ঠাকুরগাঁওয়ে সড়কে আহত ৬ জনই সর্দি জ্বরে আক্রান্ত
jugantor
ঠাকুরগাঁওয়ে সড়কে আহত ৬ জনই সর্দি জ্বরে আক্রান্ত

  ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি  

১২ এপ্রিল ২০২০, ২৩:৪১:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ঠাকুরগাঁওয়ের খোচাবাড়ি এলাকায় মাইক্রোবাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৬ জন আহত হয়েছেন। তাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত গার্মেন্টস শ্রমিকরা সবাই সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত বলে জানায় হাসপাতাল সূত্র।

রোববার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সদর উপজেলার খোঁচাবাড়ি-বলাকা উদ্যানের মধ্যবর্তী স্থানে ঢাকা-ঠাকুরগাঁও মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ, ফায়ার ব্রিগেড ও স্থানীয়রা জানায়, ঢাকা থেকে আসা একটা দ্রুতগতির মাইক্রোবাসের গতিরোধ করেন লকডাউনে ডিউটিরত টহল পুলিশ। এ সময় পেছন থেকে আসা ট্রাকের ধাক্কায় মাইক্রোবাসটি উল্টে খাদে পড়ে যায়।

ট্রাকটি রাস্তার পাশের গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেলে ট্রাকের ড্রাইভার গুরুতর আহত হয়ে ট্রাকের ভেতরে আটকা পড়েন। পরে ফায়ার ব্রিগেডের কর্মীরা এসে আহতদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে পাঠায়।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার এসআই রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের সিনিয়র মেডিসিন কনসালটেন্ট ডা. তোজাম্মেল হকের তত্ত্বাবধানে আহতদের রাখা হয়েছে।

ডা. তোজাম্মেল হক টেলিফোনে জানান, শ্রমিকদের মধ্যে একজনের করোনার লক্ষণ আছে। এদের নমুনা নিয়ে রংপুরে পাঠানো হবে।

জানা গেছে, স্বাস্থ্য পরীক্ষায় এ জেলার করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৩ জন। এ ঘটনার পর ঠাকুরগাঁও শনিবার রাত ৯টায় লকডাউন ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন।

ঠাকুরগাঁওয়ে সড়কে আহত ৬ জনই সর্দি জ্বরে আক্রান্ত

 ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি 
১২ এপ্রিল ২০২০, ১১:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঠাকুরগাঁওয়ের খোচাবাড়ি এলাকায় মাইক্রোবাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৬ জন আহত হয়েছেন। তাদের সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত গার্মেন্টস শ্রমিকরা সবাই সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত বলে জানায় হাসপাতাল সূত্র।
 
রোববার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সদর উপজেলার খোঁচাবাড়ি-বলাকা উদ্যানের মধ্যবর্তী স্থানে ঢাকা-ঠাকুরগাঁও মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ, ফায়ার ব্রিগেড ও স্থানীয়রা জানায়, ঢাকা থেকে আসা একটা দ্রুতগতির মাইক্রোবাসের গতিরোধ করেন লকডাউনে ডিউটিরত টহল পুলিশ। এ সময় পেছন থেকে আসা ট্রাকের ধাক্কায় মাইক্রোবাসটি উল্টে খাদে পড়ে যায়।

ট্রাকটি রাস্তার পাশের গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেলে ট্রাকের ড্রাইভার গুরুতর আহত হয়ে ট্রাকের ভেতরে আটকা পড়েন। পরে ফায়ার ব্রিগেডের কর্মীরা এসে আহতদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে পাঠায়।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার এসআই রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের সিনিয়র মেডিসিন কনসালটেন্ট ডা. তোজাম্মেল হকের তত্ত্বাবধানে আহতদের রাখা হয়েছে।

ডা. তোজাম্মেল হক টেলিফোনে জানান, শ্রমিকদের মধ্যে একজনের করোনার লক্ষণ আছে। এদের নমুনা নিয়ে রংপুরে পাঠানো হবে।

জানা গেছে, স্বাস্থ্য পরীক্ষায় এ জেলার করোনায় আক্রান্ত  হয়েছে ৩ জন। এ ঘটনার পর ঠাকুরগাঁও শনিবার রাত ৯টায় লকডাউন ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস