করোনায় মৃত্যুপুরী ভারত, একদিনে ১০৩৮ জনের প্রাণহানি
jugantor
করোনায় মৃত্যুপুরী ভারত, একদিনে ১০৩৮ জনের প্রাণহানি

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৫ এপ্রিল ২০২১, ১৩:৪৫:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ সংক্রমণের মৃত্যুর মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে ভারতে। গত কয়েকদিন ধরে দেশটিতে হাজারের বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১০৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে দেশটির প্রভাবশালী গণমাধ্যম এনডিটিভি ও টাইমস অব ইন্ডিয়া।

গত একদিনে ভারতে নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭৩৯ জন। এটি দেশটিতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের রেকর্ড। এ নিয়ে দেশটিতে মোট ১ কোটি ৪০ লাখ ৭৪ হাজার ৫৬৪ জন আক্রান্ত হলেন। আর অ্যাকটিভ করোনা রোগী ১৪ লাখের মাইলফলক ছাড়িয়ে গেছে। মোট একটিভ রোগী ১৪ লাখ ৭১ হাজার ৮৭৭ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ১০৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ১ লাখ ৭৩ হাজার ১২৩ জনে। গত ৭ মাসে এটি সর্বোচ্চ মৃত্যুর পরিসংখ্যান।

আলজাজিরার খবরে বলা হয়েছে করোনায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। বহু হাসপাতালে করোনা রোগীদের জন্য শয্যা নেই, অক্সিজেনের ব্যবস্থা নেই।

করোনা সংক্রমণের দিক থেকে ভারত এখন বিশ্বে দ্বিতীয়। সবার শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনায় ভারতের সবচেয়ে বিপর্যস্ত রাজ্য মহারাষ্ট্র। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যটিতে নতুন করে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৫৮ হাজার ৯৫২ জনের শরীরে। এ সময়ে মৃত্যু হয়েছে ২৭৮ জনের। এমন পরিস্থিতিতে বুধবার থেকে ১৫ দিনের জন্য কঠোর লকডাউনের ঘোষণা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধভ ঠাকরে।

সংক্রমণ বিবেচনায় মহারাষ্ট্রের পরেই রয়েছে কেরালা, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু এবং অন্ধ্রপ্রদেশ।

এদিন দিল্লিতেও সর্বোচ্চ ১৭ হাজার ২৮২ জন শনাক্ত এবং ১০৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় টিকাদান কর্মসূচি আরও জোরদারের কথা ভাবছে ভারত সরকার। প্রয়োজনে রাশিয়ার উদ্ভাবিত স্পুটনিক টিকাও আনার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

করোনায় মৃত্যুপুরী ভারত, একদিনে ১০৩৮ জনের প্রাণহানি

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৫ এপ্রিল ২০২১, ০১:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ সংক্রমণের মৃত্যুর মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে ভারতে।  গত কয়েকদিন ধরে দেশটিতে হাজারের বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১০৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে দেশটির প্রভাবশালী গণমাধ্যম এনডিটিভি ও টাইমস অব ইন্ডিয়া।

গত একদিনে ভারতে নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭৩৯ জন।  এটি দেশটিতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের রেকর্ড। এ নিয়ে দেশটিতে মোট ১ কোটি ৪০ লাখ ৭৪ হাজার ৫৬৪ জন আক্রান্ত হলেন।  আর অ্যাকটিভ করোনা রোগী ১৪ লাখের মাইলফলক ছাড়িয়ে গেছে।  মোট একটিভ রোগী ১৪ লাখ ৭১ হাজার ৮৭৭ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ১০৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ১ লাখ ৭৩ হাজার ১২৩ জনে। গত ৭ মাসে এটি সর্বোচ্চ মৃত্যুর পরিসংখ্যান।

আলজাজিরার খবরে বলা হয়েছে করোনায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।  বহু হাসপাতালে করোনা রোগীদের জন্য শয্যা নেই, অক্সিজেনের ব্যবস্থা নেই। 

করোনা সংক্রমণের দিক থেকে ভারত এখন বিশ্বে দ্বিতীয়। সবার শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনায় ভারতের সবচেয়ে বিপর্যস্ত রাজ্য মহারাষ্ট্র। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যটিতে নতুন করে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৫৮ হাজার ৯৫২ জনের শরীরে। এ সময়ে মৃত্যু হয়েছে ২৭৮ জনের। এমন পরিস্থিতিতে বুধবার থেকে ১৫ দিনের জন্য কঠোর লকডাউনের ঘোষণা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধভ ঠাকরে।

সংক্রমণ বিবেচনায় মহারাষ্ট্রের পরেই রয়েছে কেরালা, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু এবং অন্ধ্রপ্রদেশ।

এদিন দিল্লিতেও সর্বোচ্চ ১৭ হাজার ২৮২ জন শনাক্ত এবং ১০৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় টিকাদান কর্মসূচি আরও জোরদারের কথা ভাবছে ভারত সরকার। প্রয়োজনে রাশিয়ার উদ্ভাবিত স্পুটনিক টিকাও আনার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস