ক্ষমা চাইলে ও ক্ষতিপূরণ দিলে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসবে ইরান
jugantor
ক্ষমা চাইলে ও ক্ষতিপূরণ দিলে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসবে ইরান

  অনলাইন ডেস্ক  

২৪ জুন ২০২০, ১৩:৪৬:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

ক্ষমা চাইলে ও ক্ষতিপূরণ দিলে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসবে ইরান
ছবি: সংগৃহীত

ওয়াশিংটন যদি পরমাণু চুক্তি থেকে একতরফাভাবে সরে যাওয়ার জন্য ক্ষমা চায় ও ক্ষতিপূরণ দেয়, তবে দেশটির সঙ্গে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত রয়েছে তেহরান।

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বুধবার এমন কথা বলেছেন।

২০১৮ সালে বিশ্বের ছয়টি শক্তির সঙ্গে ইরানের করা পরমাণু চুক্তি থেকে একতরফাভাবে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। 

যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ, তেহরানের ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি ও আঞ্চলিক প্রভাবের লাগাম ধরতে এই চুক্তি যথেষ্ট নয়।

হাসান রুহানি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসতে আমাদের কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু পরমাণু চুক্তির অধীন বাধ্যবাধকতা পূরণ করতে হবে তাদের। চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার জন্য তাদের ক্ষমা চাইতে হবে ও ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

ক্ষমা চাইলে ও ক্ষতিপূরণ দিলে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসবে ইরান

 অনলাইন ডেস্ক 
২৪ জুন ২০২০, ০১:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ক্ষমা চাইলে ও ক্ষতিপূরণ দিলে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসবে ইরান
ছবি: সংগৃহীত

ওয়াশিংটন যদি পরমাণু চুক্তি থেকে একতরফাভাবে সরে যাওয়ার জন্য ক্ষমা চায় ও ক্ষতিপূরণ দেয়, তবে দেশটির সঙ্গে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত রয়েছে তেহরান।

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বুধবার এমন কথা বলেছেন।

২০১৮ সালে বিশ্বের ছয়টি শক্তির সঙ্গে ইরানের করা পরমাণু চুক্তি থেকে একতরফাভাবে সরে আসার ঘোষণা দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ, তেহরানের ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি ও আঞ্চলিক প্রভাবের লাগাম ধরতে এই চুক্তি যথেষ্ট নয়।

হাসান রুহানি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসতে আমাদের কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু পরমাণু চুক্তির অধীন বাধ্যবাধকতা পূরণ করতে হবে তাদের। চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার জন্য তাদের ক্ষমা চাইতে হবে ও ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট