দৌলতপুরে এবার ঢাকাফেরত পুলিশ দম্পতি করোনায় আক্রান্ত
jugantor
দৌলতপুরে এবার ঢাকাফেরত পুলিশ দম্পতি করোনায় আক্রান্ত

  দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি  

১৩ মে ২০২০, ১৪:২১:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

দৌলতপুরে এবার ঢাকাফেরত পুলিশ দম্পতি করোনায় আক্রান্ত
ফাইল ছবি

কুষ্টিয়ায় এবার ঢাকাফেরত এক পুলিশ দম্পতির করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ২২ জনে।

মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. এএইডএম আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। 

সিভিল সার্জন জানান, আক্রান্ত পুলিশ সদস্য রমজানের বাড়ি দৌলতপুর উপজেলার আদা-বাড়িয়া ইউনিয়নের মধুগড়ই গ্রামে। সোমবার ঢাকা থেকে তিনি স্ত্রী-সন্তানসহ কুষ্টিয়ায় গ্রামের বাড়িতে ফেরার পর স্বাস্থ্যকর্মীরা এই দম্পতি ও তার এক সন্তানের নমুনা সংগ্রহ করেন। 

একই সঙ্গে কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে ১২ এপ্রিল ৫০ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়। এদের মধ্যে এই পুলিশ দম্পতির করোনা পজিটিভ এসেছে। বাকি ৪৮টি নেগেটিভ। 

দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর আলী জানান, ঢাকা থেকে পুলিশ সদস্য রমজান আলী দম্পতির করোনা পজিটিভ বিষয়টি মঙ্গলবার রাতে জানা যায়। খবর পেয়ে ওই রাতেই দৌলতপুর থানা পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে তাদের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। আক্রান্ত ওই দম্পতি বর্তমানে বাড়িতেই অবস্থান করছেন। 

এর আগে গত ১০ এপ্রিল দৌলতপুর উপজেলার রেফায়েতপুর ইউনিয়নের কাঘাটি গ্রামের ঢাকাফেরত কাউসার ও সোনিয়া নামের আরও এক দম্পতির করোনা শনাক্ত হয়। 

এদিকে এ উপজেলায় একের পর এক ঢাকাফেরত দম্পতির করোনা আক্রান্তের ঘটনায় মানুষের মধ্যে চরম উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে।

এ নিয়ে কুষ্টিয়া জেলায় অদ্যাবধি ২২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হলো। এর মধ্যে সর্বাধিক দৌলতপুর উপজেলায় ৯ জন। এর মধ্যে আটজনই ঢাকাফেরত। এ ছাড়া ভেড়ামারায় দুই, মিরপুরে চার, কুষ্টিয়ায় এক, কুমারখালীতে পাঁচ এবং খোকসা উপজেলায় একজন করোনা আক্রান্ত রোগী রয়েছেন।  

এদিকে মঙ্গলবার মিরপুর উপজেলার দুই রোগী আইসোলেশনে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ আছেন। পর পর দুটি পরীক্ষায় কোভিড নেগেটিভ আসায় সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র পেয়েছেন তারা। এ নিয়ে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১১ জন।

দৌলতপুরে এবার ঢাকাফেরত পুলিশ দম্পতি করোনায় আক্রান্ত

 দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি 
১৩ মে ২০২০, ০২:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
দৌলতপুরে এবার ঢাকাফেরত পুলিশ দম্পতি করোনায় আক্রান্ত
ফাইল ছবি

কুষ্টিয়ায় এবার ঢাকাফেরত এক পুলিশ দম্পতির করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ২২ জনে।

মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. এএইডএম আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সিভিল সার্জন জানান, আক্রান্ত পুলিশ সদস্য রমজানের বাড়ি দৌলতপুর উপজেলার আদা-বাড়িয়া ইউনিয়নের মধুগড়ই গ্রামে। সোমবার ঢাকা থেকে তিনি স্ত্রী-সন্তানসহ কুষ্টিয়ায় গ্রামের বাড়িতে ফেরার পর স্বাস্থ্যকর্মীরা এই দম্পতি ও তার এক সন্তানের নমুনা সংগ্রহ করেন।

একই সঙ্গে কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে ১২ এপ্রিল ৫০ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়। এদের মধ্যে এই পুলিশ দম্পতির করোনা পজিটিভ এসেছে। বাকি ৪৮টি নেগেটিভ।

দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর আলী জানান, ঢাকা থেকে পুলিশ সদস্য রমজান আলী দম্পতির করোনা পজিটিভ বিষয়টি মঙ্গলবার রাতে জানা যায়। খবর পেয়ে ওই রাতেই দৌলতপুর থানা পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে তাদের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। আক্রান্ত ওই দম্পতি বর্তমানে বাড়িতেই অবস্থান করছেন।

এর আগে গত ১০ এপ্রিল দৌলতপুর উপজেলার রেফায়েতপুর ইউনিয়নের কাঘাটি গ্রামের ঢাকাফেরত কাউসার ও সোনিয়া নামের আরও এক দম্পতির করোনা শনাক্ত হয়।

এদিকে এ উপজেলায় একের পর এক ঢাকাফেরত দম্পতির করোনা আক্রান্তের ঘটনায় মানুষের মধ্যে চরম উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে।

এ নিয়ে কুষ্টিয়া জেলায় অদ্যাবধি ২২ জন করোনা রোগী শনাক্ত হলো। এর মধ্যে সর্বাধিক দৌলতপুর উপজেলায় ৯ জন। এর মধ্যে আটজনই ঢাকাফেরত। এ ছাড়া ভেড়ামারায় দুই, মিরপুরে চার, কুষ্টিয়ায় এক, কুমারখালীতে পাঁচ এবং খোকসা উপজেলায় একজন করোনা আক্রান্ত রোগী রয়েছেন।

এদিকে মঙ্গলবার মিরপুর উপজেলার দুই রোগী আইসোলেশনে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ আছেন। পর পর দুটি পরীক্ষায় কোভিড নেগেটিভ আসায় সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র পেয়েছেন তারা। এ নিয়ে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১১ জন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস