ভারতের যে রাজ্যে প্রতি দুজনের একজন করোনা পজিটিভ
jugantor
ভারতের যে রাজ্যে প্রতি দুজনের একজন করোনা পজিটিভ

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৮ মে ২০২১, ১৮:২৪:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা পজিটিভ

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ভারতে ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। প্রতিদিনই মৃত্যু ও সংক্রমণে তৈরি হচ্ছে নতুন রেকর্ড।

দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রাজ্য গোয়াতে প্রতি দুজনে একজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। রাজ্যটিতে সংক্রমণের হার সর্বোচ্চ।

স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার গোয়াতে করোনাভাইরাস শনাক্তের হার সর্বোচ্চ ৫১ দশমিক ৪ শতাংশ শনাক্ত হয়।

গোয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিশ্বজিৎ পি রানে বলেন, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে কড়া লকডাউন জরুরি। করোনা শনাক্তের হার কমিয়ে আনা দরকার। সেই সঙ্গে অক্সিজেন সরবরাহও নিশ্চিত করতে হবে।

ভারতের অন্যতম পর্যটন শহর গোয়া। এই রাজ্যে ১৫ লাখ মানুষের বসবাস। গত বৃহস্পতিবার রাজ্যটিতে করোনায় ৩ হাজার ৮০০ জনেরও বেশি মানুষ সংক্রমিত হন।

রাজ্য সরকার ঘর থেকে কাজ করতে মানুষকে উৎসাহ দিচ্ছে। রেস্তোরাঁ ও দোকানগুলো খোলার সময়ে নানা বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ১৪ হাজার ১৮৮ জন। যা একদিনে আক্রান্তের নিরিখে নতুন রেকর্ড।

এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হলো ২ কোটি ১৪ লাখ ৯১ হাজার ৫৯৮ জন।

এই নিয়ে তৃতীয় বার ভারতে দৈনিক আক্রান্ত ৪ লাখের গণ্ডি পার হলো। করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ ভারতে দৈনিক মৃত্যুকেও পৌঁছে দিয়েছে ৪ হাজারের দোরগোড়ায়।

বৃহস্পতিবার দেশটিতে মৃত্যু হয়েছিল ৩ হাজার ৯৮০ জনের। শুক্রবার মারা গেছেন আরও ৩ হাজার ৯১৫ জন।

এ নিয়ে ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেছে ২ লাখ ৩৪ হাজার ৮৩ জন। মোট মৃত্যুর সংখ্যায় মেক্সিকোকে পেছনে ফেলে এই মুহূর্তে বিশ্বের তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত।

ভারতের যে রাজ্যে প্রতি দুজনের একজন করোনা পজিটিভ

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৮ মে ২০২১, ০৬:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনা পজিটিভ
ছবি: ইন্ডিয়া টিভি

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ভারতে ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। প্রতিদিনই মৃত্যু ও সংক্রমণে তৈরি হচ্ছে নতুন রেকর্ড।

দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রাজ্য গোয়াতে প্রতি দুজনে একজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। রাজ্যটিতে সংক্রমণের হার সর্বোচ্চ। 

স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার গোয়াতে করোনাভাইরাস শনাক্তের হার সর্বোচ্চ ৫১ দশমিক ৪ শতাংশ শনাক্ত হয়।

গোয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিশ্বজিৎ পি রানে বলেন, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে কড়া লকডাউন জরুরি।  করোনা শনাক্তের হার কমিয়ে আনা দরকার। সেই সঙ্গে অক্সিজেন সরবরাহও নিশ্চিত করতে হবে।

 ভারতের অন্যতম পর্যটন শহর গোয়া। এই রাজ্যে ১৫ লাখ মানুষের বসবাস। গত বৃহস্পতিবার রাজ্যটিতে করোনায় ৩ হাজার ৮০০ জনেরও বেশি মানুষ সংক্রমিত হন।

রাজ্য সরকার ঘর থেকে কাজ করতে মানুষকে উৎসাহ দিচ্ছে। রেস্তোরাঁ ও দোকানগুলো খোলার সময়ে নানা বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ১৪ হাজার ১৮৮ জন। যা একদিনে আক্রান্তের নিরিখে নতুন রেকর্ড।

এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হলো ২ কোটি ১৪ লাখ ৯১ হাজার ৫৯৮ জন।

এই নিয়ে তৃতীয় বার ভারতে দৈনিক আক্রান্ত ৪ লাখের গণ্ডি পার হলো। করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ ভারতে দৈনিক মৃত্যুকেও পৌঁছে দিয়েছে ৪ হাজারের দোরগোড়ায়।

বৃহস্পতিবার দেশটিতে মৃত্যু হয়েছিল ৩ হাজার ৯৮০ জনের। শুক্রবার মারা গেছেন আরও ৩ হাজার ৯১৫ জন।

এ নিয়ে ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেছে ২ লাখ ৩৪ হাজার ৮৩ জন। মোট মৃত্যুর সংখ্যায় মেক্সিকোকে পেছনে ফেলে এই মুহূর্তে বিশ্বের তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস