চিকিৎসকদের অবহেলায় কোরিয়ায় প্রবাসীর মৃত্যু

  মোহাম্মদ হানিফ, দক্ষিণ কোরিয়া থেকে ২৩ মে ২০২০, ১৯:২৬:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

ছবি: যুগান্তর

দক্ষিণ কোরিয়াতে শ্বাসকষ্ট নিয়ে অকালে মারা গেছেন সিয়াম (২৩) নামের এক প্রবাসী বাংলাদেশি। শুক্রবার রাত ১০টায় দিকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

তার লাশ এখন স্থানীয় হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। সিয়ামের গ্রামের বাড়ি খুলনায়।তার বাবার নাম ইউছুফ আজাদ। এক বোন এক ভাইয়ের মধ্যে সিয়াম বড়।

দক্ষিণ কোরিয়ার হোসাংসি ফারান বেক্তোরি এলাকায় একটি ফ্যাক্টরিতে কাজ করতেন তিনি।

পরিবারের ভাগ্য বদলের জন্য এক বুক স্বপ্ন নিয়ে কোরিয়াতে আসে সিয়াম। স্বপ্ন বাস্তবায়নের আগেই চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

তবে তার এই মৃত্যুতে চিকিৎসকদের অবহেলা আছে বলে মনে করছেন সিয়ামের সহকর্মীরা।

সহকর্মী রিয়াজ উদ্দিন জানান, তার শরীরে কোনো করোনাভাইরাস ছিলো না। হাসপাতালের অবহেলার কারণেই তার এই মৃত্যু।

শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে শ্বাসকষ্ট নিয়ে ফারানের জুংআং হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাকে চিকিৎসা বা ভর্তি না করিয়ে অল্প কিছু ওষুধ দিয়ে বাসায় ফেরত পাঠায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

সিয়াম করোনা আক্রান্ত বলে ধারণা করেন চিকিৎসকেরা। তার পরীক্ষার প্রতিবেদন না আসা পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি করানো হবে না বলেও জানিয়ে দেয়া হয়।

কিন্তু পরের দিন দুপুর ছাড়া করোনার রিপোর্ট পাওয়া সম্ভব ছিল না। তারপর আবার রাতে শ্বাসকষ্ট নিয়ে বমি করেন তিনি। বমির সঙ্গে রক্ত গেলে ১১৯ নম্বরে কল দিয়ে অ্যাম্বুলেন্স ডেকে হাসপাতালে যাওয়ার পথে হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যুবরণ করে সিয়াম। পরে সিয়ামের করোনা নেগেটিভ আসে।

সিয়ামের মৃত্যুতে চিকিৎসকদের অবহেলা রয়েছে কি না? তা তদারকি করছে বাংলাদেশ দূতাবাস। দূতাবাস জানায়, হাসপাতাল থেকে আমরা একটি ফাইনাল রিপোর্টের অপেক্ষা করছি। তারপর আমরা বিষয়টি তদন্ত করবো।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত