উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির রিপোর্ট করোনা ‘পজিটিভ’
jugantor
উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির রিপোর্ট করোনা ‘পজিটিভ’

  হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

২৩ নভেম্বর ২০২০, ১৮:৩৬:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার হোমনায় জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মারা যাওয়া মো. মহিউদ্দিন (৫০) নামের এক ব্যক্তি নমুনা পরীক্ষায় করোনা রিপোর্ট ‘পজিটিভ’ হয়েছে।সোমবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

মৃত মহিউদ্দিন উপজেলার ছয়ফুল্লাকান্দি গ্রামের মো. শহিদুল ইসলামের ছেলে।

মৃতের পরিবার ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, মহিউদ্দন জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার করোনা পরীক্ষার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা দেন। শুক্রবার ভোরে তিনি মারা যান। পরে তার লাশ ছয়ফুল্লাকান্দি কবরস্থানে দাফন করা হয়। সোমবার সকালে নমুনা পরীক্ষার ফল হাতে আসে। এতে দেখা গেছে, তিনি করোনায় সংক্রমিত হয়েছিলেন।

হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, উপজেলা থেকে চারজনের নমুনা সংগ্রহ করে কুমিল্লা স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটে পাঠানো হয়। সেখান থেকে পাঠানো প্রতিবেদনে ১ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। কিন্তু সেই ব্যক্তি রিপোর্টের আগেই মারা যান এবং তার মা অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আবদুছ ছালাম সিকদার বলেন, নতুন শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে নমুনা পরীক্ষার ফল আসার আগেই একজন মারা গেছেন। তার মা অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন। খোঁজ নিয়ে আক্রান্ত ব্যক্তি যদি থাকে তাদের বাড়ি ও আশপাশের বাড়ি লকডাউনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির রিপোর্ট করোনা ‘পজিটিভ’

 হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
২৩ নভেম্বর ২০২০, ০৬:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার হোমনায় জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মারা যাওয়া মো. মহিউদ্দিন (৫০) নামের এক ব্যক্তি নমুনা পরীক্ষায় করোনা রিপোর্ট ‘পজিটিভ’ হয়েছে। সোমবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

মৃত মহিউদ্দিন উপজেলার ছয়ফুল্লাকান্দি গ্রামের মো. শহিদুল ইসলামের ছেলে।

মৃতের পরিবার ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, মহিউদ্দন জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। এ অবস্থায় বৃহস্পতিবার করোনা পরীক্ষার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা দেন। শুক্রবার ভোরে তিনি মারা যান। পরে তার লাশ ছয়ফুল্লাকান্দি কবরস্থানে দাফন করা হয়। সোমবার সকালে নমুনা পরীক্ষার ফল হাতে আসে। এতে দেখা গেছে, তিনি করোনায় সংক্রমিত হয়েছিলেন।

হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, উপজেলা থেকে চারজনের নমুনা সংগ্রহ করে কুমিল্লা স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটে পাঠানো হয়। সেখান থেকে পাঠানো প্রতিবেদনে ১ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। কিন্তু সেই ব্যক্তি রিপোর্টের আগেই মারা যান এবং তার মা অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আবদুছ ছালাম সিকদার বলেন, নতুন শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে নমুনা পরীক্ষার ফল আসার আগেই একজন মারা গেছেন। তার মা অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন। খোঁজ নিয়ে আক্রান্ত ব্যক্তি যদি থাকে তাদের বাড়ি ও আশপাশের বাড়ি লকডাউনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস