গোয়ালন্দে উদ্ধারকৃত লাশ নিতে আসেনি স্বজনরা!

  গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ০৫ জুলাই ২০২০, ২২:৪০:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া রেল স্টেশন সংলগ্ন শহীদ মিনার থেকে শনিবার রাতে নিহাল মণ্ডল (৬০) নামের এক ভিক্ষুকের লাশ উদ্ধার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ। তার বাড়ি মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার হাটকালীনগর এলাকায়।

এ ঠিকানায় পুলিশ ও স্থানীয় সাংবাদিকরা যোগাযোগ করলেও কেউ এসে লাশ গ্রহণ করতে রাজি হননি।

এ অবস্থায় গোয়ালন্দ হাসপাতাল থেকে মৃত ব্যক্তির করোনার নমুনা সংগ্রহ করে রাজবাড়ীর আঞ্জুমানে মফিদুলের মাধ্যমে লাশ দাফন করা হয়।

নিহাল মণ্ডল গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ফেরিঘাটসহ বিভিন্ন এলাকায় ভিক্ষা করতেন বলে জানা গেছে। রাতে দুই মাস যাবত দৌলতদিয়া ঘাট যৌন পল্লী সংলগ্ন রেল স্টেশন এলাকার শকুর আলী মণ্ডলের মালিকানাধীন মা নামক একটি বোর্ডিংয়ে ঘুমাতেন।

মা বোডিংয়ের ম্যানেজার মো. ইকবাল হোসেন জানান, নিহাল মণ্ডলের ব্যাগ তল্লাশি করে পাওয়া একটি মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করা হলে তার ভাতিজা মিজান মণ্ডল তাদেরকে জানায়, তার চাচা দীর্ঘদিন ধরে বাড়ি ছাড়া। তাদের বাড়ি মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার হাটকালীনগর এলাকায়। আমরা মিজান মণ্ডলকে লাশ নিয়ে যাওয়ার জন্য বললেও তিনি করোনা আতংকে আসতে সম্মত হননি।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে দেখা যায় ওই ভিক্ষুকের লাশ শহীদ মিনারের ওপর পড়ে ছিল। এরপর গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানার এসআই বদিয়ার রহমান জানান, গোয়ালন্দ হাসপাতাল থেকে মৃতব্যক্তির করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আমরা লাশের অভিভাবকদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা কেউ এসে লাশ গ্রহণ করতে রাজি হননি। এ অবস্থায় লাশের ময়নাতদন্ত শেষে আঞ্জুমানে মফিদুলের মাধ্যমে দাফনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত