করোনা আক্রান্ত যুগান্তর প্রতিনিধিকে উপহার পাঠালেন সিরাজগঞ্জের এসপি
jugantor
করোনা আক্রান্ত যুগান্তর প্রতিনিধিকে উপহার পাঠালেন সিরাজগঞ্জের এসপি

  সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি  

০৪ আগস্ট ২০২০, ২৩:০০:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা আক্রান্ত দৈনিক যুগান্তরের সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি ও সিরাজগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি জেহাদুল ইসলামের জন্য উপহারসামগ্রী পাঠালেন সম্প্রতি সপরিবারে করোনা থেকে হয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা পুলিশ সুপার মো. হাসিবুল আলম।

মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিক জেহাদুলের শহরের বাহিরগোলা রোডের নিজ বাসভবনের সামনে গিয়ে এ উপহারসামগ্রী পৌঁছে দেন সদর থানা পুলিশের এসআই আবু জাফর, আনিসুর রহমান, এএসআই  জয়নাল আবেদিন প্রমুখ।

এ সময় সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সিরাজগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি জাকিরুল ইসলাম সান্টু, আবদুল মালেক, সোহাগ হাসান জয়, শুভ কুমার ঘোষ, টিএমএ হাসান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ১৯ জুলাই দুপুরে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে ২১ জুলাই সাংবাদিক জেহাদুল ও তার ৯ মাসের শিশুসন্তান মো. জাইন আবদুল্লাহর ফলাফল পজিটিভ আসে। এরপর থেকে তারা নিজ বাসভবনে আইসোলেশনে রয়েছেন। বর্তমানে তারা দুজন অনেকটাই সুস্থ।

পুলিশ সুপার মো. হাসিবুল আলম বলেন, চিকিৎসকের পরামর্শে করোনা রোগীদের সঙ্গহীন থাকতে হয়। যে কারণে তারা মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। তাই তাদের শরীর ও মন চাঙা রাখতে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।

করোনা আক্রান্ত যুগান্তর প্রতিনিধিকে উপহার পাঠালেন সিরাজগঞ্জের এসপি

 সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি 
০৪ আগস্ট ২০২০, ১১:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা আক্রান্ত দৈনিক যুগান্তরের সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি ও সিরাজগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি জেহাদুল ইসলামের জন্য উপহারসামগ্রী পাঠালেন সম্প্রতি সপরিবারে করোনা থেকে হয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা পুলিশ সুপার মো. হাসিবুল আলম।

মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিক জেহাদুলের শহরের বাহিরগোলা রোডের নিজ বাসভবনের সামনে গিয়ে এ উপহারসামগ্রী পৌঁছে দেন সদর থানা পুলিশের এসআই আবু জাফর, আনিসুর রহমান, এএসআই জয়নাল আবেদিন প্রমুখ।

এ সময় সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সিরাজগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি জাকিরুল ইসলাম সান্টু, আবদুল মালেক, সোহাগ হাসান জয়, শুভ কুমার ঘোষ, টিএমএ হাসান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ১৯ জুলাই দুপুরে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে ২১ জুলাই সাংবাদিক জেহাদুল ও তার ৯ মাসের শিশুসন্তান মো. জাইন আবদুল্লাহর ফলাফল পজিটিভ আসে। এরপর থেকে তারা নিজ বাসভবনে আইসোলেশনে রয়েছেন। বর্তমানে তারা দুজন অনেকটাই সুস্থ।

পুলিশ সুপার মো. হাসিবুল আলম বলেন, চিকিৎসকের পরামর্শে করোনা রোগীদের সঙ্গহীন থাকতে হয়। যে কারণে তারা মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। তাই তাদের শরীর ও মন চাঙা রাখতে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস