আশুগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু
jugantor
আশুগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু

  ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি  

২৮ এপ্রিল ২০২০, ১২:০৭:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

আশুগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার পর তার বাড়ির আশপাশের সব বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

মৃত যুবকের নাম আল আমিন (২০)। তিনি উপজেলার লালপুর ইউনিয়নের চরলালপুর গ্রামের বুট্টু মিয়ার ছেলে। তিনি পেশায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাচালক ছিলেন।

আল আমিনের চাচা মো. আলকাস মিয়া জানান, আল আমিন বেশ কিছু দিন ধরে গলায় টনসিল সমস্যায় ভুগছিলেন। এ সমস্যা নিয়ে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তার জ্বর ও কাশি দেখা দেয়।

সোমবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়।

তিনি আরও জানান, মৃতের জানাজা শেষে রাতেই লালপুর পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. শওকত হোসেন জানান, জ্বর ও গলাব্যথা নিয়ে রোববার বিকালে ভর্তি হন আল আমিন।

তবে সোমবার রাতে গলাব্যথা ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন তিনি।

হাসপাতালে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। নমুনার ফল পেলে, তার করোনা ছিল কিনা জানা যাবে?

আশুগঞ্জ থানার ওসি মো. জাবেদ মাহমুদ জানান, হাসপাতাল থেকে আল আমিনের মৃত্যুর বিষয়টি জানানো হলে পুলিশের উপস্থিতিতে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

ইতিমধ্যে তার বাড়ির আশপাশের সব বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এ ছাড়া পরিবারের সদস্যদের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

মৃত ব্যক্তির রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তার পরিবারের সদস্যদের বাড়ি থেকে বের না হতে বলা হয়েছে।

আশুগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু

 ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি 
২৮ এপ্রিল ২০২০, ১২:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আশুগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে যুবকের মৃত্যু
ফাইল ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।  

সোমবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনার পর তার বাড়ির আশপাশের সব বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। 

মৃত যুবকের নাম আল আমিন (২০)। তিনি উপজেলার লালপুর ইউনিয়নের চরলালপুর গ্রামের বুট্টু মিয়ার ছেলে। তিনি পেশায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাচালক ছিলেন। 

আল আমিনের চাচা মো. আলকাস মিয়া জানান, আল আমিন বেশ কিছু দিন ধরে গলায় টনসিল সমস্যায় ভুগছিলেন। এ সমস্যা নিয়ে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তার জ্বর ও কাশি দেখা দেয়। 

সোমবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন  তার মৃত্যু হয়। 

তিনি আরও জানান, মৃতের জানাজা শেষে রাতেই লালপুর পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. শওকত হোসেন জানান, জ্বর ও গলাব্যথা নিয়ে রোববার বিকালে ভর্তি হন আল আমিন। 

তবে সোমবার রাতে গলাব্যথা ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন তিনি। 

হাসপাতালে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। নমুনার ফল পেলে, তার করোনা ছিল কিনা জানা যাবে?

আশুগঞ্জ থানার ওসি মো. জাবেদ মাহমুদ জানান, হাসপাতাল থেকে আল আমিনের মৃত্যুর বিষয়টি জানানো হলে পুলিশের উপস্থিতিতে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে। 

ইতিমধ্যে তার বাড়ির আশপাশের সব বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এ ছাড়া পরিবারের সদস্যদের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।  

মৃত ব্যক্তির রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তার পরিবারের সদস্যদের বাড়ি থেকে বের না হতে বলা হয়েছে।     

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১