তিন মাসে সর্বনিম্ন করোনা শনাক্ত
jugantor
তিন মাসে সর্বনিম্ন করোনা শনাক্ত

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৫ মে ২০২১, ১৬:১৬:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ সংক্রমণ কমে এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৬১ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। যা গত তিন মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন শনাক্ত।

এর আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ২৯১ জনের দেহে কোভিড শনাক্ত হয়েছিল। তিন মাস পর আজই শনাক্তের সংখ্যা এতটা কমল। গত বছরের ১৭ এপ্রিল ২৬৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল।

করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সবশেষ পরিস্থিতি জানাতে শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত পরিচালক নাসিমা আক্তার সাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টা দেশে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা গত ৫৫ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যুর রেকর্ড।

নতুন ২২ জনের মৃত্যু নিয়ে প্রাণহানির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ১২৪ জনে।

এ সময় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ২৬১ জন। এতে মোট শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭ লাখ ৭৯ হাজার ৭৯৬ জনে।

শুক্রবার একদিনে করোনায় ২৬ জনের মৃত্যু ও ৮৪৮ জন রোগী শনাক্ত হয়েছিল।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্তের খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

এ বছর মার্চে শুরু হয়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। প্রথম ঢেউয়ের চেয়ে এবার সংক্রমণ বেশি তীব্র। মধ্যে কয়েক মাস ধরে শনাক্তের চেয়ে সুস্থ বেশি হওয়ায় দেশে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা কমে আসছিল। কিন্তু মার্চ থেকে চিকিৎসাধীন রোগী বেড়েছে। মৃত্যু হারও ঊর্দ্ধমুখী।

তিন মাসে সর্বনিম্ন করোনা শনাক্ত

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৫ মে ২০২১, ০৪:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কোভিড-১৯ সংক্রমণ কমে এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৬১ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। যা গত তিন মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন শনাক্ত। 

এর আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ২৯১ জনের দেহে কোভিড শনাক্ত হয়েছিল। তিন মাস পর আজই শনাক্তের সংখ্যা এতটা কমল। গত বছরের ১৭ এপ্রিল ২৬৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল।

করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সবশেষ পরিস্থিতি জানাতে শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত পরিচালক নাসিমা আক্তার সাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টা দেশে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা গত ৫৫ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যুর রেকর্ড।

নতুন ২২ জনের মৃত্যু নিয়ে প্রাণহানির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ১২৪ জনে। 

এ সময় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ২৬১ জন। এতে মোট শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭ লাখ ৭৯ হাজার ৭৯৬ জনে।

শুক্রবার একদিনে করোনায় ২৬ জনের মৃত্যু ও ৮৪৮ জন রোগী শনাক্ত হয়েছিল।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্তের খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

এ বছর মার্চে শুরু হয়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। প্রথম ঢেউয়ের চেয়ে এবার সংক্রমণ বেশি তীব্র। মধ্যে কয়েক মাস ধরে শনাক্তের চেয়ে সুস্থ বেশি হওয়ায় দেশে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা কমে আসছিল। কিন্তু মার্চ থেকে চিকিৎসাধীন রোগী বেড়েছে। মৃত্যু হারও ঊর্দ্ধমুখী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস