ফাইজারের টিকার অনুমোদন দিচ্ছে না ভারত
jugantor
ফাইজারের টিকার অনুমোদন দিচ্ছে না ভারত

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৪ মে ২০২১, ১৪:৩৯:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতকে সাত কোটি ডলার মূল্যের ভ্যাকসিন অনুদান হিসেবে পাঠাতে চায় মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ফাইজার। তবে এখনও তাদের টিকার অনুমোদন দেয়নি নরেন্দ্র মোদির সরকার।

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে রীতিমতো বিধ্বস্ত ভারতে এখনও ফাইজার এবং বায়োএনটেকের করোনা টিকা অনুমোদন পায়নি। বিষয়টি নিয়ে আক্ষেপ করেছেন ফাইজারের চেয়ারম্যান এবং সিইও অ্যালবার্ট বুরলা।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘ফাইজার ভালোভাবে জানে যে এই মহামারী শেষের জন্য টিকার জোগান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ভারতে আমার টিকার নথিভুক্ত হয়নি। যদিও কয়েক মাস আগেই আমরা আবেদনপত্র জমা দিয়েছিলাম। ভারতে ফাইজার এবং বায়োএনটেকের টিকা যাতে ব্যবহার করা হয়, সেজন্য আমাদের টিকার দ্রুত অনুমোদন দেওয়ার জন্য আপাতত সরকারের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছি।’

মার্কিন প্রতিষ্ঠান ফাইজার এবং জার্মানির বায়োএনটেক মিলে তৈরি করেছে করোনা ভ্যাকসিন কমিরানিটি।

ভারতে করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্টের ওপর এই টিকা বেশি উপযোগী বলেও জানিয়েছিল বিশেষজ্ঞদের একাংশ। তারপরও ফাইজারের টিকা অনুমোদন দেয়নি দিল্লি।

সোমবার ফাইজারের তরফে জানানো হয়েছে, আমেরিকা, ইউরোপ এবং এশিয়ার বিভিন্ন প্রান্তে সংস্থার বণ্টন কেন্দ্র থেকে ভারতকে বিভিন্ন সামগ্রী প্রদান করা হচ্ছে। অবিলম্বে সেই ওষুধ ভারতে পাঠানোর কাজ চলছে।

ফাইজারের টিকার অনুমোদন দিচ্ছে না ভারত

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৪ মে ২০২১, ০২:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতকে সাত কোটি ডলার মূল্যের ভ্যাকসিন অনুদান হিসেবে পাঠাতে চায় মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ফাইজার। তবে এখনও তাদের টিকার অনুমোদন দেয়নি নরেন্দ্র মোদির সরকার।

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে রীতিমতো বিধ্বস্ত ভারতে এখনও ফাইজার এবং বায়োএনটেকের করোনা টিকা অনুমোদন পায়নি। বিষয়টি নিয়ে আক্ষেপ করেছেন ফাইজারের চেয়ারম্যান এবং সিইও অ্যালবার্ট বুরলা। 

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘ফাইজার ভালোভাবে জানে যে এই মহামারী শেষের জন্য টিকার জোগান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ভারতে আমার টিকার নথিভুক্ত হয়নি। যদিও কয়েক মাস আগেই আমরা আবেদনপত্র জমা দিয়েছিলাম। ভারতে ফাইজার এবং বায়োএনটেকের টিকা যাতে ব্যবহার করা হয়, সেজন্য আমাদের টিকার দ্রুত অনুমোদন দেওয়ার জন্য আপাতত সরকারের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছি।’

মার্কিন প্রতিষ্ঠান ফাইজার এবং জার্মানির বায়োএনটেক মিলে তৈরি করেছে করোনা ভ্যাকসিন কমিরানিটি। 

ভারতে করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্টের ওপর এই টিকা বেশি উপযোগী বলেও জানিয়েছিল বিশেষজ্ঞদের একাংশ। তারপরও ফাইজারের টিকা অনুমোদন দেয়নি দিল্লি।

সোমবার ফাইজারের তরফে জানানো হয়েছে, আমেরিকা, ইউরোপ এবং এশিয়ার বিভিন্ন প্রান্তে সংস্থার বণ্টন কেন্দ্র থেকে ভারতকে বিভিন্ন সামগ্রী প্রদান করা হচ্ছে। অবিলম্বে সেই ওষুধ ভারতে পাঠানোর কাজ চলছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস