১৫ দিনেও মিলছে না করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট

  দুমকি (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি  ৩০ জুন ২০২০, ২০:০২:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

পটুয়াখালীর দুমকিতে নমুনা সংগ্রহের ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও মিলছে না করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট। যারা নমুনা দিচ্ছেন ফলাফল না পাওয়ায় তারা অবাধ বিচরণ করছেন উপজেলা শহরে।

থেমে নেই হাট-বাজারসহ আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে আসা-যাওয়া। এতে করোনা সংক্রমণ দ্রুত ছড়ানোর আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, মঙ্গলবার পর্যন্ত ৩২৪টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে রিপোর্ট পাওয়া গেছে ২১৯টির। এর মধ্যে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে ২৬ জনের। তাদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের ও সুস্থ হয়েছেন ৮ জন।

একজন চাকরিজীবী জানান, বিগত তার বাবা শ্বাসকষ্ট নিয়ে মারা যান। মারা যাওয়ার দিনই তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে পরে তাকে সরকারি নিয়মানুযায়ী দাফন করা হয়। তার পরই পরিবারের সবার নমুনা দেন। কিন্তু নমুনা দেয়ার ১৫ দিন পরও তারা রিপোর্ট হাতে পাননি।

এ ছাড়াও একজন সংবাদকর্মী জানান, জ্বর, মাথা ব্যথা দেখা দিলে তিনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে নমুনা দিয়ে আসেন কিন্তু নমুনা দেয়ার ১৪ দিন অতিবাহিত হলেও কোনো রিপোর্ট মেলেনি। এ ছাড়াও স্বাস্থ্য বিভাগের হিসাব মতে শতাধিক লোকের করোনা রিপোর্ট তারা হাতে পাননি। নমুনা পরীক্ষার ফলাফল না আসায় স্বাস্থ্যসেবা ও প্রশাসনিক পদক্ষেপও নিতে পারছে না উপজেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মীর শহীদুল ইসলাম শাহীন জানান, প্রতিদিন নমুনা সংগ্রহ করে সঙ্গে সঙ্গে পটুয়াখালী সিভিল সার্জন অফিসে পাঠানো হয়। তারা ওখান থেকে ঢাকায় পাঠান। তবে কি কারণে দ্রুত রিপোর্ট আসছে না তা বলতে পারব না।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত