ভেড়ামারায় ৭ দিনের কঠোর লকডাউন
jugantor
ভেড়ামারায় ৭ দিনের কঠোর লকডাউন

  ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি  

২১ জুন ২০২১, ১৪:১১:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ভেড়ামারায় ৭ দিনের কঠোর লকডাউন

করোনা সংক্রমণের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলায় সাত দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

রোববার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে ২৭ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত এ লকডাউন বলবৎ থাকবে।

রাতেই কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, লকডাউন চলাকালে সব ধরনের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, শিল্পকারখানা, দোকানপাট, শপিংমল, রেস্তোরাঁ ও চায়ের দোকান বন্ধ থাকবে। তবে কাঁচাবাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় (মুদি) পণ্যের দোকান সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা রাখা যাবে।

সব পর্যটনকেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদনকেন্দ্র বন্ধ থাকবে।

এতে আরও বলা হয়, জেলার অভ্যন্তরে আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার গণপরিবহন, ইজিবাইক, থ্রি-হুইলারসহ সব ধরনের যান্ত্রিক যানবাহন, সাপ্তাহিক হাট ও গরুর হাট বন্ধ থাকবে। অতিজরুরি প্রয়োজন ব্যতীত (ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসাসেবা মৃতদেহ দাফন/সৎকার ইত্যাদি) কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না।

তবে টিকা কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে চলাচলকারী সবাইকে আবশ্যিকভাবে মাস্ক পরিধান করতে হবে।

ভেড়ামারায় ৭ দিনের কঠোর লকডাউন

 ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি 
২১ জুন ২০২১, ০২:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভেড়ামারায় ৭ দিনের কঠোর লকডাউন
ছবি: যুগান্তর

করোনা সংক্রমণের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলায় সাত দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

রোববার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে ২৭ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত এ লকডাউন বলবৎ থাকবে।

রাতেই কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, লকডাউন চলাকালে সব ধরনের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, শিল্পকারখানা, দোকানপাট, শপিংমল, রেস্তোরাঁ ও চায়ের দোকান বন্ধ থাকবে। তবে কাঁচাবাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় (মুদি) পণ্যের দোকান সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা রাখা যাবে।

সব পর্যটনকেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদনকেন্দ্র বন্ধ থাকবে।

এতে আরও বলা হয়, জেলার অভ্যন্তরে আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার গণপরিবহন, ইজিবাইক, থ্রি-হুইলারসহ সব ধরনের যান্ত্রিক যানবাহন, সাপ্তাহিক হাট ও গরুর হাট বন্ধ থাকবে। অতিজরুরি প্রয়োজন ব্যতীত (ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসাসেবা মৃতদেহ দাফন/সৎকার ইত্যাদি) কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না।

তবে টিকা কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে চলাচলকারী সবাইকে আবশ্যিকভাবে মাস্ক পরিধান করতে হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস