প্রণোদনার দাবিতে রমেকে নার্সদের বিক্ষোভ, ধর্মঘটের হুশিয়ারি
jugantor
প্রণোদনার দাবিতে রমেকে নার্সদের বিক্ষোভ, ধর্মঘটের হুশিয়ারি

  রংপুর ব্যুরো  

০৭ জুলাই ২০২১, ২১:২৬:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাকালে সরকার ঘোষিত প্রণোদনার টাকার দাবিতে রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন হাসপাতালের কর্মরত নার্সরা। ন্যায্য পাওনা দ্রুত সময়ের মধ্যে না পেলে কর্মবিরতিসহ অবস্থান ধর্মঘটের হুশিয়ারি দেন তারা।

এদিকে হাসপাতালের ৩৩ নাম্বার ওয়ার্ডে করোনা ইউনিট চালু হওয়ায় একই স্ট্রেচার ও লিফটে সাধারণ ও করোনা রোগীর যাতায়াত করলে করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কার কথাও জানান তারা।

বুধবার দুপুরে পরিচালকের কার্যালয়ের সামনে নার্সরা অবস্থান নেন। পরে আশ্বাস পেয়ে কাজে ফিরে যান তারা।

তারা অভিযোগ করেন, গত বছরের জুলাই মাসে রমেকে দায়িত্ব পালন করা সব নার্সের একটি তালিকা পাঠানো হলেও এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের সুবিধা পাননি নার্সরা। দ্রুত প্রণোদনার টাকা দেয়ার দাবি জানান তারা।

স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদের সভাপতি ফোরকান আলী জানান, করোনায় সরকারের বিশেষ প্রণোদনা অন্যান্য হাসপাতালের নার্সরা পেলেও আমরা পাইনি। স্বাস্থ্যসেবায় সংশ্লিষ্ট সবাই প্রণোদনা পেলেও আমরা সর্বোচ্চ সেবা দিয়েও এখন পর্যন্ত প্রণোদনার টাকা পাইনি।

এ ব্যাপারে রংপুর মেডিকেল নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান মানিক বলেন, আমাদের ন্যায্য পাওনা দ্রুত সময়ের মধ্যে না পেলে আমরা কর্মবিরতিসহ অবস্থান ধর্মঘট পালন করব।

রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালক ডা. রেজাউল করিম জানান, নার্সদের একটি তালিকা নার্সিং অধিদপ্তরে পাঠানো হলেও সেটি এখনো মন্ত্রণালয়ে পৌঁছায়নি। এ বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও আশ্বাস দেন তিনি।

প্রণোদনার দাবিতে রমেকে নার্সদের বিক্ষোভ, ধর্মঘটের হুশিয়ারি

 রংপুর ব্যুরো 
০৭ জুলাই ২০২১, ০৯:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাকালে সরকার ঘোষিত প্রণোদনার টাকার দাবিতে রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন হাসপাতালের কর্মরত নার্সরা। ন্যায্য পাওনা দ্রুত সময়ের মধ্যে না পেলে কর্মবিরতিসহ অবস্থান ধর্মঘটের হুশিয়ারি দেন তারা। 

এদিকে হাসপাতালের ৩৩ নাম্বার ওয়ার্ডে করোনা ইউনিট চালু হওয়ায় একই স্ট্রেচার ও লিফটে সাধারণ ও করোনা রোগীর যাতায়াত করলে করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কার কথাও জানান তারা।

বুধবার দুপুরে পরিচালকের কার্যালয়ের সামনে নার্সরা অবস্থান নেন। পরে আশ্বাস পেয়ে কাজে ফিরে যান তারা।

তারা অভিযোগ করেন, গত বছরের জুলাই মাসে রমেকে দায়িত্ব পালন করা সব নার্সের একটি তালিকা পাঠানো হলেও এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের সুবিধা পাননি নার্সরা। দ্রুত প্রণোদনার টাকা দেয়ার দাবি জানান তারা।

স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদের সভাপতি ফোরকান আলী জানান, করোনায় সরকারের বিশেষ প্রণোদনা অন্যান্য হাসপাতালের নার্সরা পেলেও আমরা পাইনি। স্বাস্থ্যসেবায় সংশ্লিষ্ট সবাই প্রণোদনা পেলেও আমরা সর্বোচ্চ সেবা দিয়েও এখন পর্যন্ত প্রণোদনার টাকা পাইনি।

এ ব্যাপারে রংপুর মেডিকেল নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান মানিক বলেন, আমাদের ন্যায্য পাওনা দ্রুত সময়ের মধ্যে না পেলে আমরা কর্মবিরতিসহ অবস্থান ধর্মঘট পালন করব।

রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের পরিচালক ডা. রেজাউল করিম জানান, নার্সদের একটি তালিকা নার্সিং অধিদপ্তরে পাঠানো হলেও সেটি এখনো মন্ত্রণালয়ে পৌঁছায়নি। এ বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও আশ্বাস দেন তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন