ভারতে বয়স ১৮ হলেই মিলবে করোনার টিকা
jugantor
ভারতে বয়স ১৮ হলেই মিলবে করোনার টিকা

  যুগান্তর ডেস্ক  

২০ এপ্রিল ২০২১, ১৬:২৮:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ মহামারিতে বিপর্যস্ত ভারত। সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা পেতে দেশব্যাপী টিকাদান কর্মসূচি চলছে। তবুও নিয়ন্ত্রণে নেই পরিস্থিতি। রোজ দুই লাখের বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন। হাজার হাজার মানুষ মারা যাচ্ছেন।

এমতাবস্থায় আগামী ১ মে থেকে গোটা ভারতে ১৮ বছরের বেশি বয়সী সবাইকে টিকা দেওয়া হবে। গতকাল সোমবার এমন ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

বর্তমানে ভারতে শুধুমাত্র করোনা প্রতিরোধে সম্মুখসারির লোকজনকে টিকা দেওয়া চলছে। এখন ভারতের স্বাস্থ্যকর্মী, সম্মুখসারির কর্মী এবং ৪৫ বছরের বেশি বয়স্করা বর্তমানে টিকা পাচ্ছেন।

আগামী ১ মে থেকে এই টিকাদান শুরু হবে বলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে উচ্চপর্যায়ের এক বৈঠকে সোমবার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বৈঠক মোদি বলেন, ভারতের বেশিরভাগ মানুষকে যাতে অল্প সময়ের মধ্যে টিকা দেওয়া যায়, তার জন্য গত এক বছর ধরেই চেষ্টা করে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এ ব্যাপারে ইতোমধ্যেই রেকর্ড গতিতে এগিয়েছে দেশ।

সোমবারের পদক্ষেপকে ভারতের টিকাদান প্রক্রিয়ার তৃতীয় পর্যায় বলে ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

গত ১৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে ভারতে করোনা টিকাদান কর্মসূচি। প্রথম পর্যায়ে চিকিৎসক ও চিকিৎসাকর্মীদের টিকা দেওয়া হয়। দ্বিতীয় পর্যায়ে ১ এপ্রিল থেকে পঁয়তাল্লিশোর্ধ্বদের টিকা নেওয়ার সুবিধা উন্মুক্ত করা হয়।

পরিসংখ্যান বিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডো মিটারের মঙ্গলবার সকালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ২ লাখ ৫৬ হাজার ৯৪৭ জন সংক্রমিত হয়েছেন। একই সময়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৭৫৭ জন।

এ নিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে করোনার মোট সংক্রমণ ১ কোটি ৫৩ লাখ সাড়ে ১৪ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত মারা গেছে ১ লাখ ৮০ হাজার ৫৫০ জন।

ভারতে বয়স ১৮ হলেই মিলবে করোনার টিকা

 যুগান্তর ডেস্ক 
২০ এপ্রিল ২০২১, ০৪:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ মহামারিতে বিপর্যস্ত ভারত।  সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা পেতে দেশব্যাপী টিকাদান কর্মসূচি চলছে।  তবুও নিয়ন্ত্রণে নেই পরিস্থিতি।  রোজ দুই লাখের বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন।  হাজার হাজার মানুষ মারা যাচ্ছেন।

এমতাবস্থায় আগামী ১ মে থেকে গোটা ভারতে ১৮ বছরের বেশি বয়সী সবাইকে টিকা দেওয়া হবে। গতকাল সোমবার এমন ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার।  খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

বর্তমানে ভারতে শুধুমাত্র করোনা প্রতিরোধে সম্মুখসারির লোকজনকে টিকা দেওয়া চলছে। এখন ভারতের স্বাস্থ্যকর্মী, সম্মুখসারির কর্মী এবং ৪৫ বছরের বেশি বয়স্করা বর্তমানে টিকা পাচ্ছেন।
 
আগামী ১ মে থেকে এই টিকাদান শুরু হবে বলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে উচ্চপর্যায়ের এক বৈঠকে সোমবার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বৈঠক মোদি বলেন, ভারতের বেশিরভাগ মানুষকে যাতে অল্প সময়ের মধ্যে টিকা দেওয়া যায়, তার জন্য গত এক বছর ধরেই চেষ্টা করে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এ ব্যাপারে ইতোমধ্যেই রেকর্ড গতিতে এগিয়েছে দেশ।

সোমবারের পদক্ষেপকে ভারতের টিকাদান প্রক্রিয়ার তৃতীয় পর্যায় বলে ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

গত ১৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে ভারতে করোনা টিকাদান কর্মসূচি। প্রথম পর্যায়ে চিকিৎসক ও চিকিৎসাকর্মীদের টিকা দেওয়া হয়। দ্বিতীয় পর্যায়ে ১ এপ্রিল থেকে পঁয়তাল্লিশোর্ধ্বদের টিকা নেওয়ার সুবিধা উন্মুক্ত করা হয়।

পরিসংখ্যান বিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডো মিটারের মঙ্গলবার সকালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ২ লাখ ৫৬ হাজার ৯৪৭ জন সংক্রমিত হয়েছেন। একই সময়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৭৫৭ জন।

এ নিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে করোনার মোট সংক্রমণ ১ কোটি ৫৩ লাখ সাড়ে ১৪ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত মারা গেছে ১ লাখ ৮০ হাজার ৫৫০ জন।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস