বড়লেখায় করোনা আক্রান্তদের জন্য প্রেসক্লাবের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ
jugantor
বড়লেখায় করোনা আক্রান্তদের জন্য প্রেসক্লাবের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

  বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

২৩ মে ২০২০, ২৩:৪৯:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

বড়লেখায় করোনা আক্রান্তদের জন্য ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগ নিয়েছে বড়লেখা প্রেসক্লাব। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মনোবল বাড়াতে তাদের বাড়িতে পাঠানো হচ্ছে ভিটামিন ‘সি’ সমৃদ্ধ ফলমূল।

শুক্রবার বিকালে ও শনিবার আক্রান্ত দুইজনের বাড়িতে ফলমূল পাঠানো হয়েছে।

এসময় প্রেসক্লাব সদস্য সাংবাদিক তপন কুমার দাস, বড়লেখা ফ্রেন্ডস ক্লাব ইউকের প্রতিনিধি শিক্ষক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, স্থানীয় শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন, জাকির হোসেন, তরুণ সমাজসেবক জসিম উদ্দিন, নুরুল ইসলাম, মাছুম উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ধারাবাহিকভাবে সব করোনা রোগীর বাড়িতে উপহার স্বরূপ ফলমূল পাঠাবে বড়লেখা প্রেসক্লাব।

জানা গেছে, গত ১৭ মে হাসপাতালের এক ওয়ার্ড বয়ের করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়। পরে ৩ চিকিৎসকের করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। যদিও তাদের কারোই করোনার কোনো উপসর্গ ছিল না। উপজেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭ জন। এর মধ্যে প্রথম আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থ হয়েছেন। বাকি ২ রোগী বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন।

প্রেসক্লাব সদস্য সাংবাদিক তপন কুমার দাস জানান, অনেকেই আক্রান্ত ব্যক্তি ও পরিবারের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন, যা মোটেও ঠিক নয়। করোনা রোগীকে অবহেলা না করে তাদের মনোবল ভালো রাখতে সবার উচিত তাদের পাশে দাঁড়ানো।

প্রেসক্লাবের সম্পাদক অ্যাডভোকেট গোপাল দত্ত জানান, আক্রান্ত ব্যক্তিদের মনোবল বাড়াতে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। তাদের ফলমূল দিচ্ছি।

ফ্রেন্ডস ক্লাব ইউকের প্রতিনিধি শিক্ষক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন জানান, করোনা আক্রান্তদের বাড়িতে ফলমূল পাঠিয়ে বড়লেখা প্রেসক্লাব দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এটি মহৎ উদ্যোগ। সবার উচিৎ করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিকে অবহেলা না করে বড়লেখা প্রেসক্লাবের মতো তাদের পাশে এসে দাঁড়ানো।

বড়লেখায় করোনা আক্রান্তদের জন্য প্রেসক্লাবের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

 বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
২৩ মে ২০২০, ১১:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বড়লেখায় করোনা আক্রান্তদের জন্য ব্যতিক্রমী এক উদ্যোগ নিয়েছে বড়লেখা প্রেসক্লাব। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মনোবল বাড়াতে তাদের বাড়িতে পাঠানো হচ্ছে ভিটামিন ‘সি’ সমৃদ্ধ ফলমূল।

শুক্রবার বিকালে ও শনিবার আক্রান্ত দুইজনের বাড়িতে ফলমূল পাঠানো হয়েছে।

এসময় প্রেসক্লাব সদস্য সাংবাদিক তপন কুমার দাস, বড়লেখা ফ্রেন্ডস ক্লাব ইউকের প্রতিনিধি শিক্ষক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, স্থানীয় শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন, জাকির হোসেন, তরুণ সমাজসেবক জসিম উদ্দিন, নুরুল ইসলাম, মাছুম উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ধারাবাহিকভাবে সব করোনা রোগীর বাড়িতে উপহার স্বরূপ ফলমূল পাঠাবে বড়লেখা প্রেসক্লাব।

জানা গেছে, গত ১৭ মে হাসপাতালের এক ওয়ার্ড বয়ের করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়। পরে ৩ চিকিৎসকের করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। যদিও তাদের কারোই করোনার কোনো উপসর্গ ছিল না। উপজেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭ জন। এর মধ্যে প্রথম আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থ হয়েছেন। বাকি ২ রোগী বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন।

প্রেসক্লাব সদস্য সাংবাদিক তপন কুমার দাস জানান, অনেকেই আক্রান্ত ব্যক্তি ও পরিবারের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন, যা মোটেও ঠিক নয়। করোনা রোগীকে অবহেলা না করে তাদের মনোবল ভালো রাখতে সবার উচিত তাদের পাশে দাঁড়ানো।

প্রেসক্লাবের সম্পাদক অ্যাডভোকেট গোপাল দত্ত জানান, আক্রান্ত ব্যক্তিদের মনোবল বাড়াতে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। তাদের ফলমূল দিচ্ছি।

ফ্রেন্ডস ক্লাব ইউকের প্রতিনিধি শিক্ষক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন জানান, করোনা আক্রান্তদের বাড়িতে ফলমূল পাঠিয়ে বড়লেখা প্রেসক্লাব দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। এটি মহৎ উদ্যোগ। সবার উচিৎ করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিকে অবহেলা না করে বড়লেখা প্রেসক্লাবের মতো তাদের পাশে এসে দাঁড়ানো।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস