নেপালে হাসপাতাল থেকে করোনা রোগী পালাতে দেখলেই গুলির নির্দেশ
jugantor
নেপালে হাসপাতাল থেকে করোনা রোগী পালাতে দেখলেই গুলির নির্দেশ

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৬ মে ২০২০, ০৮:৩৭:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

হাসপাতাল বা আইসোলেশন সেন্টার থেকে করোনা রোগী পালানোর চেষ্টা করলেই তাকে গুলি করে হত্যার অনুমতি দিয়েছে নেপাল।

শুক্রবার দেশটির ইংরেজি দৈনিক দ্য হিমালয়ানের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সেখানে বলা হয়েছে, নেপালের পারসা জেলা ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট সেন্টার আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে কোনো করোনা পজিটিভ রোগী পালানোর চেষ্টা করলে তাকে গুলি করে হত্যা করতে নিরাপত্তাবাহিনীকে অনুমতি দেয়া গেল।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পারসা জেলার প্রধান কর্মকর্তা বিষ্ণু কুমার কারকি নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মকর্তাদের এ নির্দেশনা দেন।

এ জন্য আইসোলেশন ওয়ার্ডে আরও নিরাপত্তা রক্ষী মোতায়েনের নির্দেশ দেন তিনি।

সম্প্রতি জেলার নারায়ণি নামক হাসপাতাল থেকে দুই করোনা রোগী পালিয়ে যাওয়ার ঘটনার জেরে বিষ্ণু কুমার কারকি এমন নির্দেশনা জারি করেছেন বলে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম দ্য হিমালয়ান।

এদিকে পারসা জেলা প্রধানের এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে দেশটির সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে। বিষয়টিকে মৌলিক মানবাধিকারের লঙ্ঘন বলে মত দিচ্ছেন কেউ কেউ।

নিরাপত্তা বাহিনীকে এমন অনুমতি দেয়াকে বিপজ্জনক উল্লেখ করেছে দেশটির মানবাধিকার কর্মীরা।

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তালিকা নেপালের অবস্থান একেবারের নিচের সারিতে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মাত্র ২৬৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু সংখ্যা শুন্যের কোঠায়। ইতিমধ্যে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়েছেন ৩৬ জন। ২৩১ জন চিকিৎসা নিচ্ছেন।

নেপালে হাসপাতাল থেকে করোনা রোগী পালাতে দেখলেই গুলির নির্দেশ

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৬ মে ২০২০, ০৮:৩৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হাসপাতাল বা আইসোলেশন সেন্টার থেকে করোনা রোগী পালানোর চেষ্টা করলেই তাকে গুলি করে হত্যার অনুমতি দিয়েছে নেপাল।

শুক্রবার দেশটির ইংরেজি দৈনিক দ্য হিমালয়ানের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সেখানে বলা হয়েছে, নেপালের পারসা জেলা ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট সেন্টার আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে কোনো করোনা পজিটিভ রোগী পালানোর চেষ্টা করলে তাকে গুলি করে হত্যা করতে নিরাপত্তাবাহিনীকে অনুমতি দেয়া গেল।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পারসা জেলার প্রধান কর্মকর্তা বিষ্ণু কুমার কারকি নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মকর্তাদের এ নির্দেশনা দেন।

এ জন্য আইসোলেশন ওয়ার্ডে আরও নিরাপত্তা রক্ষী মোতায়েনের নির্দেশ দেন তিনি।

সম্প্রতি জেলার নারায়ণি নামক হাসপাতাল থেকে দুই করোনা রোগী পালিয়ে যাওয়ার ঘটনার জেরে বিষ্ণু কুমার কারকি এমন নির্দেশনা জারি করেছেন বলে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম দ্য হিমালয়ান।

এদিকে পারসা জেলা প্রধানের এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে দেশটির সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে। বিষয়টিকে মৌলিক মানবাধিকারের লঙ্ঘন বলে মত দিচ্ছেন কেউ কেউ।

নিরাপত্তা বাহিনীকে এমন অনুমতি দেয়াকে বিপজ্জনক উল্লেখ করেছে দেশটির মানবাধিকার কর্মীরা।

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তালিকা নেপালের অবস্থান একেবারের নিচের সারিতে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত মাত্র ২৬৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু সংখ্যা শুন্যের কোঠায়। ইতিমধ্যে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়েছেন ৩৬ জন। ২৩১ জন চিকিৎসা নিচ্ছেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস