করোনায় ভালো হওয়ার পর ফুসফুসের জটিলতা
jugantor
করোনায় ভালো হওয়ার পর ফুসফুসের জটিলতা

  লাইফস্টাইল ডেস্ক  

০৫ আগস্ট ২০২০, ১৫:০৭:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ-পরবর্তী অনেকের ফুসফুসে জটিলতা দেখা দিতে পারে। এই রোগকে বলা হয় পোস্ট কোভিড পালমোনারি ফাইব্রোসিস।

এ রোগে ফুসফুসের নরম অংশগুলো শক্ত হয়ে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। ফলে ফুসফুসের বায়ুকুঠুরিগুলো ঠিকমতো কাজ করতে পারে না।

এ বিষয়ে জাতীয় বক্ষব্যাধি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ ডা. আরেফিন খান যুগান্তরকে বলেন, করোনা আক্রান্ত হলে অনেকের হালকা উপসর্গ থাকে আবার উপসর্গই থাকে না। আর কোভিড আক্রান্ত কম রোগী এ ধরনের সমস্যায় ভুগে থাকেন। 

তিনি বলেন, করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর যাদের অক্সিজেনের প্রয়োজন হয়, তারাই এ রোগের আক্রান্ত হওয়ার উচ্চঝুঁকিতে থাকেন। 

আসুন জেনে নিই এই রোগ সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়-


যেসব লক্ষণে বুঝবেন পালমোনারি ফাইব্রোসিস-

১. করোনা ভালো হওয়ার পরও শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া, শুষ্ক কাশি, বুকে ব্যথা বা চাপ অনুভব করা। 

২. হঠাৎ অস্বাভাবিকভাবে ওজন কমে যাওয়া ও অল্পতেই অবসাদ বা ক্লান্তি অনুভব করা। 

 ৩. পেশি ও অস্থিসন্ধিগুলোয় ব্যথা হলে ফুসফুসের সমস্যা হতে পারে। ধীরে ধীরে হাতের আঙুল বা পায়ের আঙুল মোটা হয়ে যেতে পারে।

রোগ শনাক্ত

পালমোনারি ফাইব্রোসিস শনাক্ত করতে বুকের এক্স–রে, বুকের কম্পিউটারাইজড সিটিস্ক্যান, ইকোকার্ডিওগ্রাম, পালমোনারি ফাংশন টেস্টিং ও পালস অক্সিমেট্রি করতে হবে। 

চিকিৎসা 

এই রোগের চিকিৎসা না করলে পালমোনারি হাইপারটেনশন হার্ট ফেইলিউর, ফুসফুসের ক্যান্সার, ফুসফুসে ঘন ঘন সংক্রমণ হতে পারে। 
এই রোগ থেকে সেরে উঠতে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। এ ছাড়া ধূমপান ছাড়তে হবে ও নিয়মিত ফুসফুসের ব্যায়াম করুন ও হাঁটুন। আর পুষ্টিকর খাবার খান।

করোনায় ভালো হওয়ার পর ফুসফুসের জটিলতা

 লাইফস্টাইল ডেস্ক 
০৫ আগস্ট ২০২০, ০৩:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ-পরবর্তী অনেকের ফুসফুসে জটিলতা দেখা দিতে পারে। এই রোগকে বলা হয় পোস্ট কোভিড পালমোনারি ফাইব্রোসিস।

এ রোগে ফুসফুসের নরম অংশগুলো শক্ত হয়ে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। ফলে ফুসফুসের বায়ুকুঠুরিগুলো ঠিকমতো কাজ করতে পারে না।

এ বিষয়ে জাতীয় বক্ষব্যাধি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ ডা. আরেফিন খান যুগান্তরকে বলেন, করোনা আক্রান্ত হলে অনেকের হালকা উপসর্গ থাকে আবার উপসর্গই থাকে না। আর কোভিড আক্রান্ত কম রোগী এ ধরনের সমস্যায় ভুগে থাকেন।

তিনি বলেন, করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর যাদের অক্সিজেনের প্রয়োজন হয়, তারাই এ রোগের আক্রান্ত হওয়ার উচ্চঝুঁকিতে থাকেন।

আসুন জেনে নিই এই রোগ সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়-


যেসব লক্ষণে বুঝবেন পালমোনারি ফাইব্রোসিস-

১. করোনা ভালো হওয়ার পরও শ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া, শুষ্ক কাশি, বুকে ব্যথা বা চাপ অনুভব করা।

২. হঠাৎ অস্বাভাবিকভাবে ওজন কমে যাওয়া ও অল্পতেই অবসাদ বা ক্লান্তি অনুভব করা।

৩. পেশি ও অস্থিসন্ধিগুলোয় ব্যথা হলে ফুসফুসের সমস্যা হতে পারে। ধীরে ধীরে হাতের আঙুল বা পায়ের আঙুল মোটা হয়ে যেতে পারে।

রোগ শনাক্ত

পালমোনারি ফাইব্রোসিস শনাক্ত করতে বুকের এক্স–রে, বুকের কম্পিউটারাইজড সিটিস্ক্যান, ইকোকার্ডিওগ্রাম, পালমোনারি ফাংশন টেস্টিং ও পালস অক্সিমেট্রি করতে হবে।

চিকিৎসা

এই রোগের চিকিৎসা না করলে পালমোনারি হাইপারটেনশন হার্ট ফেইলিউর, ফুসফুসের ক্যান্সার, ফুসফুসে ঘন ঘন সংক্রমণ হতে পারে।
এই রোগ থেকে সেরে উঠতে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। এ ছাড়া ধূমপান ছাড়তে হবে ও নিয়মিত ফুসফুসের ব্যায়াম করুন ও হাঁটুন। আর পুষ্টিকর খাবার খান।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস