দেশে করোনা রোগী আড়াই লাখ ছুঁই ছুঁই
jugantor
দেশে করোনা রোগী আড়াই লাখ ছুঁই ছুঁই

  যুগান্তর রিপোর্ট  

০৬ আগস্ট ২০২০, ১৬:০৭:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশে করোনা রোগী আড়াই লাখ ছুঁই ছুঁই
ফাইল ছবি

দেশে করোনা মহামারীর প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ার পাঁচ মাসের মাথায় শনাক্ত রোগীর সংখ্যা পৌঁছেছে প্রায় আড়াই লাখে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় আরও দুই হাজার ৯৭৭ জনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৪৯ হাজার ৬৫১ জনে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত বুলেটিনে বলা হয়, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে সর্বমোট তিন হাজার ৩০৬ জন মারা গেছেন।

এতদিন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা বুলেটিনে বিভিন্ন তথ্য দিয়ে এদেছেন। তবে আজ তার জায়গায় ছিলেন জাতীয় প্রতিষেধক ও সামাজিক চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের (নিপসম) পরিচালক ডা. বায়েজিদ খুরশিদ রিয়াজ।

বুলেটিনে বলা হয়, গত একদিনে ১৩ হাজার ১৮৯টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২ হাজার ৭০৮টি পিসিআর পরীক্ষা করা হয়। এ পর্যন্ত ১২ লাখ ২৫ হাজার ১২৪টি পিসিআর পরীক্ষা করা হয়।

‘একদিনে শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ২৩ দশমিক ৪৩ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৩৮ শতাংশ।’

বায়েজিদ খুরশিদ রিয়াজ বলেন, এ সময়ে দুই হাজার ৭৪ জন কোভিড-১৯ রোগ থেকে সেরে উঠেছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৪৩ হাজার ৮২৪ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৬১ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে পুরুষ ৩২, নারী সাতজন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ে ৮ মার্চ, তা দুই লাখ পেরিয়ে যায় ১৮ জুলাই। এর মধ্যে ২ জুলাই চার হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা একদিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।

প্রথম সংক্রমণ শনাক্তের ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদফতর। 

২৮ জুলাই সেই সংখ্যা তিন হাজার স্পর্শ করে। এর মধ্যে ৩০ জুন একদিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয় বুলেটিনে, যা একদিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

ডা. বায়েজিদ আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ৮৩ ল্যাবে ১২ হাজার ৭০৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত ১২ লাখ ২৫ হাজার ১২৪টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

দেশে করোনা রোগী আড়াই লাখ ছুঁই ছুঁই

 যুগান্তর রিপোর্ট 
০৬ আগস্ট ২০২০, ০৪:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
দেশে করোনা রোগী আড়াই লাখ ছুঁই ছুঁই
ফাইল ছবি

দেশে করোনা মহামারীর প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ার পাঁচ মাসের মাথায় শনাক্ত রোগীর সংখ্যা পৌঁছেছে প্রায় আড়াই লাখে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় আরও দুই হাজার ৯৭৭ জনের মধ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৪৯ হাজার ৬৫১ জনে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কোভিড-১৯ রোগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত বুলেটিনে বলা হয়, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে সর্বমোট তিন হাজার ৩০৬ জন মারা গেছেন।

এতদিন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা বুলেটিনে বিভিন্ন তথ্য দিয়ে এদেছেন। তবে আজ তার জায়গায় ছিলেন জাতীয় প্রতিষেধক ও সামাজিক চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের (নিপসম) পরিচালক ডা. বায়েজিদ খুরশিদ রিয়াজ।

বুলেটিনে বলা হয়, গত একদিনে ১৩ হাজার ১৮৯টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২ হাজার ৭০৮টি পিসিআর পরীক্ষা করা হয়। এ পর্যন্ত ১২ লাখ ২৫ হাজার ১২৪টি পিসিআর পরীক্ষা করা হয়।

‘একদিনে শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ২৩ দশমিক ৪৩ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৩৮ শতাংশ।’

বায়েজিদ খুরশিদ রিয়াজ বলেন, এ সময়ে দুই হাজার ৭৪ জন কোভিড-১৯ রোগ থেকে সেরে উঠেছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ৪৩ হাজার ৮২৪ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৬১ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে পুরুষ ৩২, নারী সাতজন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ে ৮ মার্চ, তা দুই লাখ পেরিয়ে যায় ১৮ জুলাই। এর মধ্যে ২ জুলাই চার হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়, যা একদিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।

প্রথম সংক্রমণ শনাক্তের ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

২৮ জুলাই সেই সংখ্যা তিন হাজার স্পর্শ করে। এর মধ্যে ৩০ জুন একদিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয় বুলেটিনে, যা একদিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

ডা. বায়েজিদ আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ৮৩ ল্যাবে ১২ হাজার ৭০৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত ১২ লাখ ২৫ হাজার ১২৪টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস