আজ ব্যাংক খোলা
jugantor
আজ ব্যাংক খোলা

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৯:২৪:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

সর্বাত্মক লকডাউন চললেও আজ থেকে সব ব্যাংক খোলা থাকবে। ব্যাংকিং লেনদেন চলবে রোজ সকাল ১০টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এক জরুরি সভায় মঙ্গলবার এ সিদ্ধান্ত হয়।

ফলো লকডাউনে সরকারি ছুটির দিন ছাড়া অন্য দিনগুলোতে সীমিত পরিসরে ব্যাংকের লেনদেন চালু থাকবে।

নতুন সময় অনুযায়ী, ব্যাংক খোলা থাকবে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত। তবে লেনদেন চলবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনায় বলা হয়, সিটি করপোরেশন এলাকায় ব্যাংকের প্রতিটি শাখা একদিন পরপর খোলা থাকবে। অর্থাৎ শাখাগুলো একদিন বন্ধ থাকলে পরের দিন খোলা থাকবে। এই নিয়মে চলবে উপজেলা পর্যায়ের শাখাতেও। জেলা পর্যায়ে সদর শাখা খোলা থাকবে। আর বৈদেশিক বাণিজ্য শাখাগুলো খোলা থাকবে নিয়মিত।

অর্থাৎ সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়া ১৫ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত এই সময়ে ব্যাংকিং কার্যক্রম চলবে।

প্রসঙ্গত, কোভিড সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে পরবর্তী সাত দিনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। এই সময় আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কথা বলা হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকও সোমবার (১২ এপ্রিল) এক প্রজ্ঞাপনে এক সপ্তাহের জন্য দেশের সব ব্যাংকের শাখা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়। এই সময়ে কেবল স্থলবন্দর, সমুদ্রবন্দর ও কাস্টমসের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট শাখাগুলো খোলা রাখার কথা বলা হয়। পরে অপর আদেশে ব্যাংক খোলা রাখার কথা ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

আজ ব্যাংক খোলা

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৯:২৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সর্বাত্মক লকডাউন চললেও আজ থেকে সব ব্যাংক খোলা থাকবে। ব্যাংকিং লেনদেন চলবে রোজ সকাল ১০টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এক জরুরি সভায় মঙ্গলবার এ সিদ্ধান্ত হয়।

ফলো লকডাউনে সরকারি ছুটির দিন ছাড়া অন্য দিনগুলোতে সীমিত পরিসরে ব্যাংকের লেনদেন চালু থাকবে।

নতুন সময় অনুযায়ী, ব্যাংক খোলা থাকবে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত। তবে লেনদেন চলবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনায় বলা হয়, সিটি করপোরেশন এলাকায় ব্যাংকের প্রতিটি শাখা একদিন পরপর খোলা থাকবে। অর্থাৎ শাখাগুলো একদিন বন্ধ থাকলে পরের দিন খোলা থাকবে। এই নিয়মে চলবে উপজেলা পর্যায়ের শাখাতেও। জেলা পর্যায়ে সদর শাখা খোলা থাকবে। আর বৈদেশিক বাণিজ্য শাখাগুলো খোলা থাকবে নিয়মিত।

অর্থাৎ সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়া ১৫ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত এই সময়ে ব্যাংকিং কার্যক্রম চলবে।

প্রসঙ্গত, কোভিড সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে পরবর্তী সাত দিনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। এই সময় আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কথা বলা হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকও সোমবার (১২ এপ্রিল) এক প্রজ্ঞাপনে এক সপ্তাহের জন্য দেশের সব ব্যাংকের শাখা বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়। এই সময়ে কেবল স্থলবন্দর, সমুদ্রবন্দর ও কাস্টমসের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট শাখাগুলো খোলা রাখার কথা বলা হয়। পরে অপর আদেশে ব্যাংক খোলা রাখার কথা ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন