আগামী বছরের শুরুতে পর্যটন ভিসা চালুর পরিকল্পনা সৌদির
jugantor
আগামী বছরের শুরুতে পর্যটন ভিসা চালুর পরিকল্পনা সৌদির

  অনলাইন ডেস্ক  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:৫৪:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

আগামী বছরের শুরুতে পর্যটন ভিসা চালুর পরিকল্পনা সৌদির

সৌদি আরব আগামী বছরের শুরুতেই পর্যটন ভিসা চালু করার পরিকল্পনা নিয়েছে। করোনাভাইরাস ঠেকাতে সরকারের কঠোর পদক্ষেপের মধ্যে গত কয়েক মাস ধরে পর্যটন ভিসা স্থগিত রাখা হয়।

দেশটির পর্যটন মন্ত্রণালয়ের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

সিংহাসনের উত্তরসূরি মোহাম্মদ বিন সালমানের উচ্চাভিলাষী সংস্কার কৌশলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি স্তম্ভ হচ্ছে পর্যটন। মূলত তেলের ওপর থেকে অর্থনৈতিক নির্ভরতা কমিয়ে আনতে চাচ্ছে সৌদি সরকার।

৪৯ দেশের জন্য নতুন ভিসা পদ্ধতি চালু করার পর ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে বিদেশি পর্যটকদের জন্য নিজের দরজা খুলে দিয়েছে দেশটি। ২০২০ সালের মধ্যে মোট জাতীয় উৎপদনের ১০ শতাংশ এই খাত থেকে আনতে চাচ্ছে সৌদি।

একটি ভার্চুয়াল সাক্ষাৎকারে আহমেদ খাতিব বলেন, এখন পর্যন্ত পর্যটন ভিসার জন্য আগামী বছরের শুরুর দিকটি নিয়ে আমরা আলোচনা করছি। যদি পরিস্থিতি আরও ভালো হয় কিংবা টিকাসংশ্লিষ্ট কোনো ইতিবাচক উন্নয়নের খবর আসে, তবে তা আমরা দ্রুতই করে ফেলব।

তিনি বলেন, করোনায় পর্যটন খাত মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। চলতি বছরের তা ৩৫ থেকে ৪৫ শতাংশ পর্যন্ত হ্রাস পেয়েছে। এখন গ্রী০ষ্মে ঘরোয়া পর্যটনের দিকে নজর দেয়া হবে, যা বড় আঘাত থেকে সৌদি অর্থনীতিকে রক্ষা করতে পারবে।

আগামী বছরের শুরুতে পর্যটন ভিসা চালুর পরিকল্পনা সৌদির

 অনলাইন ডেস্ক 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আগামী বছরের শুরুতে পর্যটন ভিসা চালুর পরিকল্পনা সৌদির
ছবি: সংগৃহীত

সৌদি আরব আগামী বছরের শুরুতেই পর্যটন ভিসা চালু করার পরিকল্পনা নিয়েছে। করোনাভাইরাস ঠেকাতে সরকারের কঠোর পদক্ষেপের মধ্যে গত কয়েক মাস ধরে পর্যটন ভিসা স্থগিত রাখা হয়।

দেশটির পর্যটন মন্ত্রণালয়ের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

সিংহাসনের উত্তরসূরি মোহাম্মদ বিন সালমানের উচ্চাভিলাষী সংস্কার কৌশলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি স্তম্ভ হচ্ছে পর্যটন। মূলত তেলের ওপর থেকে অর্থনৈতিক নির্ভরতা কমিয়ে আনতে চাচ্ছে সৌদি সরকার।

৪৯ দেশের জন্য নতুন ভিসা পদ্ধতি চালু করার পর ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে বিদেশি পর্যটকদের জন্য নিজের দরজা খুলে দিয়েছে দেশটি। ২০২০ সালের মধ্যে মোট জাতীয় উৎপদনের ১০ শতাংশ এই খাত থেকে আনতে চাচ্ছে সৌদি।

একটি ভার্চুয়াল সাক্ষাৎকারে আহমেদ খাতিব বলেন, এখন পর্যন্ত পর্যটন ভিসার জন্য আগামী বছরের শুরুর দিকটি নিয়ে আমরা আলোচনা করছি। যদি পরিস্থিতি আরও ভালো হয় কিংবা টিকাসংশ্লিষ্ট কোনো ইতিবাচক উন্নয়নের খবর আসে, তবে তা আমরা দ্রুতই করে ফেলব।

তিনি বলেন, করোনায় পর্যটন খাত মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। চলতি বছরের তা ৩৫ থেকে ৪৫ শতাংশ পর্যন্ত হ্রাস পেয়েছে। এখন গ্রী০ষ্মে ঘরোয়া পর্যটনের দিকে নজর দেয়া হবে, যা বড় আঘাত থেকে সৌদি অর্থনীতিকে রক্ষা করতে পারবে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস