পটুয়াখালী ডিসির বাসায় অবস্থান করা জেলেদের সহায়তা দিলেন এসপি
jugantor
পটুয়াখালী ডিসির বাসায় অবস্থান করা জেলেদের সহায়তা দিলেন এসপি

  পটুয়াখালী ও দক্ষিণ প্রতিনিধি  

১০ মে ২০২০, ২২:৩০:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা পরিস্থিতিতে ত্রাণ চাইতে গিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের হাতে লাঞ্ছিত হওয়া সেই দুস্থ জেলেদের মাঝে মানবিক সহায়তা দিলেন পটুয়াখালী পুলিশ সুপার।

রোববার সকালে দুর্গম চরাঞ্চল থেকে আসা অন্তত শতাধিক দুস্থ জেলের মাঝে চাল, ডাল, আলু, তেল, পেঁয়াজ এবং ইফতারসামগ্রী বিতরণ করেন এসপি মোহাম্মদ মইনুল হাসান। এ ছাড়াও রাঙ্গাবালী থেকে পটুয়াখালী যাওয়া-আসার যাবতীয় খরচ প্রদান করেন এসপি।

এর আগে ৭ মে নিজস্ব এলাকার চেয়ারম্যান কর্তৃক লাঞ্ছিত হয়ে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের বাসায় সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছিলেন এই জেলেরা। কিন্তু ওই সময়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো মানবিক সহায়তা দেয়া হয়নি।

রাঙ্গাবালী থেকে ত্রাণ সহায়তা নিতে আসা জেলে আবু জাফর গাজী, ফোরকান হাওলাদার, শুক্কুর মৃধা, তসলিম মুন্সি মোশারেফ ফরাজি গাজী জানান-জেলে তালিকায় নাম থাকা সত্ত্বেও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সাইদুজ্জামান খান মামুন অর্থের বিনিময় অন্য পেশার লোকজনকে ভিজিএফ বিতরণ করেন। চলমান করোনা পরিস্থিতিতে অভাব দেখা দিলে রাঙ্গাবালী সদর ইউনিয়নের জেলেরা চেয়ারম্যানের কাছে ত্রাণ সহায়তা চাইতে গেলে চেয়ারম্যান মানবিক সহায়তা দেয়ার বদলে জেলেদের মারধর করেন।

এ ঘটনায় বিচারের দাবি এবং সহায়তা পাওয়ার আশায় গত ৭ মে ট্রলারযোগে শতাধিক জেলে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে হাজির হয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। এ সময় জেলা প্রশাসককে লিখিত অভিযোগ দেন জেলেরা।

পটুয়াখালী ডিসির বাসায় অবস্থান করা জেলেদের সহায়তা দিলেন এসপি

 পটুয়াখালী ও দক্ষিণ প্রতিনিধি 
১০ মে ২০২০, ১০:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা পরিস্থিতিতে ত্রাণ চাইতে গিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের হাতে লাঞ্ছিত হওয়া সেই দুস্থ জেলেদের মাঝে মানবিক সহায়তা দিলেন পটুয়াখালী পুলিশ সুপার।

রোববার সকালে দুর্গম চরাঞ্চল থেকে আসা অন্তত শতাধিক দুস্থ জেলের মাঝে চাল, ডাল, আলু, তেল, পেঁয়াজ এবং ইফতারসামগ্রী বিতরণ করেন এসপি মোহাম্মদ মইনুল হাসান। এ ছাড়াও রাঙ্গাবালী থেকে পটুয়াখালী যাওয়া-আসার যাবতীয় খরচ প্রদান করেন এসপি। 

এর আগে ৭ মে নিজস্ব এলাকার চেয়ারম্যান কর্তৃক লাঞ্ছিত হয়ে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের বাসায় সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছিলেন এই জেলেরা। কিন্তু ওই সময়ে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো মানবিক সহায়তা দেয়া হয়নি।

রাঙ্গাবালী থেকে ত্রাণ সহায়তা নিতে আসা জেলে আবু জাফর গাজী, ফোরকান হাওলাদার, শুক্কুর মৃধা, তসলিম মুন্সি মোশারেফ ফরাজি গাজী জানান-জেলে তালিকায় নাম থাকা সত্ত্বেও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সাইদুজ্জামান খান মামুন অর্থের বিনিময় অন্য পেশার লোকজনকে ভিজিএফ বিতরণ করেন। চলমান করোনা পরিস্থিতিতে অভাব দেখা দিলে রাঙ্গাবালী সদর ইউনিয়নের জেলেরা চেয়ারম্যানের কাছে ত্রাণ সহায়তা চাইতে গেলে চেয়ারম্যান মানবিক সহায়তা দেয়ার বদলে জেলেদের মারধর করেন।

এ ঘটনায় বিচারের দাবি এবং সহায়তা পাওয়ার আশায় গত ৭ মে ট্রলারযোগে শতাধিক জেলে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে হাজির হয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। এ সময় জেলা প্রশাসককে লিখিত অভিযোগ দেন জেলেরা।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস