‘সপ্তাহে ১ কোটি মানুষকে টিকা দেয়া হবে’
jugantor
‘সপ্তাহে ১ কোটি মানুষকে টিকা দেয়া হবে’

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০১ আগস্ট ২০২১, ১৭:০১:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

আগামী ৭ আগস্ট থেকে সপ্তাহে ১ কোটি মানুষকে করোনা টিকার দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, আগামী ৭ থেকে ১৪ আগস্ট এই ৭ দিনে উৎসবমূখর পরিবেশে দেশের মানুষকে অন্তত ১ কোটি ভ্যাকসিন দেয়া হবে। দেশের ইউনিয়ন বা ওয়ার্ড পর্যায় থেকে শুরু করে রাজধানী পর্যন্ত সর্বোত্র এই টিকা উৎসব চলবে। এই ভ্যাকসিন প্রদানে বয়স্ক মানুষকে অগ্রাধিকার দিয়ে তারপর অন্যান্য ব্যক্তিদেরকে ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। অধিক সংখ্যক মানুষকে ভ্যাকসিনের আওতায় নিয়ে আসতে কেবল মাত্র ভোটার আইডি কার্ড অথবা কোন কোন ক্ষেত্রে আরো সহজ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দেশের অধিক সংখ্যক মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া হবে।

রোববার দুপুরে মহাখালীর বিসিপিএস অডিটোরিয়ামে এমবিবিএস প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এ সময় নিবন্ধন না করলেও বয়স্করা করোনার টিকা নিতে পারবেন বলে জানান তিনি।

করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে পোশাকশ্রমিকরা কর্মস্থলে ফেরায় এটি আরও বাড়তে পারে উল্লেখ করে মন্ত্রী সবাইকেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

আগামী ৭ তারিখ থেকে উপজেলা পর্যায়ে টিকা দেয়া হবে। এনআইডি কার্ড দেখিয়ে পঁচিশোর্ধ্বদের এ টিকা নেয়ার ব্যবস্থা রেখেছে সরকার। একই সাথে গর্ভবতীদের টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

দেশের স্বাস্থ্যখাত নিয়ে নানা সমালোচনা প্রসঙ্গ উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাস সৃষ্টির আগে এর ট্রিটমেন্ট বিষয়ে কারও কিছু জানা ছিল না। আমরা অতি দ্রুত শিক্ষা নিয়েছি। মাত্র ১টি ল্যাব থেকে প্রায় সাড়ে ছয়শত ল্যাব করা হয়েছে। ১৭-১৮ হাজার শয্যা করা হয়েছে। আইসিইউ,এইচডিইউ সংখ্যা বৃদ্ধিসহ সারাদেশে ব্যাপক হারে অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। দেশের স্বাস্থ্যখাত ভালো সেবা দিয়েছে বলেই দেশের অর্থনীতি এখনও বিশ্বের বহু দেশের অর্থনীতি থেকে এগিয়ে রয়েছে।

‘সপ্তাহে ১ কোটি মানুষকে টিকা দেয়া হবে’

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০১ আগস্ট ২০২১, ০৫:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

আগামী ৭ আগস্ট থেকে সপ্তাহে ১ কোটি মানুষকে করোনা টিকার দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, আগামী ৭ থেকে ১৪ আগস্ট এই ৭ দিনে উৎসবমূখর পরিবেশে দেশের মানুষকে অন্তত ১ কোটি ভ্যাকসিন দেয়া হবে। দেশের ইউনিয়ন বা ওয়ার্ড পর্যায় থেকে শুরু করে রাজধানী পর্যন্ত সর্বোত্র এই টিকা উৎসব চলবে। এই ভ্যাকসিন প্রদানে বয়স্ক মানুষকে অগ্রাধিকার দিয়ে তারপর অন্যান্য ব্যক্তিদেরকে ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। অধিক সংখ্যক মানুষকে ভ্যাকসিনের আওতায় নিয়ে আসতে কেবল মাত্র ভোটার আইডি কার্ড অথবা কোন কোন ক্ষেত্রে আরো সহজ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দেশের অধিক সংখ্যক মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া হবে। 

রোববার দুপুরে মহাখালীর বিসিপিএস অডিটোরিয়ামে এমবিবিএস প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

 এ সময় নিবন্ধন না করলেও বয়স্করা করোনার টিকা নিতে পারবেন বলে জানান তিনি।

করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে পোশাকশ্রমিকরা কর্মস্থলে ফেরায় এটি আরও বাড়তে পারে উল্লেখ করে মন্ত্রী সবাইকেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

আগামী ৭ তারিখ থেকে উপজেলা পর্যায়ে টিকা দেয়া হবে। এনআইডি কার্ড দেখিয়ে পঁচিশোর্ধ্বদের এ টিকা নেয়ার ব্যবস্থা রেখেছে সরকার। একই সাথে গর্ভবতীদের টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

দেশের স্বাস্থ্যখাত নিয়ে নানা সমালোচনা প্রসঙ্গ উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাস সৃষ্টির আগে এর ট্রিটমেন্ট বিষয়ে কারও কিছু জানা ছিল না। আমরা অতি দ্রুত শিক্ষা নিয়েছি। মাত্র ১টি ল্যাব থেকে প্রায় সাড়ে ছয়শত ল্যাব করা হয়েছে। ১৭-১৮ হাজার শয্যা করা হয়েছে। আইসিইউ,এইচডিইউ সংখ্যা বৃদ্ধিসহ সারাদেশে ব্যাপক হারে অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। দেশের স্বাস্থ্যখাত ভালো সেবা দিয়েছে বলেই দেশের অর্থনীতি এখনও বিশ্বের বহু দেশের অর্থনীতি থেকে এগিয়ে রয়েছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

২৬ অক্টোবর, ২০২১
২০ অক্টোবর, ২০২১