উপসর্গ নিয়ে রাঙ্গাবালীতে মৃত সেই বৃদ্ধের করোনা পজিটিভ
jugantor
উপসর্গ নিয়ে রাঙ্গাবালীতে মৃত সেই বৃদ্ধের করোনা পজিটিভ

  রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি  

২৫ জুন ২০২০, ১২:৫৫:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

উপসর্গ নিয়ে রাঙ্গাবালীতে মৃত সেই বৃদ্ধের করোনা পজিটিভ

করোনার উপসর্গ নিয়ে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার মৃত বৃদ্ধ শাহ আলম হাওলাদারের (৭০) করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে।

বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মনিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মৃত্যু শাহ আলমের বাড়ি উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের গহিনখালী গ্রামে। তিনিই এ উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া প্রথম ব্যক্তি।

এর আগে বুধবার বেলা ২টার দিকে বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা যান।

জানা গেছে, গত ২১ জুন করোনা উপসর্গ নিয়ে শাহ আলম শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি হন।

পরে চিকিৎসাধীন বুধবার বেলা ২টায় তিনি মারা যান।

এর আগে ২২ জুন তার নমুনা নেয়া হয়। কিন্তু মারা যাওয়ার সাত ঘণ্টা পর তার করোনা পজিটিভ শনাক্তের প্রতিবেদন আসে।

করোনা পজিটিভের বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মনিরুল ইসলাম বলেন, মৃত শাহ আলমের করোনা পজিটিভ রিপোর্টি এসেছে। তিনি নমুনা দিয়েছেন ২২ জুন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, করোনা প্রটোকল অনুযায়ী সীমিত পরিসরে লোকজন নিয়ে শাহ আলমের দাফনকাজ সম্পন্ন করা হয়। তার সংস্পর্শে যাওয়া প্রত্যেক ব্যক্তি হোম কোয়ারেন্টিনে থাকবেন; এ ধরনের নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

উপসর্গ নিয়ে রাঙ্গাবালীতে মৃত সেই বৃদ্ধের করোনা পজিটিভ

 রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি 
২৫ জুন ২০২০, ১২:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
উপসর্গ নিয়ে রাঙ্গাবালীতে মৃত সেই বৃদ্ধের করোনা পজিটিভ
ফাইল ছবি

করোনার উপসর্গ নিয়ে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার মৃত বৃদ্ধ শাহ আলম হাওলাদারের (৭০) করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে।

বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মনিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মৃত্যু শাহ আলমের বাড়ি উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের গহিনখালী গ্রামে। তিনিই এ উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া প্রথম ব্যক্তি।

এর আগে বুধবার বেলা ২টার দিকে বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা যান।

জানা গেছে, গত ২১ জুন করোনা উপসর্গ নিয়ে শাহ আলম শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি হন।

পরে চিকিৎসাধীন বুধবার বেলা ২টায় তিনি মারা যান।
 
এর আগে ২২ জুন তার নমুনা নেয়া হয়। কিন্তু মারা যাওয়ার সাত ঘণ্টা পর তার করোনা পজিটিভ শনাক্তের প্রতিবেদন আসে।

করোনা পজিটিভের বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মনিরুল ইসলাম বলেন, মৃত শাহ আলমের করোনা পজিটিভ রিপোর্টি এসেছে। তিনি নমুনা দিয়েছেন ২২ জুন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, করোনা প্রটোকল অনুযায়ী সীমিত পরিসরে লোকজন নিয়ে শাহ আলমের দাফনকাজ সম্পন্ন করা হয়। তার সংস্পর্শে যাওয়া প্রত্যেক ব্যক্তি হোম কোয়ারেন্টিনে থাকবেন; এ ধরনের নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস