শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল
jugantor
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:২০:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আরও একদফা বাড়ল। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত ছুটি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি জানান, করোনা সংকটকালে পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে হয়েছে। শিক্ষক-শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের কথা ভেবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। আমরা দেখছি, সীমিত পরিসরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যায় কিনা। আগামী দুই সপ্তাহ আমরা দেখব, যদি পরিস্থিতি অনুকূলে আসে, তা হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সীমিত পরিসরে খোলার বিষয়টি বিবেচনা করব। ভারতসহ অন্যান্য দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। সব কিছুই আমরা বিবেচনায় রাখছি।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, করোনার কারণে এবার ১ জানুয়ারি বই উৎসবও হচ্ছে না। সব স্কুলে বই পাঠিয়ে দেয়া হবে।

৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। করোনায় প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ। করোনাভাইরাসের কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। বাতিল করা হয়েছে জেএসসি, পিইসি, এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। নেয়া হবে না বার্ষিক পরীক্ষাও।

সবশেষ ঘোষণা মোতাবেক ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ছিল। সেটি আরও দুই সপ্তাহ বাড়িয়ে ১৪ নভেম্বর করা হয়েছে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল
ফাইল ছবি

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আরও একদফা বাড়ল। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত ছুটি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। 

তিনি জানান, করোনা সংকটকালে পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে হয়েছে। শিক্ষক-শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের কথা ভেবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। আমরা দেখছি, সীমিত পরিসরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যায় কিনা। আগামী দুই সপ্তাহ আমরা দেখব, যদি পরিস্থিতি অনুকূলে আসে, তা হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সীমিত পরিসরে খোলার বিষয়টি বিবেচনা করব। ভারতসহ অন্যান্য দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। সব কিছুই আমরা বিবেচনায় রাখছি।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, করোনার কারণে এবার ১ জানুয়ারি বই উৎসবও হচ্ছে না।  সব স্কুলে বই পাঠিয়ে দেয়া হবে। 

৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। করোনায় প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ। করোনাভাইরাসের কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। বাতিল করা হয়েছে জেএসসি, পিইসি, এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। নেয়া হবে না বার্ষিক পরীক্ষাও।  

সবশেষ ঘোষণা মোতাবেক ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ছিল। সেটি আরও দুই সপ্তাহ বাড়িয়ে ১৪ নভেম্বর করা হয়েছে। 

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস