শ্রমিকদের ইট পাটকেলে আহত এএসপি-ওসি
jugantor
শ্রমিকদের ইট পাটকেলে আহত এএসপি-ওসি

  ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২৭ এপ্রিল ২০২০, ১৭:৩৭:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা মহামারীতে সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে গিয়ে আহত হয়েছেন ময়মনসিংহের ত্রিশাল সার্কেল এএসপি ও ত্রিশাল থানার ওসি।

সোমবার সকালে এএসপি স্বাগতা ভট্রাচার্য্য মৌ ও ওসি আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে ত্রিশাল থানা পুলিশ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অন্য জেলার যাত্রীবাহী যান চলাচলে বাধা দেয়।

এ সময় বৈলর বাজারে অটোরিকশা, পিকআপ ও ভ্যানচালক শ্রমিক এবং ঢাকাগামী গার্মেন্টস কর্মীরা জড়ো হয়ে বৈলর মোড়ে ব্যরিকেড দেয়। পুলিশ তাদের মাস্ক ব্যবহার করে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বাড়ি ফিরে যাওয়ার কথা বলে। এতে বিক্ষুদ্ধ কর্মী ও শ্রমিকরা পুলিশের ওপর ই্ট পাটকেল নিক্ষেপ করে। তাতে এএসপি ও ওসি আহত হন।

আহত এএসপি স্বাগতা ভট্রাচার্য্যকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর ওসি আজিজুর রহমানকে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

আহত ত্রিশাল থানার ওসি জানান, এএসপি সার্কেল স্যারের নেতৃত্বে আমরা সকাল থেকেই ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের কাজির শিমলায় টহল দিচ্ছিলাম। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে অন্য জেলা-উপজেলা হতে যাতে যানবাহনে অতিরিক্ত যাত্রী চলাচল না করতে পারে, সেজন্য আমাদের চেষ্টা অব্যাহত ছিল। কিন্তু সম্মুখ বৈলর সিএনজি অটো রিকশা শ্রমিকরা ও ঢাকাগামী গার্মেন্টস কর্মীরা মহাসড়ক ব্যারিকেড দেয়। আমরা সরকারের নির্দেশনা মেনে বাড়িতে চলে যাওয়ার কথা বললে তারা ইট পাটকেল ছুড়ে আমাদের আহত করে।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক অটো শ্রমিক জানান, মহাসড়কে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে ট্রাক চলাচল করছে। আমরা যাত্রী নিয়ে গেলে অপরাধ কোথায়? আমরা কিভাবে সংসার চালাবো?

শ্রমিকদের ইট পাটকেলে আহত এএসপি-ওসি

 ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২৭ এপ্রিল ২০২০, ০৫:৩৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা মহামারীতে সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে গিয়ে আহত হয়েছেন ময়মনসিংহের ত্রিশাল সার্কেল এএসপি ও ত্রিশাল থানার ওসি।

সোমবার সকালে এএসপি স্বাগতা ভট্রাচার্য্য মৌ ও ওসি আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে ত্রিশাল থানা পুলিশ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অন্য জেলার যাত্রীবাহী যান চলাচলে বাধা দেয়।

এ সময় বৈলর বাজারে অটোরিকশা, পিকআপ ও ভ্যানচালক শ্রমিক এবং ঢাকাগামী গার্মেন্টস কর্মীরা জড়ো হয়ে বৈলর মোড়ে ব্যরিকেড দেয়। পুলিশ তাদের মাস্ক ব্যবহার করে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বাড়ি ফিরে যাওয়ার কথা বলে। এতে বিক্ষুদ্ধ কর্মী ও শ্রমিকরা পুলিশের ওপর ই্ট পাটকেল নিক্ষেপ করে। তাতে এএসপি ও  ওসি আহত হন।

আহত এএসপি স্বাগতা ভট্রাচার্য্যকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর ওসি আজিজুর রহমানকে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

আহত ত্রিশাল থানার ওসি জানান, এএসপি সার্কেল স্যারের নেতৃত্বে আমরা সকাল থেকেই ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের কাজির শিমলায় টহল দিচ্ছিলাম। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে অন্য জেলা-উপজেলা হতে যাতে যানবাহনে অতিরিক্ত যাত্রী চলাচল না করতে পারে, সেজন্য আমাদের চেষ্টা অব্যাহত ছিল। কিন্তু সম্মুখ বৈলর সিএনজি অটো রিকশা শ্রমিকরা ও ঢাকাগামী গার্মেন্টস কর্মীরা মহাসড়ক ব্যারিকেড দেয়। আমরা সরকারের নির্দেশনা মেনে বাড়িতে চলে যাওয়ার কথা বললে তারা ইট পাটকেল ছুড়ে আমাদের আহত করে।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক অটো শ্রমিক জানান, মহাসড়কে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে ট্রাক চলাচল করছে। আমরা যাত্রী নিয়ে গেলে অপরাধ কোথায়? আমরা কিভাবে সংসার চালাবো?

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন