ভারতে করোনা চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি পদ্ধতি বাদ
jugantor
ভারতে করোনা চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি পদ্ধতি বাদ

  অনলাইন ডেস্ক  

১৮ মে ২০২১, ১৪:৫৩:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

করেনা চিকিৎসা পদ্ধতির প্রস্তাবিত তালিকা থেকে ‘কনভ্যালেসেন্ট প্লাজমা থেরাপি’কে বাদ দিয়েছে ভারতের জাতীয় কোভিড টাস্কফোর্স। মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকার।

হাসপাতালে ভর্তি করোনা রোগীদের চিকিৎসকার জন্য ‘কনভ্যালেসেন্ট প্লাজমা থেরাপি’ বহুল ব্যবহৃত হয়েছে। কিন্তু পরীক্ষামূলক প্রয়োগে উঠে এসেছে, কোভিড সংক্রমণ এবং কোভিডের জেরে মৃত্যু রুখতে এই পদ্ধতি খুব একটা কার্যকর নয়। তার পরই কেন্দ্রের গড়া টাস্ক ফোর্স তা না ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

খবরে বলা হয়, আইসিএমআর-এর কোভিড টাস্ক ফোর্সে থাকা বিজ্ঞানী, চিকিৎসক এবং বিশেষজ্ঞরা গত সপ্তাহে একটি বৈঠক করেন। সেখানেই কোভিডের চিকিৎসা পদ্ধতি থেকে প্লাজমা থেরাপিকে বাদ দেওয়ার প্রস্তাবটি সর্বসম্মত হয়। বিষয়টি নিয়ে প্রধান বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা কে বিজয় রাঘবন চিঠিও দেন প্রথম সারির বেশ কয়েকজন বিজ্ঞানী। সেই চিঠিতে প্লামজা থেরাপির ব্যবহারকে ‘অযৌক্তিক এবং অবৈজ্ঞানিক’ বলেও উল্লেখ করা হয়েছিল। তার পরই নেওয়া হয়েছে এই সিদ্ধান্ত।

প্রসঙ্গত, আইসিএমআর-এর গবেষণায় দেখা গিয়েছে, প্রথম ঢেউয়ে প্লাজমা থেরাপি কিছু ক্ষেত্রে আশাব্যঞ্জক ফল দিলেও, করোনার মৃত্যু ঠেকাতে তেমন ভূমিকা নিতে পারেনি এই চিকিৎসা পদ্ধতি। এক চিকিৎসক জানিয়েছেন, মাঝারি এবং মৃদু উপসর্গের লোকেরা এই থেরাপিতে কিছুটা উপকৃত হলেও করোনা যাঁদের শরীরের অবস্থা জটিল করে তুলেছে, তাঁদের চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি মোটেই সফল নয়। এমনকি স্টেরয়েডের ব্যবহার নিয়েও সতর্ক থাকতে বলেছেন দিল্লি এমসের ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়া।

ভারতে করোনা চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি পদ্ধতি বাদ

 অনলাইন ডেস্ক 
১৮ মে ২০২১, ০২:৫৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

করেনা চিকিৎসা পদ্ধতির প্রস্তাবিত তালিকা থেকে ‘কনভ্যালেসেন্ট প্লাজমা থেরাপি’কে বাদ দিয়েছে ভারতের জাতীয় কোভিড টাস্কফোর্স। মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকার।

হাসপাতালে ভর্তি করোনা রোগীদের চিকিৎসকার জন্য ‘কনভ্যালেসেন্ট প্লাজমা থেরাপি’ বহুল ব্যবহৃত হয়েছে। কিন্তু পরীক্ষামূলক প্রয়োগে উঠে এসেছে, কোভিড সংক্রমণ এবং কোভিডের জেরে মৃত্যু রুখতে এই পদ্ধতি খুব একটা কার্যকর নয়। তার পরই কেন্দ্রের গড়া টাস্ক ফোর্স তা না ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

খবরে বলা হয়, আইসিএমআর-এর কোভিড টাস্ক ফোর্সে থাকা বিজ্ঞানী, চিকিৎসক এবং বিশেষজ্ঞরা গত সপ্তাহে একটি বৈঠক করেন। সেখানেই কোভিডের চিকিৎসা পদ্ধতি থেকে প্লাজমা থেরাপিকে বাদ দেওয়ার প্রস্তাবটি সর্বসম্মত হয়। বিষয়টি নিয়ে প্রধান বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা কে বিজয় রাঘবন চিঠিও দেন প্রথম সারির বেশ কয়েকজন বিজ্ঞানী। সেই চিঠিতে প্লামজা থেরাপির ব্যবহারকে ‘অযৌক্তিক এবং অবৈজ্ঞানিক’ বলেও উল্লেখ করা হয়েছিল। তার পরই নেওয়া হয়েছে এই সিদ্ধান্ত।

প্রসঙ্গত, আইসিএমআর-এর গবেষণায় দেখা গিয়েছে, প্রথম ঢেউয়ে প্লাজমা থেরাপি কিছু ক্ষেত্রে আশাব্যঞ্জক ফল দিলেও, করোনার মৃত্যু ঠেকাতে তেমন ভূমিকা নিতে পারেনি এই চিকিৎসা পদ্ধতি। এক চিকিৎসক জানিয়েছেন, মাঝারি এবং মৃদু উপসর্গের লোকেরা এই থেরাপিতে কিছুটা উপকৃত হলেও করোনা যাঁদের শরীরের অবস্থা জটিল করে তুলেছে, তাঁদের চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপি মোটেই সফল নয়। এমনকি স্টেরয়েডের ব্যবহার নিয়েও সতর্ক থাকতে বলেছেন দিল্লি এমসের ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়া।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস