যে কারণে করোনা রোগীরা স্বাদ-গন্ধ পান না
jugantor
যে কারণে করোনা রোগীরা স্বাদ-গন্ধ পান না
নাক দিয়ে মস্তিষ্কেও হানা দিচ্ছে ভাইরাস!

  অনলাইন ডেস্ক  

০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:৫৮:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাস শুধু শ্বাসনালি ও ফুসফুস নয়, মস্তিষ্কেও হানা দিচ্ছে। আক্রমণ করছে কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্দ্রকে। তার ফলেই হারিয়ে যাচ্ছে স্বাদ ও গন্ধ। করোনা রোগীদের এক-তৃতীয়াংশের এ উপসর্গ দেখা গেছে।

মাথাব্যথা, পেশির যন্ত্রণার মতো নানা উপসর্গে ভুগছেন অনেকে। বিষয়টি আগে জানা গেলেও কীভাবে ভাইরাস মস্তিষ্কে পৌঁছাচ্ছে, তা নিয়ে এতদিন স্পষ্ট কিছু জানা যায়নি। খবর ইয়াহু নিউজের।

বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি গবেষণা চালিয়ে জানিয়েছেন, নাক দিয়েই ভাইরাস পৌঁছে যাচ্ছে আমাদের মস্তিষ্কে। ফলে এ ধরনের উপসর্গে ভুগছেন মানুষ। জার্মানির বার্লিন বিশ্ববিদ্যালয়ে এক গবেষণায় সম্প্রতি এমনই তথ্য উঠে এসেছে।

নেচার নিউরো-সায়েন্সেস পত্রিকায় প্রকাশিত ওই রিপোর্টে জানা যায়, পরীক্ষা চলাকালীন কোনো কোনো রোগীর ন্যাসো ফ্যারিংসে ভাইরাসের কিছু উপাদান মিলেছে। একই উপাদান মিলেছে ওই রোগীর মস্তিষ্কেও। সেই সূত্র ধরেই বিজ্ঞানীরা এ সিদ্ধান্তে এসেছেন।

করোনায় আমেরিকার ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা ফাইজার এবং মডার্না ‘ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) কাছে তাদের তৈরি সম্ভাব্য ভ্যাকসিনটিকে দ্রুত ছাড়পত্র দেয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছে।

বড়দিনের আগেই মিলতে পারে অনুমতি। সোমবার দেশের স্বাস্থ্যসচিব অ্যালেক্স আজ়ার সেই জল্পনায় সরকারি সিলমোহর দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, বড়দিনের আগে দুটি ভ্যাকসিনই আসতে পারে।

আমেরিকার পাশাপাশি ইউরোপে ভ্যাকসিনে ছাড়পত্র চেয়ে আগেই আবেদন জানিয়েছিল মডার্না। সোমবার ফাইজার ও তার সহযোগী জার্মান সংস্থা বায়োএনটেক ইউরোপে তাদের তৈরি সম্ভাব্য ভ্যাকসিনে ছাড়পত্রের জন্য আবেদন জানিয়েছে।

যে কারণে করোনা রোগীরা স্বাদ-গন্ধ পান না

নাক দিয়ে মস্তিষ্কেও হানা দিচ্ছে ভাইরাস!
 অনলাইন ডেস্ক 
০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:৫৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাস শুধু শ্বাসনালি ও ফুসফুস নয়, মস্তিষ্কেও হানা দিচ্ছে।  আক্রমণ করছে কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্দ্রকে। তার ফলেই হারিয়ে যাচ্ছে স্বাদ ও গন্ধ। করোনা রোগীদের এক-তৃতীয়াংশের এ উপসর্গ দেখা গেছে।

মাথাব্যথা, পেশির যন্ত্রণার মতো নানা উপসর্গে ভুগছেন অনেকে। বিষয়টি আগে জানা গেলেও কীভাবে ভাইরাস মস্তিষ্কে পৌঁছাচ্ছে, তা নিয়ে এতদিন স্পষ্ট কিছু জানা যায়নি। খবর ইয়াহু নিউজের।

বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি গবেষণা চালিয়ে জানিয়েছেন, নাক দিয়েই ভাইরাস পৌঁছে যাচ্ছে আমাদের মস্তিষ্কে। ফলে এ ধরনের উপসর্গে ভুগছেন মানুষ।  জার্মানির বার্লিন বিশ্ববিদ্যালয়ে এক গবেষণায় সম্প্রতি এমনই তথ্য উঠে এসেছে।

নেচার নিউরো-সায়েন্সেস পত্রিকায় প্রকাশিত ওই রিপোর্টে জানা যায়, পরীক্ষা চলাকালীন কোনো কোনো রোগীর ন্যাসো ফ্যারিংসে ভাইরাসের কিছু উপাদান মিলেছে। একই উপাদান মিলেছে ওই রোগীর মস্তিষ্কেও। সেই সূত্র ধরেই বিজ্ঞানীরা এ সিদ্ধান্তে এসেছেন।

করোনায় আমেরিকার ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা ফাইজার এবং মডার্না ‘ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) কাছে তাদের তৈরি সম্ভাব্য ভ্যাকসিনটিকে দ্রুত ছাড়পত্র দেয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছে।

বড়দিনের আগেই মিলতে পারে অনুমতি। সোমবার দেশের স্বাস্থ্যসচিব অ্যালেক্স আজ়ার সেই জল্পনায় সরকারি সিলমোহর দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, বড়দিনের আগে দুটি ভ্যাকসিনই আসতে পারে।

আমেরিকার পাশাপাশি ইউরোপে ভ্যাকসিনে ছাড়পত্র চেয়ে আগেই আবেদন জানিয়েছিল মডার্না। সোমবার ফাইজার ও তার সহযোগী জার্মান সংস্থা বায়োএনটেক ইউরোপে তাদের তৈরি সম্ভাব্য ভ্যাকসিনে ছাড়পত্রের জন্য আবেদন জানিয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস