ভারতে করোনা আক্রান্ত ছয় লাখ ছাড়াল
jugantor
ভারতে করোনা আক্রান্ত ছয় লাখ ছাড়াল

  অনলাইন ডেস্ক  

০২ জুলাই ২০২০, ১৩:২৮:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতে করোনা আক্রান্ত ছয় লাখ ছাড়াল
ছবি: সংগৃহীত

ভারতে কারোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ছয় লাখ ছাড়িয়েছে। আর মারা গেছেন ১৭ হাজার ৮৩৪ জন। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এমন খবর দিয়েছে।

করোনা নিয়ন্ত্রণে দেশটির সরকার জোর চেষ্টা চালালেও অর্থনীতিকে সক্রিয় করতে ভারতে লকডাউন শিথিল করা হয়েছে।

ভাইরাস থেকে নাগরিকদের রক্ষায় নতুন চ্যালেঞ্জ দাঁড়িয়েছে, যখন আসামে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে নতুন বিপর্যয় তৈরি হয়েছে। সেখানে ভূমিধস ও বন্যায় ৫৭ জন নিহত হয়েছেন।

এছাড়াও অন্তত ১৫ লাখ মানুষকে ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে হয়েছে।

আসামের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেন, বন্যায় বাড়িঘর হারিয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে  যাওয়া গ্রামের লোকজনের মধ্যে করোনা শনাক্ত করতে সরকার আগ্রাসীভাবে পরীক্ষা চালাচ্ছে।

শর্মা বলেন, আমরা করোনাভাইরাসের নতুন হটস্পট চিহ্নিত করছি। পরিস্থিতি খুবই খারাপ।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে মহামারী শুরুর পর থেকে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক কোভিড-১৯ রোগী শনাক্তের নতুন রেকর্ড হয়েছে।

রয়টার্সের হিসাব অনুযায়ী, মঙ্গলবার দেশটিতে আরও ৪৭ হাজার করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে।

খুব শিগগিরই আক্রান্তের সংখ্যা এর দ্বিগুণ হয়ে উঠতে পারে বলে সতর্ক করেছেন দেশটির সরকারের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ।

এ দিন রেকর্ড সংখ্যক কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধির কথা জানিয়েছে ক্যালিফোর্নিয়া, টেক্সাস ও অ্যারিজোনা। এই তিনটি রাজ্য যুক্তরাষ্ট্রে মহামারীর নতুন উপকেন্দ্র হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে।

ভারতে করোনা আক্রান্ত ছয় লাখ ছাড়াল

 অনলাইন ডেস্ক 
০২ জুলাই ২০২০, ০১:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভারতে করোনা আক্রান্ত ছয় লাখ ছাড়াল
ছবি: সংগৃহীত

ভারতে কারোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ছয় লাখ ছাড়িয়েছে। আর মারা গেছেন ১৭ হাজার ৮৩৪ জন। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এমন খবর দিয়েছে।

করোনা নিয়ন্ত্রণে দেশটির সরকার জোর চেষ্টা চালালেও অর্থনীতিকে সক্রিয় করতে ভারতে লকডাউন শিথিল করা হয়েছে।

ভাইরাস থেকে নাগরিকদের রক্ষায় নতুন চ্যালেঞ্জ দাঁড়িয়েছে, যখন আসামে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে নতুন বিপর্যয় তৈরি হয়েছে। সেখানে ভূমিধস ও বন্যায় ৫৭ জন নিহত হয়েছেন।

এছাড়াও অন্তত ১৫ লাখ মানুষকে ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে হয়েছে।

আসামের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেন, বন্যায় বাড়িঘর হারিয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়া গ্রামের লোকজনের মধ্যে করোনা শনাক্ত করতে সরকার আগ্রাসীভাবে পরীক্ষা চালাচ্ছে।

শর্মা বলেন, আমরা করোনাভাইরাসের নতুন হটস্পট চিহ্নিত করছি। পরিস্থিতি খুবই খারাপ।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে মহামারী শুরুর পর থেকে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক কোভিড-১৯ রোগী শনাক্তের নতুন রেকর্ড হয়েছে।

রয়টার্সের হিসাব অনুযায়ী, মঙ্গলবার দেশটিতে আরও ৪৭ হাজার করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে।

খুব শিগগিরই আক্রান্তের সংখ্যা এর দ্বিগুণ হয়ে উঠতে পারে বলে সতর্ক করেছেন দেশটির সরকারের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ।

এ দিন রেকর্ড সংখ্যক কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধির কথা জানিয়েছে ক্যালিফোর্নিয়া, টেক্সাস ও অ্যারিজোনা। এই তিনটি রাজ্য যুক্তরাষ্ট্রে মহামারীর নতুন উপকেন্দ্র হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস