সব দুর্যোগে সরকার জনগণের পাশে রয়েছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

  সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ০২ জুলাই ২০২০, ২২:৫৬:১০ | অনলাইন সংস্করণ

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, করেনা মহামারীর সময়ে সুনামগঞ্জে আরেক দুর্যোগ বন্যা দেখা দিয়েছে। আমার নির্বাচনী এলাকাসহ সুনামগঞ্জ জেলার ১১টি উপজেলা ব্যাপকভাবে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অনেকের ঘরবাড়ি তলিয়ে গেছে। হাওরাঞ্চলের মানুষ যুগ যুগ ধরে প্রকৃতির সঙ্গে লড়াই করে ঠিকে আছে।

তিনি বলেন, আপনাদের আশ্বস্ত করছি, সব ধরনের দুর্যোগে সরকার আপনাদের পাশে আছে। শুধু করোনা মহামারী, প্রাকৃতিক দুর্যোগ, বন্যার মতো দুর্যোগে নয়, সব প্রাকৃতিক বিপর্যয় মোকাবিলায় সরকার দেশের জনগণের পাশে আছে। আমরা ১০ টাকা কেজির চাল, জিআর, ভিজিএফ, ভিজিডি দিয়ে দেশের মানুষকে সহযোগিতা করে আসছি। সরকারের এ ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সুনামগঞ্জ জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার জয়কলস ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ১০০ পরিবারের মাঝে জিআর-এর ১০ কেজি চাল ও ডাল বিতরণকালে মন্ত্রী এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সারা বিশ্বে এখন করোনা মহামারী চলছে। আমাদের দেশেও এই মহামারী হানা দিয়েছে। আমরা দেশের মানুষের জন্য দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছি, যাতে করে এই মহামারী থেকে দেশের মানুষকে রক্ষা করতে পারি।

মন্ত্রী বলেন, করোনার দুর্যোগ দ্রুত কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে সরকার। কারণ আমরা আগে থেকেই দেশের মানুষকে সচেতন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রী দিতে পেরেছি। তারপরও কিছু ক্ষতি হয়েছে। আগের চেয়ে অবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে। দোকানপাটও সন্ধ্যা পর্যন্ত খোলা রাখার অনুমতি দেয়া হয়েছে। অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে এই করোনা মহামারী তেমন ক্ষতি করতে পারেনি।

এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জেবুন নাহার শাম্মী, থানার ওসি কাজী মোক্তাদির হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান, জয়কলস ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মাসুদ মিয়া, দরগাপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মনির উদ্দিন, মন্ত্রীর একান্ত রাজনৈতিক সচিব আবুল হাসনাত প্রমুখ।

ত্রাণ বিতরণ ছাড়াও পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান তার নিজ উপজেলার বন্যাকবলিত বিভিন্ন গ্রাম নৌকাযোগে ঘুরে ঘুরে দেখেন এবং মানুষের খোঁজ-খবর নেন।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত