শেবাচিম হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ৯ জনের মৃত্যু
jugantor
শেবাচিম হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ৯ জনের মৃত্যু

  বরিশাল ব্যুরো  

১৩ এপ্রিল ২০২১, ২২:২২:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনা ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৯ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে তিনজন ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৬ জন মারা গেছেন।

উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের নমুনা সংগ্রহ করে আরটি পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. আব্দুর রাজ্জাক।

মঙ্গলবার সকালে হাসপাতাল থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন ও করোনা ওয়ার্ডে ২৮ জন রোগী ভর্তি হয়েছে। ছারপত্র দেওয়া হয়েছে মাত্র ১০ জনকে। বর্তমানে এ দুটি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৬১ জন। এর মধ্যে করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩৯ জন।

উল্লেখ্য, গত বছর থেকে এ পর্যন্ত শেবাচিম হাসপাতালের আইসোলেশন ও করোনা ওয়ার্ডে ৩ হাজার ৭০১ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। যার মধ্যে করোনায় আক্রান্ত ছিলেন ১ হাজার ১০৩ জন। মোট রোগীর মধ্যে ৩ হাজার ৪ জন রোগী এ হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন। যার মধ্যে করোনার রোগী ছিলেন ৯০৬ জন।

এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোট রোগীর মধ্যে ১৫৭ জন করোনা ওয়ার্ডে ও ৩৭৯ জন রোগী আইসোলেশন ওয়ার্ডে মৃত্যুবরণ করেছেন।

এছাড়া মৃত্যুবরণকারী ২১ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে প্রেরণ করা হয়েছে। এ নিয়ে হাসপাতালের আইসোলেশন ও করোনা ওয়ার্ডে মোট ৫৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

শেবাচিম হাসপাতালে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ৯ জনের মৃত্যু

 বরিশাল ব্যুরো 
১৩ এপ্রিল ২০২১, ১০:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনা ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৯ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে তিনজন ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৬ জন মারা গেছেন।

উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের নমুনা সংগ্রহ করে আরটি পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. আব্দুর রাজ্জাক।

মঙ্গলবার সকালে হাসপাতাল থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন ও করোনা ওয়ার্ডে ২৮ জন রোগী ভর্তি হয়েছে। ছারপত্র দেওয়া হয়েছে মাত্র ১০ জনকে। বর্তমানে এ দুটি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৬১ জন। এর মধ্যে করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩৯ জন।

উল্লেখ্য, গত বছর থেকে এ পর্যন্ত শেবাচিম হাসপাতালের আইসোলেশন ও করোনা ওয়ার্ডে ৩ হাজার ৭০১ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। যার মধ্যে করোনায় আক্রান্ত ছিলেন ১ হাজার ১০৩ জন। মোট রোগীর মধ্যে ৩ হাজার ৪ জন রোগী এ হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন। যার মধ্যে করোনার রোগী ছিলেন ৯০৬ জন।

এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোট রোগীর মধ্যে ১৫৭ জন করোনা ওয়ার্ডে ও ৩৭৯ জন রোগী আইসোলেশন ওয়ার্ডে মৃত্যুবরণ করেছেন।

এছাড়া মৃত্যুবরণকারী ২১ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে প্রেরণ করা হয়েছে। এ নিয়ে হাসপাতালের আইসোলেশন ও করোনা ওয়ার্ডে মোট ৫৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস