করোনার ভ্যারিয়েন্ট কোনো বড় বিষয় নয়: সেব্রিনা ফ্লোরা 
jugantor
করোনার ভ্যারিয়েন্ট কোনো বড় বিষয় নয়: সেব্রিনা ফ্লোরা 

  চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি  

০৬ জুন ২০২১, ২১:৩৩:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেছেন, ঈদের সময় মানুষ অন্য জেলা থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে এসেছেন আবার এখান থেকে ঢাকা বা অন্য জেলাতে গেছেন। সুতরাং বিভিন্ন কারণে করোনা ছড়াতে পারে। স্বাস্থ্যবিধি না মানলে, মাস্ক ঠিকমতো ব্যবহার না করলে করোনা কোনোভাবেই প্রতিরোধ করা যাবে না। কোন ভ্যারিয়েন্ট সেটি বড় বিষয় নয়, সেটি দেখব আমরা। যদি স্বাস্থ্যবিধি না মানি তাহলে করোনা সংক্রমণ ছড়াবে।

রোববার বিকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জের করোনা পরিস্থিতি পরিদর্শনে এসে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা শেষে গণমাধ্যমের সামনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ভ্যারিয়েন্ট জানবে যারা পলিসি গ্রহণ করেন অর্থাৎ ডাক্তারগণ। প্রতিরোধের জন্য সাধারণ মানুষের একটি উপায়, আর তা হলো স্বাস্থ্যবিধি মানা এবং মাস্ক পরা, এখানে ভ্যারিয়েন্ট কোনো বিষয় নয়। স্বাস্থ্যবিধি মানা ছাড়া করোনা সংক্রমণ কোনোভাবেই আটকানো যাবে না। কোনো ভ্যারিয়েন্টই আলাদা করে কিছুই করতে পারবে না যদি আমরা স্বাস্থ্যবিধি মানি। যে ভ্যারিয়েন্টই হোক না কেন তা প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোনো বিকল্প নেই।

এ সময় তিনি চাপাইনবাবগঞ্জের লকডাউন নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, গত দুই সপ্তাহের লকডাউনে বর্তমানে জেলার করোনা পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে। সংক্রমণ বেড়ে গেলে তা যে কোনো দেশের জন্যই চাপ। এজন্য সংক্রমণ প্রতিরোধে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

করোনার ভ্যারিয়েন্ট কোনো বড় বিষয় নয়: সেব্রিনা ফ্লোরা 

 চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি 
০৬ জুন ২০২১, ০৯:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেছেন, ঈদের সময় মানুষ অন্য জেলা থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জে এসেছেন আবার এখান থেকে ঢাকা বা অন্য জেলাতে গেছেন। সুতরাং বিভিন্ন কারণে করোনা ছড়াতে পারে। স্বাস্থ্যবিধি না মানলে, মাস্ক ঠিকমতো ব্যবহার না করলে করোনা কোনোভাবেই প্রতিরোধ করা যাবে না। কোন ভ্যারিয়েন্ট সেটি বড় বিষয় নয়, সেটি দেখব আমরা। যদি স্বাস্থ্যবিধি না মানি তাহলে করোনা সংক্রমণ ছড়াবে। 

রোববার বিকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জের করোনা পরিস্থিতি পরিদর্শনে এসে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা শেষে গণমাধ্যমের সামনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ভ্যারিয়েন্ট জানবে যারা পলিসি গ্রহণ করেন অর্থাৎ ডাক্তারগণ। প্রতিরোধের জন্য সাধারণ মানুষের একটি উপায়, আর তা হলো স্বাস্থ্যবিধি মানা এবং মাস্ক পরা, এখানে ভ্যারিয়েন্ট কোনো বিষয় নয়। স্বাস্থ্যবিধি মানা ছাড়া করোনা সংক্রমণ কোনোভাবেই আটকানো যাবে না। কোনো ভ্যারিয়েন্টই আলাদা করে কিছুই করতে পারবে না যদি আমরা স্বাস্থ্যবিধি মানি। যে ভ্যারিয়েন্টই হোক না কেন তা প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোনো বিকল্প নেই। 

এ সময় তিনি চাপাইনবাবগঞ্জের লকডাউন নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, গত দুই সপ্তাহের লকডাউনে বর্তমানে জেলার করোনা পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে। সংক্রমণ বেড়ে গেলে তা যে কোনো দেশের জন্যই চাপ। এজন্য সংক্রমণ প্রতিরোধে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস