদ্য সংকটে ভুগছে অনেক পরিবার।

এমন অবস্থায় ফ্রি সবজির দোকান নিয়ে বসেছেন দিনাজপুরে নবাবগঞ্জের গোলাপগঞ্জ ইউনিয়ানের জগন্নাথপুর গ্রামে ইয়াসিন আলীর দুই ছেলে আহসান হাবিব ও সাহাজুল ইসলাম। দেশের এমন পরিস্থিতিতে খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়াতে এমন উদ্যোগ নিয়েছেন দুই ভাই।

জানা গেছে, নবাবগঞ্জ বাজারে আহসান ও সাহাজুল ইসলামের ছোট কসমেটিক দোকান রয়েছে। এই দোকানের ওপর চলে তাদের সংসার। পাশাপাশি নবাবগঞ্জ কলেজে দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়াশোনা করছেন তারা।

দুই ভাই নিজেদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক আইডিতে সবজির দোকানের ছবিসহ যা লিখেছেন তা তুলে ধরা হলো-

‘আমরা আমাদের নিজ উদ্যোগে আমাদের গ্রামে সব মেহনতি মানুষের মধ্যে প্রতিদিন বিনামূল্যে কাঁচা বাজার (শাকসবজি) বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছি।

যত দিন দেশের এই করুণ অবস্থা চলতে থাকবে, ততদিন আমাদের এই কার্যক্রম চলতে থাকবে। যারা অভাবগ্রস্ত আছেন, লজ্জা না করে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। আপনাদের গোপনীয়তা রক্ষা করে আমরা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেব।’

এ বিষয়ে সাহাজুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, আমাদের দেশে করোনাভাইরাস আসায় গ্রামে গরিব অসহায় মানুষ কাজকর্ম করতে পারছেন না। ঘর থেকে বের হতে সরকার থেকে নিষেধ আছে। তাই এই গরিব মানুষদের কথা ভেবে আমরা দুই ভাই ও বাবা মিলে ফ্রি শাকসবজির দোকান দিয়েছি।

তিনি জানান, প্রতিদিন বিরামপুর বাজার থেকে এক হাজার টাকার শাকসবজি কিনে এনে বিকাল ৩টায় দোকানে বসছি। এতে অনেকেই উপকৃত হচ্ছেন।

নবাবগঞ্জে কলেজ পড়ুয়া ২ ভাইয়ের ‘ফ্রি সবজির দোকান’!

 বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি 
১১ এপ্রিল ২০২০, ১২:১০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নবাবগঞ্জে কলেজ পড়ুয়া ২ ভাইয়ের ‘ফ্রি সবজির দোকান’!
ছবি: যুগান্তর

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস আতঙ্কে বিশ্ব। একই আতঙ্ক বাংলাদেশেও। এতে সবাই নিজ নিজ গৃহে অবস্থান করছেন। আর এ অবস্থায় সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষরা পড়েছেন বিপাকে। ঘর থেকে বের হতে না পেরে খাদ্য সংকটে ভুগছে অনেক পরিবার।

এমন অবস্থায় ফ্রি সবজির দোকান নিয়ে বসেছেন দিনাজপুরে নবাবগঞ্জের গোলাপগঞ্জ ইউনিয়ানের জগন্নাথপুর গ্রামে ইয়াসিন আলীর দুই ছেলে আহসান হাবিব ও সাহাজুল ইসলাম। দেশের এমন পরিস্থিতিতে খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়াতে এমন উদ্যোগ নিয়েছেন দুই ভাই।

জানা গেছে, নবাবগঞ্জ বাজারে আহসান ও সাহাজুল ইসলামের ছোট কসমেটিক দোকান রয়েছে। এই দোকানের ওপর চলে তাদের সংসার। পাশাপাশি নবাবগঞ্জ কলেজে দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়াশোনা করছেন তারা।

দুই ভাই নিজেদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক আইডিতে সবজির দোকানের ছবিসহ যা লিখেছেন তা তুলে ধরা হলো- 

‘আমরা আমাদের নিজ উদ্যোগে আমাদের গ্রামে সব মেহনতি মানুষের মধ্যে প্রতিদিন বিনামূল্যে কাঁচা বাজার (শাকসবজি) বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছি। 

যত দিন দেশের এই করুণ অবস্থা চলতে থাকবে, ততদিন আমাদের এই কার্যক্রম চলতে থাকবে। যারা অভাবগ্রস্ত আছেন, লজ্জা না করে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। আপনাদের গোপনীয়তা রক্ষা করে আমরা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেব।’ 
 
এ বিষয়ে সাহাজুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, আমাদের দেশে করোনাভাইরাস আসায় গ্রামে গরিব অসহায় মানুষ কাজকর্ম করতে পারছেন না। ঘর থেকে বের হতে সরকার থেকে নিষেধ আছে। তাই এই গরিব মানুষদের কথা ভেবে আমরা দুই ভাই ও বাবা মিলে ফ্রি শাকসবজির দোকান দিয়েছি। 

তিনি জানান, প্রতিদিন বিরামপুর বাজার থেকে এক হাজার টাকার শাকসবজি কিনে এনে বিকাল ৩টায় দোকানে বসছি। এতে অনেকেই উপকৃত হচ্ছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন