রামপালে ৭ যুবককে ঘিরে এলাকাজুড়ে করোনা আতঙ্ক

  রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি ২২ মে ২০২০, ১৫:২৪:৩৮ | অনলাইন সংস্করণ

বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার হুড়কা ইউনিয়নের সাত যুবককে ঘিরে করোনা আতঙ্কে ভুগছেন এলাকাবাসী।

এই সাত যুবক গোপালগঞ্জ থেকে ধান কেটে গত সোমবার বাড়িতে ফিরে আসেন। এর পর তাদের শরীরে করোনা উপসর্গ দেখা দেয়।

খবরটি গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে তাদের করোনা রোগী সন্দেহে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন হুড়কা ইউনিয়নের বাসিন্দারা।

ওই সাত যুবকরা হলেন– হুড়কা ইউনিয়নের জগারহুলা গ্রামের মঙ্গল মণ্ডলের ছেলে দেবদূত মণ্ডল, সত্যজিৎ বিশ্বাসের ছেলে নিত্যবিশ্বাস, পরিমল মজুমদারের ছেলে দীপক মজুমদার, হুড়কা মধ্যপাড়া গ্রামের গুরুদাস ঘরামীর ছেলে উত্তম ঘরামী, হুড়কা, মধ্যপাড়ার কর্তা কির্ত্তুনিয়ার ছেলে বিশ্বজিৎ কির্ত্তুনিয়া, ঝলমলিয়া দীঘিসংলগ্ন গোপাল হালদারের ছেলে গোবিন্দ হালদার ও হুড়কা তেলিবাড়ি অনিল মণ্ডলের ছেলে তপন মণ্ডল।

জানা গেছে, সম্প্রতি এই সাত যুবক ফকিরহাট নামক কেনাবেচার একটি হাট থেকে গোপালগঞ্জে ধান কাটতে চলে যায়।

বেশ কিছু দিন ধরে কাজ শেষ করে গোপালগঞ্জ থেকে হুট করে বাড়িতে ফিরে আসে। প্রাথমিকভাবে পরিবারের পক্ষ থেকে এদের আলাদা একটি বাড়িতে থাকার বন্দোবস্ত করা হয়েছে।

তবে গ্রামবাসীর অভিযোগ, সামাজিক দূরত্বের নিয়ম না মেনে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন এসব করোনা সন্দেহভাজন যুবক। পরিবারের সঙ্গেও প্রতিনিয়ত দেখা করছেন। রাতের অন্ধকারে অনেকে আবার বাড়িতে থাকছেন এবং ভোর হতেই ফিরে যাচ্ছেন নির্দিষ্ট থাকার জায়গায়। তাদের পরিবারের সদস্যরাও হাটবাজার ও প্রতিবেশীদের বাড়ি যাচ্ছেন।

এ থেকে যে কোনো মুহুর্তে করোনার সংক্রমণ ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

গ্রামবাসী জানান, কিছু দিন আগে হুড়কা ইউনিয়নের চাড়াখালী গ্রামের লোকমান গাজীর ছেলে আব্দুল্লাহ গাজী গোপালগঞ্জে ধান কাটতে গিয়েছিলেন। বাড়িতে ফেরার পরই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। বর্তমানে তার শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দিয়েছে। যে কারণে এই সাত যুবকের বেলায়ও একই রকম আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তুষার কুমার পাল জানান, করোনা মোকাবেলায় সবারই সচেতন হতে হবে। কারও শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দিলে তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করতে পাঠানো হবে। এ ছাড়া বাইরে থেকে ফিরে আসা ব্যক্তিরা প্রকাশ্য ঘোরাফেরা করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত