‘ভদ্র ভাষায় বুঝিয়ে বলার দিন শেষ, এখন শক্ত হতে হবে’
jugantor
‘ভদ্র ভাষায় বুঝিয়ে বলার দিন শেষ, এখন শক্ত হতে হবে’

  কুষ্টিয়া প্রতিনিধি  

১৫ এপ্রিল ২০২০, ২৩:২৩:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

মাহবুবউল আলম হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্দেশ্যে বলেছেন, নম্র-ভদ্র ভাষায় বুঝিয়ে বলার দিন শেষ। এখন একটু শক্ত হতে হবে। শক্ত অবস্থান নিলে মানুষ ঘরে থাকবে। এ ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে শক্ত ভূমিকা রেখে কঠোর অবস্থানে থাকতে হবে।

বুধবার বিকেলে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির জরুরি সভায় এসব কথা জানান তিনি।

হানিফ বলেন, ত্রাণের চাল চুরির দায়ে দোষী ব্যক্তিরা ভবিষ্যতে নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেন না। যারা একবার অভিযুক্ত হয়েছেন বা অপরাধী হিসেবে শাস্তি পেয়েছেন। তারা যাতে ভবিষ্যতে নির্বাচনে প্রার্থী হতে না পারেন, সে ব্যাপারে সংসদে আইন করার চেষ্টা করা হবে।

তিনি বলেন, অসহায় মানুষের ত্রাণের এক ছটাক চাল নিয়েও কোনো অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না। যদি কারও বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠে এবং তদন্তে প্রমাণিত হয়, তাহলে তাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়া হবে। আর চাল চুরিতে দলের কেউর যদি জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়, তাকে তাৎক্ষণিকভাবে দল থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে।

এসময় কুষ্টিয়ার দৌলতপুর আসনের সাংসদ আ ক ম সরওয়ার জাহান, পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত, সেনাবাহিনীর প্রতিনিধি লেফটেন্যান্ট কর্নেল আসাদুজ্জামান তাপস, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম, সিভিল সার্জন এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

‘ভদ্র ভাষায় বুঝিয়ে বলার দিন শেষ, এখন শক্ত হতে হবে’

 কুষ্টিয়া প্রতিনিধি 
১৫ এপ্রিল ২০২০, ১১:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মাহবুবউল আলম হানিফ
মাহবুবউল আলম হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্দেশ্যে বলেছেন, নম্র-ভদ্র ভাষায় বুঝিয়ে বলার দিন শেষ। এখন একটু শক্ত হতে হবে। শক্ত অবস্থান নিলে মানুষ ঘরে থাকবে। এ ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে শক্ত ভূমিকা রেখে কঠোর অবস্থানে থাকতে হবে।

বুধবার বিকেলে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির জরুরি সভায় এসব কথা জানান তিনি।

হানিফ বলেন, ত্রাণের চাল চুরির দায়ে দোষী ব্যক্তিরা ভবিষ্যতে নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেন না। যারা একবার অভিযুক্ত হয়েছেন বা অপরাধী হিসেবে শাস্তি পেয়েছেন। তারা যাতে ভবিষ্যতে নির্বাচনে প্রার্থী হতে না পারেন, সে ব্যাপারে সংসদে আইন করার চেষ্টা করা হবে।

তিনি বলেন, অসহায় মানুষের ত্রাণের এক ছটাক চাল নিয়েও কোনো অনিয়ম বরদাস্ত করা হবে না। যদি কারও বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠে এবং তদন্তে প্রমাণিত হয়, তাহলে তাকে  ভ্রাম্যমাণ আদালতে সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়া হবে। আর চাল চুরিতে দলের কেউর যদি জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়, তাকে তাৎক্ষণিকভাবে দল থেকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে।

এসময় কুষ্টিয়ার দৌলতপুর আসনের সাংসদ আ ক ম সরওয়ার জাহান, পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত, সেনাবাহিনীর প্রতিনিধি লেফটেন্যান্ট কর্নেল আসাদুজ্জামান তাপস, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম, সিভিল সার্জন এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস