নাগরিকদের সাদামাটা ঈদ উদযাপনের আহ্বান ইমরান খানের
jugantor
নাগরিকদের সাদামাটা ঈদ উদযাপনের আহ্বান ইমরান খানের

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৯ জুলাই ২০২০, ১৫:২২:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে সতর্কতার সঙ্গে ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা উদযাপনের আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ঈদুল ফিতরের অবস্থা যাতে কোরবানির ঈদের সময় না হয় দেশের জনগণকে সাদামাটা ঈদ উদ্যাপন করতে আহ্বান জানিয়ে টুইট করেন তিনি।
টুইটে ইমরান খানের আহ্বান,ঈদুল আজহা অবশ্যই সাদামাটাভাবে উদ্যাপন করতে হবে। অবস্থা যাতে গত ঈদের মত না হয়। ওই ঈদের সময় স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিংয়ের নিয়মকানুনগুলো মানা হয়নি। ফলে হাসপাতালগুলোতে রোগীর ভিড় লেগে যায়।
এবারের ঈদে করোনা নিয়ন্ত্রণের লাইনগুলো কঠোরভাবে প্রয়োগ করা হবে বলেও সতর্ক করে দেন ইমরান।
গত মে মাসে রোজায় সময় মসজিদ ও দোকানপাটগুলোতে পাকিস্তানের নাগরিকদের সামাজিক দূরত্ব ও অন্যান্য বিধিনিষেধ তেমন মানতে দেখা যায়নি। সে কারণে ঈদের পর দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা আরও উদ্বেগজনকভাবে বাড়তে থাকে।
সংক্রমণের বিস্তার রোধে পাকিস্তানজুড়ে আবারও লকডাউন দেয়ার আহ্বান জানায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। কিন্তু কঠিন এই পদক্ষেপ দ্বিতীয়বারের মত নেয়নি মুসলিম সংখ্যা গরিষ্ঠের দেশটি।
উপমহাদেশের দেশগুলোর মধ্যে করোনা সংক্রমণে দ্বিতীয়স্থানে আছে পাকিস্তান। দেশটিতে আক্রান্ত ২ লাখ ৬০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে, মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়েছে সাড়ে ৫ হাজার। প্রথমে রয়েছে ভারত।

নাগরিকদের সাদামাটা ঈদ উদযাপনের আহ্বান ইমরান খানের

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৯ জুলাই ২০২০, ০৩:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে সতর্কতার সঙ্গে ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা উদযাপনের আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ঈদুল ফিতরের অবস্থা যাতে কোরবানির ঈদের সময় না হয় দেশের জনগণকে সাদামাটা ঈদ উদ্যাপন করতে আহ্বান জানিয়ে টুইট করেন তিনি।
টুইটে ইমরান খানের আহ্বান,ঈদুল আজহা অবশ্যই সাদামাটাভাবে উদ্যাপন করতে হবে। অবস্থা যাতে গত ঈদের মত না হয়। ওই ঈদের সময় স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিংয়ের নিয়মকানুনগুলো মানা হয়নি। ফলে হাসপাতালগুলোতে রোগীর ভিড় লেগে যায়।
এবারের ঈদে করোনা নিয়ন্ত্রণের লাইনগুলো কঠোরভাবে প্রয়োগ করা হবে বলেও সতর্ক করে দেন ইমরান।
গত মে মাসে রোজায় সময় মসজিদ ও দোকানপাটগুলোতে পাকিস্তানের নাগরিকদের সামাজিক দূরত্ব ও অন্যান্য বিধিনিষেধ তেমন মানতে দেখা যায়নি। সে কারণে ঈদের পর দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা আরও উদ্বেগজনকভাবে বাড়তে থাকে।
সংক্রমণের বিস্তার রোধে পাকিস্তানজুড়ে আবারও লকডাউন দেয়ার আহ্বান জানায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। কিন্তু কঠিন এই পদক্ষেপ দ্বিতীয়বারের মত নেয়নি মুসলিম সংখ্যা গরিষ্ঠের দেশটি।
উপমহাদেশের দেশগুলোর মধ্যে করোনা সংক্রমণে দ্বিতীয়স্থানে আছে পাকিস্তান। দেশটিতে আক্রান্ত ২ লাখ ৬০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে, মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়েছে সাড়ে ৫ হাজার। প্রথমে রয়েছে ভারত।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস