করোনারোধের পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ‘কভিডিয়েট’দের বিক্ষোভ
jugantor
করোনারোধের পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ‘কভিডিয়েট’দের বিক্ষোভ

  অনলাইন ডেস্ক  

০২ আগস্ট ২০২০, ১০:২৭:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনারোধে নেয়া পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ‘কভিডিয়েট’দের বিক্ষোভ

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জার্মানিতে আরোপ করা বিভিন্ন পদক্ষেপের বিরুদ্ধে শনিবার বার্লিনে হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন। তাদের অভিযোগ, এসব পদক্ষেপের কারণে মানুষের চলাচলের অধিকার ও স্বাধীনতা মারাত্মকভাবে ক্ষুণ্ণ হচ্ছে।

পুলিশের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, বিক্ষোভে ১৭ হাজার মানুষ জড়ো হয়েছিলেন। যাদের মধ্যে মুক্ত চলাচল অধিকারকর্মী, সাংবিধানিক অনুগত ও ভ্যাকসিনবিরোধী কর্মীরাও ছিলেন।

এছাড়া এতে উগ্রডানপন্থীদেরও উপস্থিতি ছিল। কালো, সাদা ও লাল রঙের সাম্রাজ্যবাদী পতাকা নিয়ে তাদের সামনে এগিয়ে যেতে দেখা গেছে।

‘আমরা স্বাধীন মানুষ’ বলে নেচে-গেয়ে তারা বিক্ষোভ করেন। কারো হাতে প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘তোমরা আমাদের স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছ, তাই আমরা হৈচৈ করছি’।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিক্ষোভকারী বলেন, গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনাই আমাদের দাবি। যে মাস্ক আমাদের দাস বানিয়েছে, তা বাদ দিতে হবে।

সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখায় ও মাস্ক না পরায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ। মূলধারার রাজনীতিবিদরাও বিক্ষোভকারীদের সমালোচনা করেছেন।

সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট দলীয় নেতা সাসকিয়া ইসকেন তাদের ‘কোভিডিয়েট’ বলে আখ্যায়িত করেন। তিনি বলেন, তারা কেবল আমাদের স্বাস্থ্যকে ঝুঁকিতে ফেলছে না, মহামারীর বিরুদ্ধে আমাদের সফলতাকেও ধুলায় মিশিয়ে দিচ্ছে।

জার্মানি প্রথম দিকে ভালোভাবেই করোনার নিয়ন্ত্রণ করেছিল। কিন্তু ইউরোপীয় দেশটিতে ফের সংক্রমণ বেড়ে গেছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত দুই লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন এক হাজারের বেশি।

করোনারোধের পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ‘কভিডিয়েট’দের বিক্ষোভ

 অনলাইন ডেস্ক 
০২ আগস্ট ২০২০, ১০:২৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনারোধে নেয়া পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ‘কভিডিয়েট’দের বিক্ষোভ
ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জার্মানিতে আরোপ করা বিভিন্ন পদক্ষেপের বিরুদ্ধে শনিবার বার্লিনে হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন। তাদের অভিযোগ, এসব পদক্ষেপের কারণে মানুষের চলাচলের অধিকার ও স্বাধীনতা মারাত্মকভাবে ক্ষুণ্ণ হচ্ছে।

পুলিশের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, বিক্ষোভে ১৭ হাজার মানুষ জড়ো হয়েছিলেন। যাদের মধ্যে মুক্ত চলাচল অধিকারকর্মী, সাংবিধানিক অনুগত ও ভ্যাকসিনবিরোধী কর্মীরাও ছিলেন।

এছাড়া এতে উগ্রডানপন্থীদেরও উপস্থিতি ছিল। কালো, সাদা ও লাল রঙের সাম্রাজ্যবাদী পতাকা নিয়ে তাদের সামনে এগিয়ে যেতে দেখা গেছে।

‘আমরা স্বাধীন মানুষ’ বলে নেচে-গেয়ে তারা বিক্ষোভ করেন। কারো হাতে প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘তোমরা আমাদের স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছ, তাই আমরা হৈচৈ করছি’।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিক্ষোভকারী বলেন, গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনাই আমাদের দাবি। যে মাস্ক আমাদের দাস বানিয়েছে, তা বাদ দিতে হবে।

সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখায় ও মাস্ক না পরায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ। মূলধারার রাজনীতিবিদরাও বিক্ষোভকারীদের সমালোচনা করেছেন।

সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট দলীয় নেতা সাসকিয়া ইসকেন তাদের ‘কোভিডিয়েট’ বলে আখ্যায়িত করেন। তিনি বলেন, তারা কেবল আমাদের স্বাস্থ্যকে ঝুঁকিতে ফেলছে না, মহামারীর বিরুদ্ধে আমাদের সফলতাকেও ধুলায় মিশিয়ে দিচ্ছে।

জার্মানি প্রথম দিকে ভালোভাবেই করোনার নিয়ন্ত্রণ করেছিল। কিন্তু ইউরোপীয় দেশটিতে ফের সংক্রমণ বেড়ে গেছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত দুই লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন এক হাজারের বেশি।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস