দেশে করোনায় আরও ৪৪ প্রাণহানি, আক্রান্ত ২৬১৭
jugantor
দেশে করোনায় আরও ৪৪ প্রাণহানি, আক্রান্ত ২৬১৭

  অনলাইন ডেস্ক  

১৩ আগস্ট ২০২০, ১৫:৪৫:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা,
ফাইল ছবি

করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট প্রাণহানির সংখ্যা দাঁড়াল তিন হাজার ৫৫৭ জনে।

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এমন তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়, গত একদিনে দুই হাজার ৬১৭ জনের নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছেন। তাদের নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন দুই লাখ ৬৯ হাজার ১১৫ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ১৬২টি।

এদিকে বিধিনিষেধ শিথিল করে অর্থনীতি ধীরে ধীরে সচল করার চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে ফের কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা বাড়তে দেখা যাচ্ছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে মহাদেশটির অনেক দেশই এখন বিভিন্ন শহর ও এলাকায় মাস্ক বাধ্যতামূলক করাসহ নতুন নতুন বিধিনিষেধ আরোপ করছে।

জার্মানি ২৪ ঘণ্টায় এক হাজার ২০০র বেশি কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত করেছে বলে বুধবার দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। দেশটিতে তিন মাসের মধ্যে এদিনই সবচেয়ে বেশি রোগীর সন্ধান মিলল।

কর্মকর্তাদের দাবি, বাসিন্দাদের অনেকে বিভিন্ন অঞ্চলে ছুটি কাটিয়ে ফেরায় সংক্রমণের এ ঊর্ধ্বগতি খানিকটা প্রত্যাশিতই ছিল।

জার্মানির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার দেশটির নাগরিকদের মাদ্রিদ এবং বাস্ক অঞ্চলসহ স্পেনের কিছু অংশে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণের ব্যাপারেও সতর্ক করেছে।

মহামারী শুরুর পর থেকে করোনাভাইরাস এ পর্যন্ত জার্মানির ৯ হাজারেরও বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। 

ফ্রান্সে ২৪ ঘণ্টায় আড়াই হাজারের বেশি মানুষের দেহে ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে মে মাসে লকডাউন তুলে নেয়ার পর একদিনে আর কখনও এত রোগীর দেখা মেলেনি। 

পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত স্পেনে মঙ্গলবার নতুন এক হাজার ৪১৮ জনের দেহে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে।

দেশে করোনায় আরও ৪৪ প্রাণহানি, আক্রান্ত ২৬১৭

 অনলাইন ডেস্ক 
১৩ আগস্ট ২০২০, ০৩:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনা,
ফাইল ছবি

করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট প্রাণহানির সংখ্যা দাঁড়াল তিন হাজার ৫৫৭ জনে।

বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এমন তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়, গত একদিনে দুই হাজার ৬১৭ জনের নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছেন। তাদের নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন দুই লাখ ৬৯ হাজার ১১৫ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ১৬২টি।

এদিকে বিধিনিষেধ শিথিল করে অর্থনীতি ধীরে ধীরে সচল করার চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে ফের কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা বাড়তে দেখা যাচ্ছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে মহাদেশটির অনেক দেশই এখন বিভিন্ন শহর ও এলাকায় মাস্ক বাধ্যতামূলক করাসহ নতুন নতুন বিধিনিষেধ আরোপ করছে।

জার্মানি ২৪ ঘণ্টায় এক হাজার ২০০র বেশি কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত করেছে বলে বুধবার দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। দেশটিতে তিন মাসের মধ্যে এদিনই সবচেয়ে বেশি রোগীর সন্ধান মিলল।

কর্মকর্তাদের দাবি, বাসিন্দাদের অনেকে বিভিন্ন অঞ্চলে ছুটি কাটিয়ে ফেরায় সংক্রমণের এ ঊর্ধ্বগতি খানিকটা প্রত্যাশিতই ছিল।

জার্মানির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার দেশটির নাগরিকদের মাদ্রিদ এবং বাস্ক অঞ্চলসহ স্পেনের কিছু অংশে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণের ব্যাপারেও সতর্ক করেছে।

মহামারী শুরুর পর থেকে করোনাভাইরাস এ পর্যন্ত জার্মানির ৯ হাজারেরও বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে।

ফ্রান্সে ২৪ ঘণ্টায় আড়াই হাজারের বেশি মানুষের দেহে ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে মে মাসে লকডাউন তুলে নেয়ার পর একদিনে আর কখনও এত রোগীর দেখা মেলেনি।

পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত স্পেনে মঙ্গলবার নতুন এক হাজার ৪১৮ জনের দেহে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস