ভারতে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পরই মৃত্যু
jugantor
ভারতে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পরই মৃত্যু

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৩ মার্চ ২০২১, ২২:৩৯:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পরই মৃত্যু

ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে করোনাভাইরাস টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

ভিবান্ডির ৪৫ বছর বয়সি সুখদেব কিরদাত মঙ্গলবার মারা গেছেন বলে জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

একজন চক্ষু বিশেষজ্ঞের গাড়িচালকের কাজ করা কিরদাতকে টিকার দ্বিতীয় ডোজটি দেওয়ার পর একটি পর্যবেক্ষণ কক্ষে রাখা হয়েছিল, সেখানে প্রায় ১৫ মিনিট পর তিনি অচেতন হয়ে পড়েন।

তাকে পার্শ্ববর্তী ইন্দিরা গান্ধী মেমোরিয়াল হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা দুই সন্তানের এই জনককে মৃত ঘোষণা করেন। ২৮ জানুয়ারি তিনি টিকার প্রথম ডোজটি নিয়েছিলেন।

ইন্দিরা গান্ধী হাসপাতালের চিকিৎসক কে আর খারাত বলেছেন, এক মাস আগে টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন তিনি তখন তার কোনো সমস্যা হয়নি। এবার ডোজ নেওয়ার আগে তাকে ফুল চেকআপ করানো হয়েছিল।

অনেক বছর ধরে তিনি রক্তচাপে ভুগছেন এমনটি দেখেছি আমরা। তার পা ফোলা থাকার মতো লক্ষণ ছিল, কিন্তু তার রক্তচাপ ও অক্সিজেনের মাত্রা স্বাভাবিক ছিল। কী কারণে তার মৃত্যু হল তা বলা কঠিন। তা নির্ণয় করতে ময়নাতদন্ত করতে হবে।

ভারতে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পরই মৃত্যু

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৩ মার্চ ২০২১, ১০:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভারতে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার পরই মৃত্যু
ছবি: এনডিটিভি

ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে করোনাভাইরাস টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। 

ভিবান্ডির ৪৫ বছর বয়সি সুখদেব কিরদাত মঙ্গলবার মারা গেছেন বলে জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস। 

একজন চক্ষু বিশেষজ্ঞের গাড়িচালকের কাজ করা কিরদাতকে টিকার দ্বিতীয় ডোজটি দেওয়ার পর একটি পর্যবেক্ষণ কক্ষে রাখা হয়েছিল, সেখানে প্রায় ১৫ মিনিট পর তিনি অচেতন হয়ে পড়েন। 

তাকে পার্শ্ববর্তী ইন্দিরা গান্ধী মেমোরিয়াল হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা দুই সন্তানের এই জনককে মৃত ঘোষণা করেন। ২৮ জানুয়ারি তিনি টিকার প্রথম ডোজটি নিয়েছিলেন।

ইন্দিরা গান্ধী হাসপাতালের চিকিৎসক কে আর খারাত বলেছেন, এক মাস আগে টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন তিনি তখন তার কোনো সমস্যা হয়নি। এবার ডোজ নেওয়ার আগে তাকে ফুল চেকআপ করানো হয়েছিল। 

অনেক বছর ধরে তিনি রক্তচাপে ভুগছেন এমনটি দেখেছি আমরা। তার পা ফোলা থাকার মতো লক্ষণ ছিল, কিন্তু তার রক্তচাপ ও অক্সিজেনের মাত্রা স্বাভাবিক ছিল। কী কারণে তার মৃত্যু হল তা বলা কঠিন। তা নির্ণয় করতে ময়নাতদন্ত করতে হবে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস