পাবনায় বাড়ছে করোনা রোগী, মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি
jugantor
পাবনায় বাড়ছে করোনা রোগী, মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

  পাবনা প্রতিনিধি  

০৩ জুন ২০২০, ২১:২৫:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা উপসর্গে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে সুমন হোসেন (৫৫) নামে এক ব্যক্তি মারা গেছেন।

মৃত সুমন হোসেন ১ জুন করোনা উপসর্গ নিয়ে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন এবং সেখানেই বুধবার ভোরে মারা যান। তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য রাজশাহীতে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া একদিনে নতুন করে ১৩ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় জেলায় বুধবার পর্যন্ত মোট ৫৫ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে পাবনা সদরে ১০ জন এবং সুজানগরে ৩ জন রয়েছেন।

পাবনার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. কেএম আবু জাফর বলেন, মঙ্গলবার রাতে ১৩ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে করোনা পজিটিভ আসে। আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। তারা নিজ নিজ বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের পরিবারের অন্য সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য রাজশাহীতে পাঠানো হয়েছে। এ দিকে পাবনায় এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ নারীসহ ৮ জন।

এর আগে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের একজন ইন্টার্ন চিকিৎসক, ৩ জন স্টাফ নার্স এবং সাঁথিয়া ও চাটমোহর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৭ জন স্বাস্থ্য কর্মীসহ ৪২ জন করোনা আক্রান্ত হন।

ডেপুটি সিভিল সার্জন আরও জানান, করোনায় আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য পাবনা শহরতলীর পাবনা কমিউনিটি হাসপাতালকে ১০০ বেডের কোভিড চিকিৎসা হাসপাতাল হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এ ছাড়া পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ২০ বেডসহ জেলার ৮ উপজেলা হাসপাতালে ১০ বেড করে মোট ২০০ বেডের কোভিড-১৯-এর চিকিৎসার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

এ দিকে পাবনায় অফিস আদালতে স্বাস্থ্যবিধি বা সামাজিক দৃরত্ব মানা হলেও গণপরিবহনে ও অন্যান্য স্থানে তা অনেকাংশেই মানা হচ্ছে না। গণপরিবহনে অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার অভিযোগ বাড়ছে।

পাবনায় বাড়ছে করোনা রোগী, মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

 পাবনা প্রতিনিধি 
০৩ জুন ২০২০, ০৯:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা উপসর্গে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে সুমন হোসেন (৫৫) নামে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। 

মৃত সুমন হোসেন ১ জুন করোনা উপসর্গ নিয়ে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন এবং সেখানেই বুধবার ভোরে মারা যান। তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য রাজশাহীতে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া একদিনে নতুন করে ১৩ জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় জেলায় বুধবার পর্যন্ত মোট ৫৫ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে পাবনা সদরে ১০ জন এবং সুজানগরে ৩ জন রয়েছেন। 

পাবনার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. কেএম আবু জাফর বলেন, মঙ্গলবার রাতে ১৩ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে করোনা পজিটিভ আসে। আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। তারা নিজ নিজ বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের পরিবারের অন্য সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য রাজশাহীতে পাঠানো হয়েছে। এ দিকে পাবনায় এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ নারীসহ ৮ জন। 

এর আগে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের একজন ইন্টার্ন চিকিৎসক, ৩ জন স্টাফ নার্স এবং সাঁথিয়া ও চাটমোহর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৭ জন স্বাস্থ্য কর্মীসহ ৪২ জন করোনা আক্রান্ত হন। 

ডেপুটি সিভিল সার্জন আরও জানান, করোনায় আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য পাবনা শহরতলীর পাবনা কমিউনিটি হাসপাতালকে ১০০ বেডের কোভিড চিকিৎসা হাসপাতাল হিসেবে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এ ছাড়া পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ২০ বেডসহ জেলার ৮ উপজেলা হাসপাতালে ১০ বেড করে মোট ২০০ বেডের কোভিড-১৯-এর চিকিৎসার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। 

এ দিকে পাবনায় অফিস আদালতে স্বাস্থ্যবিধি বা সামাজিক দৃরত্ব মানা হলেও গণপরিবহনে ও অন্যান্য স্থানে তা অনেকাংশেই মানা হচ্ছে না। গণপরিবহনে অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার অভিযোগ বাড়ছে।
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস