মৃত্যুপুরী যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় প্রাণহানির নতুন মাইলফলক 
jugantor
মৃত্যুপুরী যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় প্রাণহানির নতুন মাইলফলক 

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৯ জানুয়ারি ২০২১, ১১:৫৭:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

মৃত্যুপুরী যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় প্রাণহানির নতুন মাইলফলক 

কোভিড-১৯ মহামারীতে বিপর্যস্ত যুক্তরাষ্ট্র। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে দেশটিতে তাণ্ডব চালাচ্ছে এই মহামারী। কোনো কোনো অঞ্চলে দ্বিতীয় ও তৃতীয় ঢেউ দেখা দিয়েছে। রোজ হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। এরই মধ্যে করোনায় মৃত্যুর নতুন মাইলফলক হয়েছে দেশটিতে। করোনায় মৃত্যু চার লাখের গণ্ডি পেরিয়ে গেছে। এই তথ্য ওয়ার্ল্ডওমিটারসের।

বিশ্বের সব দেশ ও অঞ্চলের করোনা সংক্রমণের হালনাগাদ তথ্য সংরক্ষণ করা আন্তর্জাতিক এই সংস্থার ওয়েবসাইটের তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন দুই কোটি ৪৬ লাখ ২৬ হাজার ৩৭৬ জন। আর মৃত্যু হয়েছে চার লাখ আট হাজার ৬২০ জনের। আর করোনা থেকে সেরে উঠেছেন এক কোটি ৪৫ লাখ ৫১ হাজার ৬৮৫ জন।

ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্যানুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ক্যালিফোর্নিয়ায়। দ্বিতীয় টেক্সাসে, তৃতীয় ফ্লোরিডা, চতুর্থ নিউইয়র্ক ও পঞ্চম ইলিনয়। আর দেশটিতে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে নিউইয়র্কে; এই সংখ্যা ৪১ হাজারের বেশি।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। চীনে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যু হয় গত বছরের ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি।

করোনা প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে ৩০ জানুয়ারি বৈশ্বিক স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাকে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২১৩ দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছেন করোনাভাইরাস। ব্রিটেনসহ বেশ কয়েকটি দেশে করোনার দ্বিতীয় ধরন দেখা দিয়েছে।

মৃত্যুপুরী যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় প্রাণহানির নতুন মাইলফলক 

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৯ জানুয়ারি ২০২১, ১১:৫৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মৃত্যুপুরী যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় প্রাণহানির নতুন মাইলফলক 
ছবি: সংগৃহীত

কোভিড-১৯ মহামারীতে বিপর্যস্ত যুক্তরাষ্ট্র। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে দেশটিতে তাণ্ডব চালাচ্ছে এই মহামারী। কোনো কোনো অঞ্চলে দ্বিতীয় ও তৃতীয় ঢেউ দেখা দিয়েছে। রোজ হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন।  এরই মধ্যে করোনায় মৃত্যুর নতুন মাইলফলক হয়েছে দেশটিতে। করোনায় মৃত্যু চার লাখের গণ্ডি পেরিয়ে গেছে। এই তথ্য ওয়ার্ল্ডওমিটারসের।

বিশ্বের সব দেশ ও অঞ্চলের করোনা সংক্রমণের হালনাগাদ তথ্য সংরক্ষণ করা আন্তর্জাতিক এই সংস্থার ওয়েবসাইটের তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন দুই কোটি ৪৬ লাখ ২৬ হাজার ৩৭৬ জন। আর মৃত্যু হয়েছে চার লাখ আট হাজার ৬২০ জনের। আর করোনা থেকে সেরে উঠেছেন এক কোটি ৪৫ লাখ ৫১ হাজার ৬৮৫ জন। 

ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্যানুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ক্যালিফোর্নিয়ায়। দ্বিতীয় টেক্সাসে, তৃতীয় ফ্লোরিডা, চতুর্থ নিউইয়র্ক ও পঞ্চম ইলিনয়। আর দেশটিতে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে নিউইয়র্কে; এই সংখ্যা ৪১ হাজারের বেশি।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। চীনে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যু হয় গত বছরের ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি।

করোনা প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে ৩০ জানুয়ারি বৈশ্বিক স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গত বছরের ১১ মার্চ করোনাকে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২১৩ দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছেন করোনাভাইরাস। ব্রিটেনসহ বেশ কয়েকটি দেশে করোনার দ্বিতীয় ধরন দেখা দিয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১