দীর্ঘ হচ্ছে লাশের মিছিল, করোনায় মৃত্যু ছাড়াল ২ লাখ ৯২ হাজার

  যুগান্তর ডেস্ক ১৩ মে ২০২০, ১০:১৯:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে গত বছরের ডিসেম্বরে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ার পর চার মাস পেরোলেও নিয়ন্ত্রণের কোনো লক্ষণ নেই।
এখন পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৪৩ লাখ ৪২ হাজার, মারা গেছে দুই লাখ ৯২ হাজারেরও বেশি এবং সুস্থ হয়েছে ১৬ লাখ। খবর বিবিসি ও আলজাজিরার।
যদিও এর ভ্যাকসিন আবিষ্কারে ওঠেপড়ে লেগেছেন বিজ্ঞানীরা। শতাধিক গবেষক দল নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে এ ভাইরাসে গোটা বিশ্ব বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। ভাইরাস মোকাবেলায় দেশে দেশে চলছে লকডাউন, জরুরি অবস্থাসহ নানা পদক্ষেপ।
কয়েকটি দেশ এরই মধ্যে লকডাউন শিথিল করে বেকায়দায় আছে। সেখানে নতুন করে আবার আক্রমণ শুরু করেছে করোনা।
করোনার আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্যানুযায়ী, এখন পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৪৩ লাখ ৪২ হাজার ৩৪৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৮৫ হাজার ৩৩৫ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১৬ লাখ ২ হাজার ৯১ জন।
বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৯২ হাজার ৮৯৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৩২০ জনের মৃত্যু হয়েছে।
বর্তমানে বিশ্বে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২৪ লাখ ৪৭ হাজার ২৮৯ জন। তাদের মধ্যে ২৩ লাখ ৯৮ হাজার ৫৮৫ জন চিকিৎসাধীন, যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। আর ৪৬ হাজার ৩৪০ জনের অবস্থা গুরুতর, যাদের অধিকাংশই আইসিইউতে রয়েছে।
ভাইরাসটি চীন থেকে ছড়ালেও বর্তমানে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ১৪ লাখ ৮ হাজার ৬৩৬ জন, সুস্থ হয়েছে দুই লাখ ৯৬ হাজার ৭৪৬ এবং মারা গেছে ৮৩ হাজার ৪২৫ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ও আক্রান্ত যুক্তরাষ্ট্রে।
যেসব দেশে বেশি আক্রান্ত ও মারা গেছে সেগুলো হলো– স্পেনে আক্রান্ত দুই লাখ ৬৯ হাজার ৫২০, সুস্থ হয়েছে ১ লাখ ৮০ হাজার ৪৭০ এবং মারা গেছে ২৬ হাজার ৯২০ জন।
রাশিয়ায় আক্রান্ত দুই লাখ ৩২ হাজার ২৪৩, সুস্থ হয়েছে ৪৩ হাজার ৫১২ এবং মারা গেছে দুই হাজার ১১৬ জন।
ইংল্যান্ডে আক্রান্ত দুই লাখ ২৬ হাজার ৪৬৩, সেখানে কর্তৃপক্ষ সুস্থতার সংখ্যা প্রকাশ করেনি এবং মারা গেছে ৩২ হাজার ৬৯২ জন।
ইতালিতে আক্রান্ত দুই লাখ ২১ হাজার ২১৬, সুস্থ হয়েছে এক লাখ ৯ হাজার ৩৯ এবং মারা গেছে ৩০ হাজার ৯১১ জন।
ফ্রান্সে আক্রান্ত এক লাখ ৭৮ হাজার ২২৫, সুস্থ হয়েছে ৫৭ হাজার ৭৮৫ এবং মারা গেছে ২৬ হাজার ৯৯১ জন।
ব্রাজিলে আক্রান্ত এক লাখ ৭৭ হাজার ৬০২, সুস্থ হয়েছে ৭২ হাজার ৫৯৭ এবং মারা গেছে ১২ হাজার ৪০৪ জন।
জার্মানিতে আক্রান্ত এক লাখ ৭৩ হাজার ১৭১, সুস্থ হয়েছে এক লাখ ৪৭ হাজার ২০০ এবং মারা গেছে ৭ হাজার ৭৩৮ জন।
তুরস্কে আক্রান্ত এক লাখ ৪১ হাজার ৪৭৫, সুস্থ হয়েছে ৯৮ হাজার ৮৮৯ এবং মারা গেছে ৩ হাজার ৮৯৪ জন।
ইরানে আক্রান্ত এক লাখ ১০ হাজার ৭৬৭, সুস্থ হয়েছে ৮৮ হাজার ৩৫৭ এবং মারা গেছে ৬ হাজার ৭৩৩ জন।
এদিকে করোনার উৎপত্তিস্থল চীনে আক্রান্ত ৮২ হাজার ৯২৬, সুস্থ হয়েছে ৭৮ হাজার ১৮৯ এবং মারা গেছে ৪ হাজার ৬৩৩ জন।
পেরুতে আক্রান্ত ৭২ হাজার ৫৯, সুস্থ হয়েছে ২৩ হাজার ৩২৪ এবং মারা গেছে দুই হাজার ৫৭ জন।
কানাডাতে আক্রান্ত ৭১ হাজার ১৫৭, সুস্থ হয়েছে ৩৪ হাজার ৪২ এবং মারা গেছে ৫ হাজার ১৬৯ জন।
বেলজিয়ামে আক্রান্ত ৫৩ হাজার ৭৭৯, সুস্থ হয়েছে ১৩ হাজার ৭৩২ এবং মারা গেছে ৮ হাজার ৭৬১ জন।
নেদারল্যান্ডসে আক্রান্ত ৪২ হাজার ৯৮৪, সেখানে কর্তৃপক্ষ সুস্থতার সংখ্যা প্রকাশ করেনি এবং মারা গেছে ৫ হাজার ৫১০ জন।
মেক্সিকোতে আক্রান্ত ৩৮ হাজার ৩২৪, সুস্থ হয়েছে ২৫ হাজার ৯৩৫ এবং মারা গেছে ৩ হাজার ৯২৬ জন।
অন্যদিকে ইকুয়েডরে আক্রান্ত ৩০ হাজার ৪১৯, সুস্থ হয়েছে ৩ হাজার ৪৩৩ এবং মারা গেছে দুই হাজার ৩২৭ জন।
সুইজারল্যান্ডে আক্রান্ত ৩০ হাজার ৩৮০, সুস্থ হয়েছে ২৬ হাজার ৮০০ এবং মারা গেছে এক হাজার ৮৬৭ জন।
পর্তুগালে আক্রান্ত ২৭ হাজার ৯১৩, সুস্থ হয়েছে ৩ হাজার ১৩ এবং মারা গেছে এক হাজার ১৬৩ জন।
সুইডেনে আক্রান্ত ২৭ হাজার ২৭২, সুস্থ হয়েছে ৪ হাজার ৯৭১ এবং মারা গেছে ৩ হাজার ৩১৩ জন।
আয়ারল্যান্ডে আক্রান্ত ২৩ হাজার ২৪২, সুস্থ হয়েছে ১৭ হাজার ১১০ এবং মারা গেছে এক হাজার ৪৮৮ জন।
রোমানিয়ায় আক্রান্ত ১৫ হাজার ৭৭৮, সুস্থ হয়েছে ৭ হাজার ৬৮৫ এবং মারা গেছে এক হাজার দুজন।
ইন্দোনেশিয়ায় আক্রান্ত ১৪ হাজার ৭৪৯, সুস্থ হয়েছে ৩ হাজার ৬৩ এবং মারা গেছে ১ হাজার ৭ জন।
এ ছাড়া দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতে আক্রান্ত ৭৪ হাজার ২৯২, সুস্থ হয়েছে ২৪ হাজার ৪২০ এবং মারা গেছে দুই হাজার ৪১৫ জন।
পাকিস্তানে আক্রান্ত ৩২ হাজার ৬৭৪, সুস্থ হয়েছে ৮ হাজার ৫৫৫ এবং মারা গেছে ৭২৪ জন।
বাংলাদেশে আক্রান্ত ১৬ হাজার ৬৬০, সুস্থ হয়েছে ৩ হাজার ১৪৭ এবং মারা গেছে ২৫০ জন।
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত