রাশিয়া থেকে করোনার ভ্যাকসিন কিনছে ভিয়েতনাম
jugantor
রাশিয়া থেকে করোনার ভ্যাকসিন কিনছে ভিয়েতনাম

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ আগস্ট ২০২০, ১৮:১১:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়া থেকে করোনার ভ্যাকসিন কিনছে ভিয়েতনাম
রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ফাইল ছবি

রাশিয়ার করোনা ভ্যাকসিন কিনতে নাম নিবন্ধন করেছে ভিয়েতনাম। পরিস্থিতি সামাল দিতে কমিউনিস্ট পার্টিশাসিত দেশটি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানিয়েছে।  

গত সপ্তাহে স্পুটনিক-ভি নামে বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাস বিরোধী ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিয়েছে রাশিয়া। তবে এই টিকাটি এখন পর্যন্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়নি।

করোনাভাইরাসের এ ভ্যাকসিনটি উদ্ভাবন করেছে রাশিয়ার গামালিয়া ইনস্টিটিউট ও দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। গত মঙ্গলবার সেটির অনুমোদন দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

বিশ্বব্যাপী উদ্বেগ ও সন্দেহ থাকলেও টিকাটির ৫-১৫ কোটি ডোজ পেতে চুক্তি করেছে ভিয়েতনাম। এর একাংশ রাশিয়া ‘অনুদান’ হিসেবে দেবে, বাকিগুলোর দাম দেবে ভিয়েতনাম। 

কবে নাগাদ এ টিকা পাওয়া যাবে এবং টিকার জন্য কত খরচ হয়েছে সে বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হয়নি ভিয়েতনামের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে উদ্ধৃত করে ভিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর মধ্যে ভিয়েতনাম নিজস্ব কোভিড-১৯ টিকা ‍উদ্ভাবনেও কাজ চালিয়ে যাবে।  

করোনাভাইরাসের এ ভ্যাকসিনটি উদ্ভাবন করেছে রাশিয়ার গামালিয়া ইনস্টিটিউট ও দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার সেটির অনুমোদন দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ভ্যাকসিনটি দুই মাসেরও কম মানব পরীক্ষার পর মস্কোর গামালিয়া ইনস্টিটিউট তৈরি করেছে। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই রাশিয়া এই ভ্যাকসিনের ব্যাপকভিত্তিক উৎপাদনে যাবে।

ভ্যাকসিনটির বিষয়ে প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, এটি বেশ কার্যকরভাবে কাজ করছে এবং ভ্যাকসিনটি একটি স্থিতিশীল প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করছে।

প্রথমে স্বাস্থ্যসেবাকর্মীদের জন্য সেপ্টেম্বর থেকে এই ভ্যাকসিনটি সরবরাহ করা হবে। জানুয়ারিতে সবার জন্য এটি উন্মুক্ত করা হবে।

রাশিয়া থেকে করোনার ভ্যাকসিন কিনছে ভিয়েতনাম

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ আগস্ট ২০২০, ০৬:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রাশিয়া থেকে করোনার ভ্যাকসিন কিনছে ভিয়েতনাম
রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ফাইল ছবি

রাশিয়ার করোনা ভ্যাকসিন কিনতে নাম নিবন্ধন করেছে ভিয়েতনাম। পরিস্থিতি সামাল দিতে কমিউনিস্ট পার্টিশাসিত দেশটি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানিয়েছে।

গত সপ্তাহে স্পুটনিক-ভি নামে বিশ্বের প্রথম করোনাভাইরাস বিরোধী ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিয়েছে রাশিয়া। তবে এই টিকাটি এখন পর্যন্ত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়নি।

করোনাভাইরাসের এ ভ্যাকসিনটি উদ্ভাবন করেছে রাশিয়ার গামালিয়া ইনস্টিটিউট ও দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। গত মঙ্গলবার সেটির অনুমোদন দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

বিশ্বব্যাপী উদ্বেগ ও সন্দেহ থাকলেও টিকাটির ৫-১৫ কোটি ডোজ পেতে চুক্তি করেছে ভিয়েতনাম। এর একাংশ রাশিয়া ‘অনুদান’ হিসেবে দেবে, বাকিগুলোর দাম দেবে ভিয়েতনাম।

কবে নাগাদ এ টিকা পাওয়া যাবে এবং টিকার জন্য কত খরচ হয়েছে সে বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হয়নি ভিয়েতনামের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে উদ্ধৃত করে ভিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর মধ্যে ভিয়েতনাম নিজস্ব কোভিড-১৯ টিকা ‍উদ্ভাবনেও কাজ চালিয়ে যাবে।

করোনাভাইরাসের এ ভ্যাকসিনটি উদ্ভাবন করেছে রাশিয়ার গামালিয়া ইনস্টিটিউট ও দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার সেটির অনুমোদন দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ভ্যাকসিনটি দুই মাসেরও কম মানব পরীক্ষার পর মস্কোর গামালিয়া ইনস্টিটিউট তৈরি করেছে। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই রাশিয়া এই ভ্যাকসিনের ব্যাপকভিত্তিক উৎপাদনে যাবে।

ভ্যাকসিনটির বিষয়ে প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, এটি বেশ কার্যকরভাবে কাজ করছে এবং ভ্যাকসিনটি একটি স্থিতিশীল প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করছে।

প্রথমে স্বাস্থ্যসেবাকর্মীদের জন্য সেপ্টেম্বর থেকে এই ভ্যাকসিনটি সরবরাহ করা হবে। জানুয়ারিতে সবার জন্য এটি উন্মুক্ত করা হবে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস