নিজেদের তৈরি টিকার জরুরি ব্যবহার শুরু করেছে ইরান
jugantor
নিজেদের তৈরি টিকার জরুরি ব্যবহার শুরু করেছে ইরান

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৫ জুন ২০২১, ১১:৫৩:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

নিজেদের তৈরি টিকার জরুরি ব্যবহার শুরু করেছে ইরান

নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন কোভ-ইরান বারেকাত জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে ইরান।

সোমবার ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সায়ীদ নামাকি আরাক ইউনিভার্সিটি অব মেডিক্যাল সায়েন্স- এ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেন।

করোনাভাইরাসের মহামারিতে মারাত্মকভাবে আক্রান্ত হলেও ব্যাপক মার্কিন নিষেধাজ্ঞা থাকায় টিকা আমদানিতে বাধার মুখে পড়ে ইরান। নিষেধাজ্ঞার কবলে থাকা দেশটি যথেষ্ট পরিমাণ টিকা আমদানি করতে ব্যর্থ হওয়ার পর কোভ-ইরান নামের টিকাটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

আগামী সপ্তাহ থেকে ইরান এবং কিউবার যৌথভাবে তৈরি পাস্তুর টিকা ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলেও জানান দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সায়ীদ নামাকি।

সারা বিশ্বে মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ার পরেও যুক্তরাষ্ট্রের ‘অবৈধ ও অমানবিক’ নিষেধাজ্ঞার কারণে ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয়ে পড়ে ইরান।

দেশটি গতবছর ডিসেম্বর মাসে এই ভ্যাকসিন তৈরির কাজ শুরু করে।

কোভ-ইরান বারেকাত নামের এই ভ্যাকসিনটি বাজারজাত করার আগে মানুষের শরীরে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের তিনটি ধাপের সবগুলোতেই ‘উচ্চ কার্যকারিতা’ দেখিয়েছে।

প্রথম এক মাসে নতুন এই ভ্যাকসিন উৎপাদনের পরিমাণ হবে দশ লাখ। পরে ধাপে ধাপে বেড়ে আগস্টের শেষে এই পরিমাণ হবে দেড় কোটি ডোজ।

এর মাধ্যমে ইরান তুরস্কের আগেই করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন বাজারজাত করতে সক্ষম হল।

নিজেদের তৈরি টিকার জরুরি ব্যবহার শুরু করেছে ইরান

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৫ জুন ২০২১, ১১:৫৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নিজেদের তৈরি টিকার জরুরি ব্যবহার শুরু করেছে ইরান
ছবি: ইরনা

নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন কোভ-ইরান বারেকাত জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে ইরান। 

সোমবার ইরানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী সায়ীদ নামাকি আরাক ইউনিভার্সিটি অব মেডিক্যাল সায়েন্স- এ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেন। 

করোনাভাইরাসের মহামারিতে মারাত্মকভাবে আক্রান্ত হলেও ব্যাপক মার্কিন নিষেধাজ্ঞা থাকায় টিকা আমদানিতে বাধার মুখে পড়ে ইরান। নিষেধাজ্ঞার কবলে থাকা দেশটি যথেষ্ট পরিমাণ টিকা আমদানি করতে ব্যর্থ হওয়ার পর কোভ-ইরান নামের টিকাটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। 

আগামী সপ্তাহ থেকে ইরান এবং কিউবার যৌথভাবে তৈরি পাস্তুর টিকা ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলেও জানান দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সায়ীদ নামাকি। 

সারা বিশ্বে মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ার পরেও যুক্তরাষ্ট্রের ‘অবৈধ ও অমানবিক’ নিষেধাজ্ঞার কারণে ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয়ে পড়ে ইরান।  

দেশটি গতবছর ডিসেম্বর মাসে এই ভ্যাকসিন তৈরির কাজ শুরু করে। 

কোভ-ইরান বারেকাত নামের এই ভ্যাকসিনটি বাজারজাত করার আগে মানুষের শরীরে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের তিনটি ধাপের সবগুলোতেই ‘উচ্চ কার্যকারিতা’ দেখিয়েছে।

প্রথম এক মাসে নতুন এই ভ্যাকসিন উৎপাদনের পরিমাণ হবে দশ লাখ। পরে ধাপে ধাপে বেড়ে আগস্টের শেষে এই পরিমাণ হবে দেড় কোটি ডোজ। 

এর মাধ্যমে ইরান তুরস্কের আগেই করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন বাজারজাত করতে সক্ষম হল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস