করোনায় মারা গেছেন বাবা, সাহেদ লাপাত্তা
jugantor
করোনায় মারা গেছেন বাবা, সাহেদ লাপাত্তা

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১০ জুলাই ২০২০, ১২:৩৮:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনায় মারা গেছেন বাবা, সাহেদ লাপাত্তা

কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক মো. সাহেদের বাবা সিরাজুল করিম। বাবার মৃত্যুর পরও লাপাত্তা রিজেন্ট হাসপাতালে করোনা চিকিৎসায় প্রতারণার মামলায় আসামি সাহেদ।

রাজধানীর মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে মারা যান সিরাজুল।

ইউনিভার্সেল মেডিকেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. আশীষ কুমার চক্রবর্তী গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, প্রায় ৭০ বছর বয়সী সিরাজুলকে গত ৪ জুলাই ইউনিভার্সেল হাসপাতালে ভর্তি করেন সাহেদ। ভর্তির সময় সাহেদ তাদের জানিয়েছিলেন, তার বাবার কোভিড-১৯ সংক্রমণ নেই।

আশীষ কুমার জানান, আগে তিনটি পরীক্ষার রিপোর্টে সিরাজুলের কোভিড-১৯ নেগেটিভ আসে। কিন্তু তার লক্ষণ দেখেই মনে হয়েছিল তিনি করোনা আক্রান্ত। আমাদের এখানে পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ আসে।

জানা গেছে, ভর্তির পর প্রথম দুই দিন সাহেদ তার বাবাকে দেখতে যান হাসপাতালে। তবে ৬ জুলাইয়ের পর থেকে সাহেদ ও তার পরিবাারের কেউ হাসপাতালে যাননি।

ইউনিভার্সেল মেডিকেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, সিরাজুলের মৃত্যুর পর সাহেদের মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তা বন্ধ পাওয়া গেছে। পরে সাহেদের স্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়।

পরে সাহেদের স্ত্রী একজন প্রতিনিধিকে পাঠিয়েছেন। রাতে সিরাজুলের লাশ তার প্রতিনিধির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস পরীক্ষার ভুয়া সনদ দেয়াসহ বিভিন্ন প্রতারণার অভিযোগ এনে গত ৬ জুলাই রাতে সাহেদসহ রিজেন্ট হাসপাতাল ও রিজেন্ট গ্রুপের ১৭ জনের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করেছে র‍্যাব। এ নিয়ে বিভিন্ন অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ৩৩টি মামলা হল। এ ঘটনায় ৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

৬ জুলাই অভিযান চালিয়ে রিজেন্ট গ্রুপের প্রধান কার্যালয় এবং রাজধানীর উত্তরা ও মিরপুরের রিজেন্ট হাসপাতালের শাখা দুটি সিলগালা করা হয়েছে।

সাহেদকে খুঁজছে আইনশৃংখলা বাহিনী। তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।

করোনায় মারা গেছেন বাবা, সাহেদ লাপাত্তা

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১০ জুলাই ২০২০, ১২:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনায় মারা গেছেন বাবা, সাহেদ লাপাত্তা
ফাইল ছবি

কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক মো. সাহেদের বাবা সিরাজুল করিম। বাবার মৃত্যুর পরও লাপাত্তা রিজেন্ট হাসপাতালে করোনা চিকিৎসায় প্রতারণার মামলায় আসামি সাহেদ।

রাজধানীর মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে মারা যান সিরাজুল।

ইউনিভার্সেল মেডিকেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক  ডা. আশীষ কুমার চক্রবর্তী গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, প্রায় ৭০ বছর বয়সী সিরাজুলকে গত ৪ জুলাই ইউনিভার্সেল হাসপাতালে ভর্তি করেন সাহেদ। ভর্তির সময় সাহেদ তাদের জানিয়েছিলেন, তার বাবার কোভিড-১৯ সংক্রমণ নেই।

আশীষ কুমার জানান, আগে তিনটি পরীক্ষার রিপোর্টে সিরাজুলের কোভিড-১৯ নেগেটিভ আসে। কিন্তু তার লক্ষণ দেখেই মনে হয়েছিল তিনি করোনা আক্রান্ত। আমাদের এখানে পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ আসে।

জানা গেছে, ভর্তির পর প্রথম দুই দিন সাহেদ তার বাবাকে দেখতে যান হাসপাতালে। তবে ৬ জুলাইয়ের পর থেকে সাহেদ ও তার পরিবাারের কেউ হাসপাতালে যাননি। 

ইউনিভার্সেল মেডিকেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, সিরাজুলের মৃত্যুর পর সাহেদের মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তা বন্ধ পাওয়া গেছে। পরে সাহেদের স্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়।

পরে সাহেদের স্ত্রী একজন প্রতিনিধিকে পাঠিয়েছেন। রাতে সিরাজুলের লাশ তার প্রতিনিধির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস পরীক্ষার ভুয়া সনদ দেয়াসহ বিভিন্ন প্রতারণার অভিযোগ এনে গত ৬ জুলাই রাতে সাহেদসহ রিজেন্ট হাসপাতাল ও রিজেন্ট গ্রুপের ১৭ জনের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করেছে র‍্যাব। এ নিয়ে বিভিন্ন অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ৩৩টি মামলা হল। এ ঘটনায় ৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

৬ জুলাই অভিযান চালিয়ে রিজেন্ট গ্রুপের প্রধান কার্যালয় এবং রাজধানীর উত্তরা ও মিরপুরের রিজেন্ট হাসপাতালের শাখা দুটি সিলগালা করা হয়েছে।

সাহেদকে খুঁজছে আইনশৃংখলা বাহিনী। তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।