করোনায় আক্রান্ত কাউন্সিলর খোরশেদ ও তার স্ত্রীর পাশে শামীম ওসমান

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ০১ জুন ২০২০, ১৬:৩২:৪৭ | অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত ব্যাপক আলোচিত সেই কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ ও তার স্ত্রী আফরোজা খন্দকারের পাশে দাঁড়িয়েছেন স্থানীয় এমপি শামীম ওসমান।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের লাশ দাফন ও সৎকার করে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে দেশে-বিদেশে ‘করোনা হিরো’ উপাধি পাওয়া কাউন্সিলর খোরশেদ সংকটাপন্ন স্ত্রীর জন্য যখন আইসিইউর ব্যবস্থা করতে শনিবার রাত থেকে রীতিমত ঘাম ঝড়াচ্ছিলেন, অবশেষে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেছেন ওই আওয়ামী লীগ নেতা।

স্বজনদের ফেলে যাওয়া ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে এ ধরণের ৬১ জনের লাশ দাফন ও সৎকার করে দেশে ও বিদেশে ব্যাপক প্রশংসিত কাউন্সিলন খোরশেদ অবশেষে নিজেও সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

তাকে নিয়ে সোমবার ভারতের প্রভাবশালী বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার গুরুত্বসহকারে একটি প্রতিবেদন ছেপেছে।

বর্তমানে খোরশেদের স্ত্রীকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। রোববার দুপুরে কাঁচপুরের সাজেদা হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই দম্পতিকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

জানা গেছে, জেলা যুবদলের আহবায়ক ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের স্ত্রী আফরোজা খন্দকার লুনা প্রথমে করোনায় আক্রান্ত হন।

স্ত্রীর পর খোরশেদও করোনায় আক্রান্ত হন। শনিবার রাত থেকে খোরশেদের স্ত্রীর অবস্থার অবনতি হলে কাঁচপুরের সাজেদা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। স্ত্রী লুনার জন্য আইসিইউ সাপোর্ট পেতে শনিবার রাত থেকে রোববার দুপুর পর্যন্ত চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন খোরশেদ।

সাজেদা হাসপাতালে থাকা অবস্থায় তাদের খোঁজখবর রেখেছেন এমপি শামীম ওসমান। পরে লুনার অবস্থার অবনতি হলে শামীম ওসমানের সহায়তায় তাদের স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে কাউন্সিলর খোরশেদ বলেন, আমাকে এবং আমার স্ত্রীকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।এখানে আমার স্ত্রীকে আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। এখানে ভর্তির জন্য এমপি শামীম ওসমানের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা জানাই।

এমপির সহযোগিতায় স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি আমরা। তাই বলতে চাই, করোনার সময়ে রাজনীতি নয়। এখন মানবতা প্রদর্শনের সময়। এমপি শামীম ওসমান আমার স্ত্রীর অবস্থা সঙ্কটাপন্ন শুনে রোববার দুপুরে যোগাযোগ করে স্কয়ার হাসপাতালে আমাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন।

ফোন করে এমপি বলেছেন খোরশেদ তুমি দ্রুত স্ত্রীকে নিয়ে স্কয়ার হাসপাতালে চলে যাও। এখন রাজনীতির সময় নয়; একে-অপরের পাশে দাঁড়ানোর সময়। বিপদে তুমি যেভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছো, আমিও তোমার পাশে দাঁড়িয়েছি।

তোমার এলাকার জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমারও দায়িত্ব তোমার পাশে দাঁড়ানো। কাউন্সিলর খোরশেদ বলেন, আমি বিএনপির রাজনীতি করি।

শামীম ওসমান আওয়ামী লীগের এমপি। এখানে কে কোন দলে করে তা দেখার বিষয় নয়। কার প্রতি কে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিল, কে কার বিপদে পাশে দাঁড়াল; এখন তা দেখার বিষয়।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান বলেন, আমি সবার আগে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি আল্লাহর। পরে বলব; প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ ছিল কে কোন দল করে তা দেখার সময় এখন নয়। করোনায় মানবতার সেবা পৌঁছে দিতে হবে সবার ঘরে।

খোরশেদ কোন দল করে এটি কোনো বিষয় নয়। খোরশেদ মানুষের সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন। মানুষের সেবা করতে গিয়ে আজ তার স্ত্রীর অবস্থা ভালো না। এজন্য আমি তার বিপদে পাশে দাঁড়িয়েছি। এটা আমার এবং সবার দায়িত্ব।

শামীম ওসমান বলেন, খোরশেদের স্ত্রীর উন্নত চিকিৎসার জন্য স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করেছি। শুধু খোরশেদ বা তার স্ত্রী নয়, এর আগেও স্কয়ার হাসপাতালে অনেক সঙ্কটাপন্ন রোগীকে ভর্তি করেছি।

স্কয়ার হাসপাতালের মালিক অঞ্জন চৌধুরীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। হাসপাতালটি করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের সেবা দিয়ে যাচ্ছে। অন্য রোগীদের এই হাসপাতালে পাঠিয়ে আমি সহযোগিতা পেয়েছি তাদের।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত