বনানীতে শায়িত হবেন মুর্তজা বশীর
jugantor
বনানীতে শায়িত হবেন মুর্তজা বশীর

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৫ আগস্ট ২০২০, ১১:৫৮:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন। 

শনিবার বাদ আসর জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হবে। 

মুর্তজা বশীরের বড় মেয়ে মুনিরা বশীর গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে আজ বাদ আসর বনানী কবরস্থান মসজিদে তার জানাজা হবে। এরপর বনানী কবরস্থানেই তাকে দাফন করা হবে।

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার সকালে মারা যান এই চিত্রশিল্পী। 

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে মুর্তজা বশীরকে হাসপাতালে নেয়া হয়। তিনি সেখানে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

শুক্রবার তার করোনা পরীক্ষা করা হলে ফলাফল পজিটিভ আসে। শুক্রবার সকাল থেকে তার পালস পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে শনিবার সকাল ৯টা ১০ মিনিটে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গত কয়েক বছর ধরেই কৃত্রিমভাবে অক্সিজেন দিতে হচ্ছিল ৮৮ বছর বয়সী এই চিত্রশিল্পীকে। গত বছর ফুসফুসে সমস্যার কারণে তিনি হৃদরোগেও আক্রান্ত হন।

বহুভাষাবিদ ডক্টর মুহম্মদ শহীদুল্লাহর ছেলে মুর্তজা বশীরের জন্ম ১৯৩২ সালের ১৭ আগস্ট। তিনি ঢাকা গভর্নমেন্ট ইনস্টিটিউট অব আর্টস (বর্তমান চারুকলা ইনস্টিটিউট) থেকে শিক্ষালাভ করেন। 

মুর্তজা বশীর একাধারে চিত্রশিল্পী, কার্টুনিস্ট, কবি, লেখক, গবেষক ছিলেন। তিনি ভাষা আন্দোলনের একজন সক্রিয় কর্মী ছিলেন। ১৯৮০ সালে একুশে পদক ও ২০১৯ সালে স্বাধীনতা পদক পান তিনি।

বনানীতে শায়িত হবেন মুর্তজা বশীর

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৫ আগস্ট ২০২০, ১১:৫৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন।

শনিবার বাদ আসর জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হবে।

মুর্তজা বশীরের বড় মেয়ে মুনিরা বশীর গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে আজ বাদ আসর বনানী কবরস্থান মসজিদে তার জানাজা হবে। এরপর বনানী কবরস্থানেই তাকে দাফন করা হবে।

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার সকালে মারা যান এই চিত্রশিল্পী।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে মুর্তজা বশীরকে হাসপাতালে নেয়া হয়। তিনি সেখানে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

শুক্রবার তার করোনা পরীক্ষা করা হলে ফলাফল পজিটিভ আসে। শুক্রবার সকাল থেকে তার পালস পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে শনিবার সকাল ৯টা ১০ মিনিটে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গত কয়েক বছর ধরেই কৃত্রিমভাবে অক্সিজেন দিতে হচ্ছিল ৮৮ বছর বয়সী এই চিত্রশিল্পীকে। গত বছর ফুসফুসে সমস্যার কারণে তিনি হৃদরোগেও আক্রান্ত হন।

বহুভাষাবিদ ডক্টর মুহম্মদ শহীদুল্লাহর ছেলে মুর্তজা বশীরের জন্ম ১৯৩২ সালের ১৭ আগস্ট। তিনি ঢাকা গভর্নমেন্ট ইনস্টিটিউট অব আর্টস (বর্তমান চারুকলা ইনস্টিটিউট) থেকে শিক্ষালাভ করেন।

মুর্তজা বশীর একাধারে চিত্রশিল্পী, কার্টুনিস্ট, কবি, লেখক, গবেষক ছিলেন। তিনি ভাষা আন্দোলনের একজন সক্রিয় কর্মী ছিলেন। ১৯৮০ সালে একুশে পদক ও ২০১৯ সালে স্বাধীনতা পদক পান তিনি।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস