চার সপ্তাহে বিশ্বে ৮০ শতাংশ সংক্রমণ বেড়েছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
jugantor
চার সপ্তাহে বিশ্বে ৮০ শতাংশ সংক্রমণ বেড়েছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

  যুগান্তর ডেস্ক  

৩১ জুলাই ২০২১, ১৮:২০:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

গত চার সপ্তাহে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) ছয়টি অঞ্চলের মধ্যে পাঁচটি অঞ্চলে সংক্রমণ গড়ে ৮০ শতাংশ বেড়েছে।

ডব্লিউএইচও’র জরুরি বিভাগের প্রধান মাইকেল রায়ান এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন। করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণে সংক্রমণ দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে জানান তিনি।

রায়ান বলেন, এটির আরও বিপজ্জনক মিউটেশনের আগে এখন আমাদের আরও জরুরি পদক্ষেপ নিতে হবে। ‘গেম প্ল্যান’ হিসেবে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা, হাত ধোয়া এবং টিকাদান এখনো কার্যকর উপায়।

করোনাভাইরাসের পরিবর্তিত ধরন বা প্রজাতিসমূহের মধ্যে বর্তমানে বিশ্বজুড়ে ৬ টি ধরনের আধিপত্য চলছে বলে এর আগে জানিয়েছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গ্রীক বর্ণমালা অনুসারে এই ধরনগুলোর নাম দেওয়া হয় আলফা, বিটা, গ্যামা, ডেল্টা, কাপ্পা ও ল্যাম্বডা।

ডব্লিউএইচওর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের আধিপত্যশীল এই ধরনসমূহের মধ্যে বর্তমানে প্রাধান্য বিস্তারকারী ধরনের নাম ডেল্টা। ২০২০ সালের অক্টোবরে ভারতে প্রথম শনাক্ত হয় এই ধরনটি। তারপর থেকে এ পর্যন্ত বিশ্বের ১৩২ দেশে ডেল্টায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

এদিকে শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে ডব্লিউএইচ ‘র কোভিড ১৯ টেকনিক্যাল কমিটির প্রধান মারিয়া ভ্যান কারখোভ জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক পরিবর্তিত ধরন ডেল্টায় শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কম।

সুইজার‌ল্যান্ডের রাজধানী জেনেভায় ডব্লিউএইচও কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মারিয়া ভ্যান কারখোভ বলেন, একটা বিষয়ে আমাদের সবার পরিষ্কার ধারণা থাকা প্রয়োজন; আর তা হলো- ডেল্টা ধরন শিশুদের সেভাবে আক্রমণ করে না। বরং, যারা করোনা টিকার ডোজ নেননি কিংবা নিলেও স্বাস্থ্যবিধি বা সামাজিক দূরত্ববিধি ঠিকমতো মেনে চলেন না, তাদের এই ধরনটিতে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি।

চার সপ্তাহে বিশ্বে ৮০ শতাংশ সংক্রমণ বেড়েছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

 যুগান্তর ডেস্ক 
৩১ জুলাই ২০২১, ০৬:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গত চার সপ্তাহে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) ছয়টি অঞ্চলের মধ্যে পাঁচটি অঞ্চলে সংক্রমণ গড়ে ৮০ শতাংশ বেড়েছে।

ডব্লিউএইচও’র জরুরি বিভাগের প্রধান মাইকেল রায়ান এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন। করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণে সংক্রমণ দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে জানান তিনি।

রায়ান বলেন, এটির আরও বিপজ্জনক মিউটেশনের আগে এখন আমাদের আরও জরুরি পদক্ষেপ নিতে হবে। ‘গেম প্ল্যান’ হিসেবে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা, হাত ধোয়া এবং টিকাদান এখনো কার্যকর উপায়।

করোনাভাইরাসের পরিবর্তিত ধরন বা প্রজাতিসমূহের মধ্যে বর্তমানে বিশ্বজুড়ে ৬ টি ধরনের আধিপত্য চলছে বলে এর আগে জানিয়েছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গ্রীক বর্ণমালা অনুসারে এই ধরনগুলোর নাম দেওয়া হয় আলফা, বিটা, গ্যামা, ডেল্টা, কাপ্পা ও ল্যাম্বডা।

ডব্লিউএইচওর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের আধিপত্যশীল এই ধরনসমূহের মধ্যে বর্তমানে প্রাধান্য বিস্তারকারী ধরনের নাম ডেল্টা। ২০২০ সালের অক্টোবরে ভারতে প্রথম শনাক্ত হয় এই ধরনটি। তারপর থেকে এ পর্যন্ত বিশ্বের ১৩২ দেশে ডেল্টায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে।

এদিকে শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে ডব্লিউএইচ ‘র কোভিড ১৯ টেকনিক্যাল কমিটির প্রধান মারিয়া ভ্যান কারখোভ জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক পরিবর্তিত ধরন ডেল্টায় শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কম। 

সুইজার‌ল্যান্ডের রাজধানী জেনেভায় ডব্লিউএইচও কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মারিয়া ভ্যান কারখোভ বলেন, একটা বিষয়ে আমাদের সবার পরিষ্কার ধারণা থাকা প্রয়োজন; আর তা হলো- ডেল্টা ধরন শিশুদের সেভাবে আক্রমণ করে না। বরং, যারা করোনা টিকার ডোজ নেননি কিংবা নিলেও স্বাস্থ্যবিধি বা সামাজিক দূরত্ববিধি ঠিকমতো মেনে চলেন না, তাদের এই ধরনটিতে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১