করোনার অ্যান্টিবডি পরীক্ষার অনুমতি দিল সরকার
jugantor
করোনার অ্যান্টিবডি পরীক্ষার অনুমতি দিল সরকার

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:৫০:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ রোগীদের অ্যান্টিবডি পরীক্ষা নিয়ে দীর্ঘ বিতর্কের পর এই টেস্টের অনুমতি দিয়েছে সরকার। এখন থেকে কিট দিয়ে অ্যান্টিবডি টেস্ট করা যাবে।

সরকারি এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। রোববার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমতি দেওয়ার দাবি ছিল বহুদিনে। এই পরীক্ষার অনুমতি দেওয়া হলো। আজ আপনাদের যখন বললাম, তখন থেকেই এটি চালু হয়ে গেল।

শরীরে নির্দিষ্ট কোনো রোগের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে কিনা, তা দেখতে নমুনা হিসেবে রক্ত নিয়ে অ্যান্টিবডি টেস্ট করা হয়।

আজকের সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ভারত থেকে ২০ লাখ করোনার ভ্যাকসিন আমরা পেয়েছি। আগামীকাল (সোমবার) আমাদের আরও ৫০ লাখ ভ্যাকসিন আসবে বলে আশা করছি। এ জন্য সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।’

বাংলাদেশ সরকারিভাবে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার তিন কোটি ডোজ কিনছে। এর প্রথম চালান কাল আসবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন মন্ত্রী।

সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে সরকারের করা চুক্তি অনুযায়ী, ওই তিন কোটি ডোজ টিকা বাংলাদেশ পাবে ছয় মাসের মধ্যে। বাংলাদেশে সেরাম ইনস্টিটিউটের টিকার ‘ডিস্ট্রিবিউটর’ হিসাবে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ করে টিকা সরবরাহ করবে। এছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিনস অ্যান্ড ইমিউনাইজেশনস বা গ্যাভি এবং কোয়ালিশন ফর এপিডেমিক প্রিপেয়ার্ডনেস ইনোভেশনসের গড়া প্ল্যাটফর্ম কোভ্যাক্স-এর আওতায় আরও আড়াই কোটি ডোজ টিকা আগামী জুনের মধ্যে বাংলাদেশ পাবে বলে সরকার আশা করছে।

প্রসঙ্গত, দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ৮ মার্চ। প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ।

করোনার অ্যান্টিবডি পরীক্ষার অনুমতি দিল সরকার

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৪ জানুয়ারি ২০২১, ০৩:৫০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ রোগীদের অ্যান্টিবডি পরীক্ষা নিয়ে দীর্ঘ বিতর্কের পর এই টেস্টের অনুমতি দিয়েছে সরকার। এখন থেকে কিট দিয়ে অ্যান্টিবডি টেস্ট করা যাবে। 

সরকারি এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। রোববার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, অ্যান্টিবডি টেস্টের অনুমতি দেওয়ার দাবি ছিল বহুদিনে। এই পরীক্ষার অনুমতি দেওয়া হলো। আজ আপনাদের যখন বললাম, তখন থেকেই এটি চালু হয়ে গেল।

শরীরে নির্দিষ্ট কোনো রোগের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে কিনা, তা দেখতে নমুনা হিসেবে রক্ত নিয়ে অ্যান্টিবডি টেস্ট করা হয়।

আজকের সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ভারত থেকে ২০ লাখ করোনার ভ্যাকসিন আমরা পেয়েছি। আগামীকাল (সোমবার) আমাদের আরও ৫০ লাখ ভ্যাকসিন আসবে বলে আশা করছি। এ জন্য সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।’

বাংলাদেশ সরকারিভাবে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার তিন কোটি ডোজ কিনছে।  এর প্রথম চালান কাল আসবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন মন্ত্রী। 

সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে সরকারের করা চুক্তি অনুযায়ী, ওই তিন কোটি ডোজ টিকা বাংলাদেশ পাবে ছয় মাসের মধ্যে। বাংলাদেশে সেরাম ইনস্টিটিউটের টিকার ‘ডিস্ট্রিবিউটর’ হিসাবে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস প্রতি মাসে ৫০ লাখ ডোজ করে টিকা সরবরাহ করবে। এছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিনস অ্যান্ড ইমিউনাইজেশনস বা গ্যাভি এবং কোয়ালিশন ফর এপিডেমিক প্রিপেয়ার্ডনেস ইনোভেশনসের গড়া প্ল্যাটফর্ম কোভ্যাক্স-এর আওতায় আরও আড়াই কোটি ডোজ টিকা আগামী জুনের মধ্যে বাংলাদেশ পাবে বলে সরকার আশা করছে।  

প্রসঙ্গত, দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ৮ মার্চ। প্রথম মৃত্যু হয় ১৮ মার্চ।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১